‘বাংলাদেশ নিশ্চয় আমাদের ম্যাচ দেখেছে’, ভুটানকে উড়িয়ে বললেন ভারত কোচ

ভুটানকে ১০ গোলের মালা পরিয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসে ভারত কোচ শুক্লা দত্ত বললেন, বাংলাদেশ ও নেপালের বিপক্ষে ম্যাচের আগে বাড়তি আত্মবিশ্বাস সঞ্চয় করে নিল তার দল।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 Feb 2024, 11:57 AM
Updated : 2 Feb 2024, 11:57 AM

১০ গোলের ব্যবধানে জিতে টুর্নামেন্টে যাত্রা শুরু, যে কোনো কোচের জন্যই দারুণ তৃপ্তির। ভুটানকে গুঁড়িয়ে ভারতের অনূর্ধ্ব-১৯ দলের কোচ শুক্লা দত্তও চওড়া হাসি নিয়ে এলেন সংবাদ সম্মেলনে। বললেন, টুর্নামেন্টের বাকি পথচলায় বাংলাদেশ ও নেপাল ম্যাচের জন্য বাড়তি আত্মবিশ্বাস সঞ্চয় করে নিল তার দল।

কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে শুক্রবার সাফ অনূর্ধ্ব-১৯ উইমেন’স চ্যাম্পিয়নশিপে ভুটানকে ১০-০ গোলে উড়িয়ে দেয় ভারত। আগামী রোববার রাউন্ড রবিন লিগে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে স্বাগতিক বাংলাদেশের মুখোমুখি হবে তারা।

উদ্বোধনী দিন সন্ধ্যা ৭টায় নেপালের মুখোমুখি হওয়ার আগে ভারত-ভুটান ম্যাচে চোখ রাখার কথা বলেছিলেন বাংলাদেশ কোচ সাইফুল বারী টিটু। ভুটানকে গোলের মালা পরিয়ে এসে ভারত কোচ শুক্লাও জানালেন, তারও মনে হচ্ছে এই ম্যাচে চোখ রেখেছিল বাংলাদেশ।

“বাংলাদেশ ভালো দল। ওরাও নিশ্চয়ই আমাদের এই ম্যাচ দেখেছে। ওরা ওদের মতো তৈরি করবে, আমরা নিজেদেরকে আমাদের মতো তৈরি করব। আমার মনে হয় না আজকের ম্যাচের গোল ওদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ হবে। তবে এই জয় শুধু বাংলাদেশ ম্যাচই নয়, নেপাল ম্যাচেও আমাদের উজ্জীবিত করবে।”

“আমার তিনটি ম্যাচই জিততে চাই। ধাপে ধাপে এগিয়ে যেতে চাই। এই তিন ম্যাচ জিতলে কী হবে জানি না, তবে সবগুলো ম্যাচই জিততে চাই। এখানে এসেছি জেতার জন্য। আমাদের লক্ষ্য জয়ের।”

বয়সভিত্তিক এই প্রতিযোগিতা তিন ক্যাটাগরিতে হয়েছে এ পর্যন্ত। ভারত ২০১৮ সালে অনূর্ধ্ব-১৮ ক্যাটাগরিতে জিতেছিল। তিন বার শিরোপা জেতা বাংলাদেশকে তাই মোটেও হালকাভাবে নিচ্ছেন না শঙ্কা, দাবি করলেন টিটুর দল সম্পর্কে ভালো জানাশোনা আছে তার।

“বাংলাদেশের অনূর্ধ্ব-১৭ দলকে যতটুকু দেখেছি ওরা খুব ভালো দল। ওদের পরিচর্যাটাও ভালো। এখানে আসার আগে ওদের সম্পর্কে জেনেছি। কে কে কোচিং করছে, কোথায় কোচিং করছে সেগুলো আমার সব জানা।”

“কোনো সন্দেহ নেই, বাংলাদেশ খুব ভালো দল। দারুণ উন্নতি করেছে। গত বছর সব ট্রফিও জিতেছে। নিশ্চয় ওরা ভালো, নইলে সব শিরোপা জিতবে কেন? সেদিক থেকে অনেক প্রতিদ্বন্দ্বিতা বেড়ে গেল। আমার আকাঙ্ক্ষা, আমার লক্ষ্যটা বড় হওয়া দরকার। বাংলাদেশ যখন ভালো দলের সঙ্গে জিতছে, আমাদেরও জেতা উচিৎ।”