হামাসের হামলার জন্য ইরান দায়ী: জার্মান চ্যান্সেলর

হামাসকে ইসরায়েলে ঢুকে হামলা চালানোর মতো পর্যায়ে নিয়ে যেতে সহায়তা করার জন্য ইরান দায়ী- বলেছেন ওলাফ শলৎস।

রয়টার্স
Published : 12 Oct 2023, 03:11 PM
Updated : 12 Oct 2023, 03:11 PM

গত সপ্তাহান্তে ইসরায়েলে ঢুকে ফিলিস্তিনের মুক্তিকামী শসস্ত্র সংগঠন হামাসের নজিরবিহীন হামলার জন্য ইরানকে দোষারোপ করেছেন জার্মানির চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎস।

তিনি বলেন, হামাসকে এমন হামলা চালানোর মতো পর্যায়ে নিয়ে যেতে সহায়তা করার জন্য ইরান দায়ী। জার্মান পার্লামেন্টে এক বিশেষ ভাষণে শলৎস হামাসের ওপর নানা বিধিনিষেধ আরোপের ঘোষণা দেওয়ার সময় একথা বলেন।

শলৎস বলেন, “ইরান সক্রিয়ভাবে এই কাপুরুষোচিত হামলায় সমর্থন দিয়েছে এমন অকাট্য প্রমাণ আমাদের কাছে নেই। তবে আমাদের সবার কাছে এটি স্পষ্ট যে, ইরানের সমর্থন ছাড়া হামাস কখনোই এই নজিরবিহীন হামলা চালাতে পারত না।”

“ইরানের শাসকগোষ্ঠীর শীর্ষ পর্যায় এবং ওই অঞ্চলের অন্যান্য সরকারি কর্মকর্তাদের পক্ষ থেকে উচ্ছসিত যে বিবৃতি দেওয়া হয়েছে তা জঘন্য। তেহরানের নেতৃবৃন্দ নির্লজ্জভাবে তাদের আসল রঙ দেখিয়ে দিয়েছে এবং গাজায় তাদের ভূমিকার বিষয়টিও নিশ্চিত করেছে।”

ইরান এই হামলার জন্য হামাসের প্রশংসা করলেও হামলায় তেহরানের জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

জার্মান পার্লামেন্টের ভাষণে শলৎস বলেছেন, তার সরকার হামাসের সমর্থনে সবরকম তহবিল সংগ্রহ এবং অন্যান্য কর্মকাণ্ড নিষিদ্ধ করবে।

ইসরায়েলি জেলে থাকা ফিলিস্তিনি বন্দিদের সমর্থনকারী একটি মানবাধিকার গোষ্ঠী সামিদুন এর ওপরও তিনি নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দেন। জার্মান কর্তৃপক্ষের ভাষ্য, এই মানবাধিকার গোষ্ঠী বিদ্বেষ ছড়াচ্ছে এবং ইসরায়েলকে ধ্বংসের ডাক দিয়ে আসছে।

গত ৭ অক্টোবর সকালে ইসরায়েলে নজিরবিহীন হামলা চালায় ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাস। তারা ইসরায়েলে হাজার হাজার ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ে এবং স্থলপথ, জলপথ ও আকাশপথে দেশটিতে ঢুকে বহু ইসরায়েলিকে হত্যা করা সহ অনেককে ধরে নিয়ে গিয়ে জিম্মিও করে।