কিইভ ও লিভিভের ঐতিহাসিক স্থানগুলো এখন ঝুঁকিপূর্ণের তালিকায়

রাশিয়া জাতিসংঘকে আশ্বস্ত করে বলেছে, ঐতিহাসিক স্থানগুলোতে ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে তাদের সশস্ত্র বাহিনী পূর্বসতর্কতা অবলম্বন করছে।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 Feb 2024, 06:15 PM
Updated : 7 Feb 2024, 06:15 PM

জাতিসংঘ সংস্থা ইউনেস্কো বলেছে, ইউক্রেইনের দুটি নগরীর ঐতিহাসিক স্থানগুলো যুদ্ধের কারণে ধ্বংস হয়ে যাওয়ার ঝুঁকিতে আছে। এই ঝুঁকিপূর্ণ স্থানগুলোর মধ্য আছে, কিইভের সেন্ট সোফিয়া ক্যাথেড্রাল এবং কিইভ-পেচেরস্ক লাভরা নামের মঠ এলাকায় মধ্যযুগে নির্মিত কয়েকটি ভবন। লিভিভ নগরীর ঐতিহাসিক কেন্দ্রকেও ইউনেস্কো তাদের ঝুঁকিপূর্ণ তালিকায় যুক্ত করেছে।

এসব জায়গার সুরক্ষা পুরোপুরি নিশ্চিতের শর্ত পূরণ করা সম্ভব হচ্ছে না বলে জানিয়েছে ইউনেস্কো। জাতিসংঘের এই সংস্থাটির বিশ্ব ঐতিহ্যসংক্রান্ত কমিটি বলেছে, এসব স্থানে সরাসরি হামলার ঝুঁকি আছে। আবার দুই নগরীতে বোমা হামলার কারণে সৃষ্ট কম্পনের কারণেও এই স্থানগুলো সুরক্ষিত নয়।

কমিটি আরও বলেছে, ঝুঁকিপূর্ণ তালিকায় এসব স্থানকে অন্তর্ভুক্ত করার মধ্য দিয়ে জাতিসংঘের সদস্যরাষ্ট্রগুলোকে তাদের দায়িত্বের কথা মনে করিয়ে দেওয়া হচ্ছে। তারা যেন এগুলোর সুরক্ষায় আরও আর্থিক এবং প্রযুক্তিগত সহযোগিতার দ্বার খুলে দেয়।

রাশিয়া জাতিসংঘকে আশ্বস্ত করে বলেছে, ঐতিহাসিক স্থানগুলোতে ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে তাদের সশস্ত্র বাহিনী প্রয়োজনীয় পূর্বসতর্কতা অবলম্বন করছে। তবে ইউক্রেইন রাশিয়ার একথায় আশ্বস্ত হতে পারছে না।

কিইভ ও লিভিভের আগে গত জানুয়ারিতে ইউক্রেইনের বন্দরনগরী ওদেসাকে জাতিসংঘের ঝুঁকিপূর্ণ তালিকায় যুক্ত করা হয়েছিল। ইউক্রেইনের সঙ্গে শস্য চুক্তি থেকে রাশিয়া সরে আসার পর সাম্প্রতিক মাসগুলোতে রুশ বাহিনী ওদেসায় বোমা হামলা জোরদার করেছে। সংবাদ সূত্র: বিবিসি

(প্রতিবেদনটি প্রথম ফেইসবুকে প্রকাশিত হয়েছিল ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে: ফেইসবুক লিংক)