মস্কোর কনসার্ট হলে হামলা: রাশিয়াকে সতর্ক করেছিল ইরানও

মস্কোয় এই হামলার কয়েক দিন আগেই ‘বড় ধরনের একটি সন্ত্রাসী হামলা’ হতে পারে বলে ইরান তথ্য জানিয়েছিল রাশিয়াকে।

রয়টার্স
Published : 1 April 2024, 02:09 PM
Updated : 1 April 2024, 02:09 PM

মস্কোর উপকণ্ঠে গতমাসে কনসার্ট হলে সন্ত্রাসী হামলার আগে রাশিয়াকে কেবল যুক্তরাষ্ট্রই নয়, সতর্ক করেছিল ইরানও। বড় ধরনের একটি সন্ত্রাসী হামলা হতে পারে বলে ইরান তথ্য জানিয়েছিল রাশিয়াকে। সংশ্লিষ্ট তিনটি সূত্র বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে একথা জানিয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একটি সূত্র জানায়, কনসার্ট হলে হামলার কয়েক দিন আগে ইরান ওই তথ্য রাশিয়াকে জানিয়েছিল। কিছুদিন আগে ইরানে হওয়া ভয়াবহ এক বোমা হামলায় জড়িতদের জেরা করার সময় এ তথ্য জানতে পেরেছিল ইরান।

ইরান গত ৩ জানুয়ারিতে কেরমান নগরীতে জোড়া বোমা হামলায় জড়িত ৩৫ জনকে গ্রেপ্তার করে। এর মধ্যে ছিলেন জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের আফগানিস্তান শাখা আইএসআইএস-কে বা ইসলামিক স্টেট-খোরাসানের এক কমান্ডারও।

ইসলামিক স্টেট ইরানে বোমা হামলার দায় স্বীকার করেছে। আবার রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর কনসার্ট হলে হামলার দায় স্বীকার করেও ফুটেজ প্রকাশ করেছে এই জঙ্গি গোষ্ঠীটি।

মস্কোয় গত শুক্রবার (২২ মার্চ) চার বন্দুকধারী কানায় কানায় পূর্ণ ক্রোকাস সিটি হলের দর্শক গ্যালারির দিকে লক্ষ্য করে প্রথমে এলোপাতাড়ি গুলি ছোড়ে। তারপর পেট্রোল ঢেলে ভবনটিতে আগুন ধরিয়ে দেয়।

২০০৪ সালে বেসলান স্কুলে হামলার ঘটনার পর থেকে এটিই রাশিয়ায় সবচেয়ে প্রাণঘাতী হামলার ঘটনা। হামলায় অন্তত ১৪৪ মানুষ নিহত হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা বলেছিলেন, তাদের গোয়েন্দা তথ্য বলছে, মস্কোয় হামলা চালিয়েছে আইএস এর আফগান শাখা ইসলামিক স্টেট খোরাসান (আইএসআইএস-কে)।

মস্কোতে কোনো বড় জনসমাগমস্থলে হামলা হতে পারে, তা মার্চের শুরুর দিকেই রাশিয়া কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। তবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আস্থা সংকটের কারণে তাদের সেই সতর্কবার্তাকে ‘মিথ্যা প্রচার’ বলে উড়িয়ে দিয়েছে ক্রেমলিন।

কিন্তু ইরানের দেওয়া গোয়েন্দা তথ্য কিংবা সতর্কবার্তা উপেক্ষা করা রাশিয়ার জন্য কঠিন। কারণ, রাশিয়া এবং ইরান দুই দেশই পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার কবলে আছে। এ পরিস্থিতিতে ইউক্রেইন যুদ্ধের দুই বছরে দেশ দুটি সামরিক ও অন্যান্য ক্ষেত্রে সহযোগিতা জোরদার করেছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে দ্বিতীয় সূত্র জানিয়েছেন, ইরান রাশিয়াকে হামলার বিষয়ে আগাম সতর্ক করতে পারলেও তারা বিস্তারিত তেমন কিছু জানাতে পারেনি। হামলাটি কখন বা ঠিক কোথায় হতে পারে এমন কোনও তথ্য দিতে পারেনি।

তিনি জানান, ইরান কেবল জানিয়েছিল “তাদেরকে (আইএসআইএস-কে সদস্য) রাশিয়ায় একটি গুরুত্বপূর্ণ অভিযান চালানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ইরানে গ্রেপ্তার হওয়া সন্ত্রাসীদের একজন বলেছিল, জঙ্গি গোষ্ঠীটির কিছু সদস্য এরই মধ্যে রাশিয়ায় পাড়ি দিয়েছে।”

তৃতীয় সূত্রও নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানিয়েছেন, “যেহেতু ইরান বছরের পর বছর সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছে, তাই ইরান কর্তৃপক্ষ গ্রেপ্তার হওয়া সন্ত্রাসীদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মস্কোকে সতর্ক করে দিয়ে তাদের দায়িত্ব পালন করেছে।”

তবে এ বিষয়ে জিজ্ঞেস করা হলে ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ সোমবার বলেন, এ ব্যাপারে তিনি কিছু জানেন না। ওদিকে, ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় এমন খবরের বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। হোয়াইট হাউজও এ বিষয়ে কিছু বলেনি।