মারিয়া-মনিকার কাছে বাড়তি চাওয়া সাবিনার

২০১৭ সালের তিক্ত অভিজ্ঞতার স্মৃতি আওড়ে এবার সিঙ্গাপুরকে হারানোর আশার কথা শোনালেন বাংলাদেশ জাতীয় নারী ফুটবল দলের অধিনায়ক।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 29 Nov 2023, 12:18 PM
Updated : 29 Nov 2023, 12:18 PM

প্রায় সাত বছর আগের ম্যাচের সময় ও স্কোরলাইন ঠিকঠাক মনে করতে পারলেন না সাবিনা খাতুন। তবে বাংলাদেশ অধিনায়কের ঠিকই মনে আছে, সিঙ্গাপুরের বিপক্ষে হেরেছিল দল। সংবাদ সম্মেলনে সেই তেতো স্মৃতি আওড়ালেন। শোনালেন সিঙ্গাপুরকে এবার হারানোর আশাবাদ। লক্ষ্য পূরণে মাঝমাঠের নির্ভরযোগ্য জুটি মারিয়া মান্দা ও মনিকা চাকমার কাছে বাড়তি প্রত্যাশাও জানিয়ে রাখলেন তিনি। 

কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে শুক্রবার প্রথম প্রীতি ম্যাচে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও সিঙ্গাপুর। দুই দলের দ্বিতীয় প্রীতি ম্যাচটি একই স্টেডিয়ামে হবে ৪ ডিসেম্বরে।

২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে প্রীতি ম্যাচে প্রথম এবং সবশেষ সিঙ্গাপুরের মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ। জালান বেসার স্টেডিয়ামে সেই ম্যাচে সাবিনাদের ৩-০ গোলে হারিয়েছিল স্বাগতিকরা। বুধবার সংবাদ সম্মেলনে ওই ম্যাচের প্রসঙ্গ পেড়ে সাবিনা জানালেন এবার জয়ের লক্ষ্য তাদের।

“সিঙ্গাপুরের বিপক্ষে ম্যাচ নিয়ে যেটা বলার আছে, সম্ভবত ২০১৬ সালে (২০১৭) ওদের বিপক্ষে আমাদের একটা ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা ছিল। সেখানে সম্ভবত ২-১ গোলে (আসলে ৩-০) আমরা ওদের কাছি হারি। অনেক বছর পর ওদের বিপক্ষে খেলতে যাচ্ছি, আগের চেয়ে আমাদের বর্তমান দল অবশ্যই অনেক ভারসাম্যপূর্ণ। টেকনিক্যাল, টেকটিক্যাল, ফিজিক্যাল সবদিকে উন্নতি হয়েছে।”

“আশা করি, দর্শকেরা মাঠে আসবে, দুটি চ্যালেঞ্জিং ম্যাচ দেখবে। আমরা গোল করলে দর্শকরাই যেন সবচেয়ে বেশি খুশি হন। দেশের ফুটবলের মান যেন রাখতে পারি, উন্নতির ধারাবাহিকতা রাখতে পারি। দেশের মাটিতে খেলা, অবশ্যই লক্ষ্য থাকবে জয়ের।”

লক্ষ্য পূরণে সাবিনা তাকিয়ে আছেন মারিয়া ও মনিকার দিকে। এই জুটি মাঝমাঠে দলকে নির্ভরতা দিচ্ছেন অনেক দিন ধরে। প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের মেয়েদের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ জয়েও এই জুটির অবদান ছিল অনেক। অধিনায়কের বিশ্বাস মারিয়া ও মনিকা ম্যাচের সুর ধরতে পারলে সহজ হয়ে যাবে অনেক কিছুই।

“আমার যতটুকু মনে আছে, (২০১৭ সালের ওই ম্যাচে) মারিয়া খেলেনি, আরও যারা আছে বয়সভিত্তিক পর্যায় থেকে এসেছে তারা ওই ম্যাচ খেলেনি। ছয় বছর আগে (প্রায় সাত বছর আগে) ওই ম্যাচটি হয়েছিল। আমাদের ক্যাম্প চলাটা ভালো ব্যাপার, কেননা ওরা যখন বয়সভিত্তিক দল থেকে এসেছিল, তখন ওদের সঙ্গে মানিয়ে নিতে আমার অনেক সমস্যা হতো, ওদের ম্যাচুরিটি আমার ম্যাচুরিটি এক ছিল না। খেলার ভেতরে যদি আমি ডিসগাইস পাস দিতাম, ওরা বুঝত না। কিন্তু আমার মনে হয় এখন একটা টিম হয়ে উঠেছি আমরা, যেখানে ওদের সাথে আমি স্বাচ্ছন্দ্যে খেলতে পারি।”

“আমি মনে করি, সিঙ্গাপুরের বিপক্ষে ভালো ম্যাচ হবে। টিমের সবাই ভালো…কিন্তু আমি মনে করি, মারিয়া ও মনিকা যদি খেলাটা ধরতে পারে, তাহলে ফল বের করে আনার জন্য…এটা দলের জন্য সবচেয়ে ইতিবাচক দিক। দুজনের প্রতিই আমাদের সবসময় বাড়তি আত্মবিশ্বাস থাকে, মাসুরা (পারভীন) এখন অনেক সিনিয়র, অনেক দায়িত্ব নিয়ে খেলে। এখন আমাদের কেউ পজিশন ধরে খেলে না, যে কেউ যে কোনো পজিশনে খেলতে পারে।”

কোচ সাইফুল বারী টিটু আপাতত প্রথম প্রীতি ম্যাচ নিয়ে ভাবতে চান। তবে সহ-অধিনায়ক মারিয়া সোজাসাপ্টা জানিয়ে দিলেন, ভালো খেলে দুটি ম্যাচই জয়ের লক্ষ্য তাদের।

“দেশের মাটিতে খেলার সুযোগ পেয়েছি, সিঙ্গাপুরের বিপক্ষে আমরা সর্বোচ্চটুকু দিয়ে খেলব। এতদিন যে প্রস্তুতি নিয়েছি, সেটা আমরা ম্যাচ থেকে বুঝতে পারব। কোথায় উন্নতি করতে হবে, সেটা ম্যাচে দেখে নিতে পারব। সিঙ্গাপুরের বিপক্ষে দুটি ম্যাচে চেষ্টা করব ভালো খেলার, জেতার।”