ইনস্টাগ্রাম, ফেইসবুকে থ্রেডসের পোস্ট শেয়ারের বাধ্যবাধকতা উঠল

থ্রেডসের প্রাইভেসি অপশনে গিয়ে ‘'সাজেস্টিং পোস্টস অন আদার অ্যাপস’ অপশনে প্রবেশ করলে দুটি সুইচ মিলবে, যা দিয়ে ফেইসবুক বা ইনস্টাগ্রামের সাজেশন বন্ধ করা যাবে।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 14 Nov 2023, 06:31 AM
Updated : 14 Nov 2023, 06:31 AM

মেটার মাইক্রোব্লগিং সাইট থ্রেডস ব্যবহারকারীদের একটি অংশের দাবি, তাদের থ্রেডস পোস্ট ফেইসবুক ও ইনস্টাগ্রামে দেওয়ার বাধ্যবাধকতা উঠে গিয়েছে।

ব্যবহারকারী থ্রেডসের প্রাইভেসি অপশনে গিয়ে ‘'সাজেস্টিং পোস্টস অন আদার অ্যাপস’ অপশনে প্রবেশ করলে দুটি সুইচ পাবেন, যা দিয়ে ফেইসবুক বা ইনস্টাগ্রামের সাজেশন বন্ধ করা যাবে। তবে, মেটা এইসব ফিচার ধীরে ধীরে চালু করায় অনেকেই হয়তো এই নতুন টগল এখনই দেখতে পাবেন না বলে লিখেছে প্রযুক্তি সংবাদের সাইট ভার্জ।

গত কয়েক মাসে ‘ফর ইউ অন থ্রেডস’ নামের অপশন যোগ হয়েছে ফেইসবুক ও ইনস্টাগ্রামে। তবে, ব্যবহারকারীরা এই অপশন নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশের পর অক্টোবরে থ্রেডস বলেছে, তারা নতুন ফিচার চালু করার আগে ব্যবহারকারীদের ‘মতামত শুনছে’।

ফিচারটি তৈরি হয়েছে থ্রেডসে ব্যবহারকারীর সম্পৃক্ততা বাড়ানোর উদ্দেশ্যে। প্রাথমিক উন্মোচনের সময় বেশ ইতিবাচক সাড়া ফেলেছিল অ্যাপটি। তবে, ধীরে ধীরে ফিচারের অভাবে এর সক্রিয় ব্যবহারকারী কমেছে।

গত মাসে এই অ্যাপগুলোর মূল কোম্পানি মেটার আয়ের হিসাব চলাকালীন সিইও মার্ক জাকারবার্গ বলেন, থ্রেডসের মাসিক ব্যবহারকারী সংখ্যা এখন ১০ কোটির কাছাকাছি। যদিও প্রতিদ্বন্দ্বী সামাজিক মাধ্যম এক্স-এর মালিক ইলন মাস্কের সম্প্রতি দাবি করা ‘৫০ কোটি মাসিক ব্যবহারকারীর’ চেয়ে ঢের পিছিয়ে আছে এটি। তবে, কেবল চার মাস আগে চালু হওয়া সামাজিক মাধ্যম হিসেবে থ্রেডসের এমন অর্জনকে ‘ইতিবাচক সংকেত’ বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে ভার্জ।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, থ্রেডসে আরও কিছু নতুন ও বড় পরিবর্তন আসার সম্ভাবনা আছে। সফটওয়্যার প্রকৌশলী আলেসান্দ্রো পালুজ্জি’র সহায়তায় উন্মোচনের আগেই থ্রেডসের বিভিন্ন নতুন ফিচার সম্পর্কে ধারণা পেয়েছেন ব্যবহারকারীরা। এর মধ্যে তিনি একটি স্ক্রিনশট পোস্ট করেন, যা থেকে ধারণা মিলেছে, মেটা সম্ভবত ইউরোপের ব্যবহারকারীদের জন্যেও থ্রেডস উন্মোচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে।

ভার্জ বলছে, ইউরোপে মেটার থ্রেডস অ্যাপ উন্মোচন আটকে রাখার পেছনে কাজ করেছে ‘ডিজিটাল মার্কেটস অ্যাক্ট’, যা থেকে একাধিক প্ল্যাটফর্মে ডেটা স্থানান্তরের বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করছে।