৮ ডলারেই দুই ‘ব্লু ব্যাজ’ এনে টুইটারকে মশকরা টামব্লারের

“এটি টুইটার নয়। এটি আপনার নিয়মিত সাধারণ সাইট নয়। এটি টামব্লার। আমরা পাগল। আমরা উদ্ভট। মানিয়ে নিই না। আমরা তারছেঁড়া।”

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 12 Nov 2022, 01:30 PM
Updated : 12 Nov 2022, 01:30 PM

টুইটারে মাসিক আট ডলারে ভেরিফাইড ‘ব্লু’ ব্যাজ বিক্রির পরিকল্পনাকে ‘ব্যাঙ্গ করে’ একই দামে ‘একটি নয়, বরং দুটি’ ব্যাজ বিক্রির ঘোষণা দিয়েছে সামাজিক মাধ্যম সাইট টামব্লার।

“টামব্লারে আমরা ‘ইমপর্টেন্ট ব্লু ইন্টারনেট চেকমার্ক’ আনছি। এর দাম স্টিল (চোরাই অর্থে) সাত দশমিক ৯৯ ডলার! ‘একটি নয় বরং দুটি’ চেকমার্কের কথা বিবেচনা করলে, এটি অন্যান্য জায়গা থেকে সাশ্রয়ী।” --এক পোস্টে বলেছে মাইক্রোব্লগিং সাইটটি।

“আপনার প্রশ্ন এটা কেন? আমরা বলছি কেন নয়? কোনো কিছুই ব্যাপার না!”

এই পোস্টকে মাস্কের টুইটার দখলের পর এর ভেরিফিকেশন নীতিমালা ঢেলে সাজানোর কার্যক্রমের ওপর ‘সরাসরি আক্রমণ’ হিসেবে বর্ণনা করেছে ব্রিটিশ সংবাদপত্র ইন্ডিপেন্ডেন্ট। নতুন নিয়ম আসার পর বিভিন্ন জনপ্রিয় ব্যক্তির ছদ্মবেশে বেশ কিছু নকল ‘ভেরিফাইড’ অ্যাকাউন্ট তৈরি হওয়ায় ‘বিশৃঙ্খলা’ দেখা দিয়েছে টুইটারে।

টেসলা প্রধান মাস্কের টুইটার অধিগ্রহনের আগে, বিভিন্ন হাই-প্রোফাইল তারকা, সরকারী কর্মকর্তা ও ব্র্যান্ডের মতো অ্যাকাউন্টগুলোকে ‘আসল’ হিসেবে চিহ্নিত করতে নীল রঙের টিকমার্ক ব্যবহৃত হয়েছে।

তবে, অধিগ্রহনের পর বিনামূল্যের এই সেবাকে মাসিক আট ডলারের ‘টুইটার ব্লু’ প্রিমিয়াম সেবা হিসেবে সকল ব্যবহারকারীর জন্য উন্মুক্ত করে দেন মাস্ক।

পরবর্তীতে, ‘ব্লু’ গ্রাহক সেবা থেকে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ অ্যাকাউন্ট আলাদা করতে ‘অফিসিয়াল’ নামে ধূসর রঙের একটি লেবেল চালুর সিদ্ধান্ত নেয় টুইটার। এর ফলে প্ল্যাটফর্মে নীল রঙের টিক চিহ্নের সংজ্ঞা যে ‘বদলে যাচ্ছে’, ওই বিষয়টি ইঙ্গিত দিচ্ছে কোম্পানিটি।

“লোভনীয় সেই স্ট্যাটাস চিহ্ন, আর এখন আপনিও একটি পেতে পারেন।”

সমালোচকদের দাবি, নতুন এই ব্যবস্থা বেশ বিভ্রান্তিকর। একই দিন মাস্ক একে ‘নান্দনিক দুঃস্বপ্ন’ হিসেবে আখ্যা দিয়ে টুইট করে বলেন, এর ‘অফিসিয়াল’ চিহ্নকে ‘মেরে ফেলেছেন’ তিনি।

এরই মধ্যে অনেক ব্যবহারকারী আট ডলারে ভেরিফাইড ব্যাজ কিনে ছদ্মবেশি অ্যাকাউন্ট হিসেবে টুইট শুরু করেন। সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশের এক ছদ্মবেশি অ্যাকাউন্ট টুইট করেছে, “ইরাকিদের মেরে ফেলা মিস করছি আমি!”

টুইটার ‘ব্লু’ ব্যাজের এই ‘হাস্যকর প্রক্রিয়া’ নিয়েই বিদ্রুপ করেছে টামব্লার। তাদের ভাষ্যমতে, তাদের টিক চিহ্নের সংস্করণ কিনতে পারেন যে কেউই।

“লোভনীয় সেই স্ট্যাটাস চিহ্ন, আর এখন আপনিও একটি পেতে পারেন—টামব্লার কর্মীর মাধ্যমে ভেরিফাই করা ছাড়াই।” --বলছে মাইক্রোব্লগিং সাইটটি।

“এটি কোনো ভেরিফিকেশন স্ট্যাটাস নয়; এটি একটি ‘ইমপর্টেন্ট ব্লু ইন্টারনেট চেকমার্ক’, ২০২২ সালেও যা যুক্তিসঙ্গত।”

“যে কোনো সময় এটি হয়তো ‘একগুচ্ছ কাঁকড়া’ও হয়ে যেতে পারে।”

টামব্লার আরও বলেছে, ফিচারটি এখন কেবল প্ল্যাটফর্মের ওয়েব সংস্করণে মিলছে। আর মোবাইলে আপাতত কাজ করে না এটি।

সম্প্রতি টামব্লারে যোগ দেওয়া বিভিন্ন জনপ্রিয় তারকার মধ্যে আছেন ডেডপুল খ্যাত অভিনেতা রায়ান রেনল্ডস এবং ওয়ান্ডারওম্যান খ্যাত অভিনেত্রী লিন্ডিয়া কার্টার।

টুইটারে টেসলা প্রধান মাস্কের বিভিন্ন নতুন পরিবর্তন নিয়ে ‘মজা করতে’ পেইজ বানিয়েছেন টামব্লারের বেশ কিছু ব্যবহারকারী।

টামব্লারে সাবেক টুইটার ব্যবহারকারীদের স্বাগত জানানো একটি পোস্ট ভাইরাল হয়েছে, যেখানে লেখা, “এতে কোনো ইলন মাস্ক নেই।”

“এটি টুইটার নয়। এটি আপনার নিয়মিত সাধারণ সাইট নয়। এটি টামব্লার। আমরা পাগল। আমরা উদ্ভট। মানিয়ে নিই না। আমরা তারছেঁড়া।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক