‘রোনালদো-ইব্রাহিমোভিচের মিশেল হলান্ড’

নরওয়ের এই তরুণ স্ট্রাইকারের প্রশংসায় পঞ্চমুখ সবাই।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 Oct 2022, 12:56 PM
Updated : 3 Oct 2022, 12:56 PM

ম্যানচেস্টার ডার্বিতে আর্লিং হলান্ডের মতো হ্যাটট্রিক করেছেন ফিল ফোডেনও, তবে প্রায় সব আলো যেন নিজের করে নিয়েছেন হলান্ড। মাঠে তিনি এতটাই দুর্দান্ত ছিলেন যে, নরওয়ের এই তরুণের মধ্যে জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ ও ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর ছায়া দেখেছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও সিটির সাবেক গোলরক্ষক পিটার স্মাইকেল!

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে রোববার ইউনাইটেডকে দুঃস্বপ্ন উপহার দেয় সিটি। ফিল ফোডেন ও হলান্ডের হ্যাটট্রিকে নগর প্রতিদ্বন্দ্বীদের ৬-৩ গোলে উড়িয়ে দেয় পেপ গুয়ার্দিওলার দল।

এ ম্যাচে হ্যাটট্রিকের সুবাদে দারুণ এক কীর্তি গড়েছেন হলান্ড। প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে নিজেদের মাঠে টানা তৃতীয় হ্যাটট্রিক করা প্রথম খেলোয়াড় বনে গেছেন ২২ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড।

ইউনাইটেডকে গুঁড়িয়ে দেওয়ার পর ফোডেনের কাঁধে হাত রেখে হলান্ড মজা করে বলেন, তারা দুজনই একটি করে ম্যাচ বল পেতে পারেন।

গোল ও হ্যাটট্রিক করতে হলান্ড এতটাই অভ্যস্ত হয়ে উঠছেন যে, ইউনাইটেড ও সিটির সাবেক গোলরক্ষক স্মাইকেলের মনে হচ্ছে ইব্রাহিমোভিচ ও রোনালদোকে নিয়ে তৈরি ‘প্যাকেজ’ নরওয়ের এই ফরোয়ার্ড।

“একজন ভালো স্ট্রাইকারের সবচেয়ে বড় বিষয় হচ্ছে ধৈর্য্য। আমি কিছু সেরা স্ট্রাইকারের বিপক্ষে খেলেছি… ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো, ফিলিপ্পো ইনজাগিরা যেন হারিয়ে যায়, আর হঠাৎ করেই সুযোগ পেয়ে যায়।”

“যখনই হলান্ডের দিকে চোখ রাখতে যাবেন, তখন ভিন্ন ভিন্ন খেলোয়াড়দের দেখবেন। জ্লাতানের মতো ওই গোলটা, রোনালদোর মতো গোলও আছে তার। হলান্ডের মধ্যে শীর্ষ পর্যায়ের স্ট্রাইকারদের একসঙ্গে দেখতে পাবেন। এ কারণেই সে ভীষণ বিপদজ্জক। তার মধ্যে অনেক শীর্ষ স্ট্রাইকারকে দেখার সুযোগ আছে এবং তারা সবাই হলান্ডের মধ্যে উপস্থিত।”

প্রিমিয়ার লিগে আট ম্যাচেই ১৪ গোল হয়ে গেছে হলান্ডের। আসরের সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকায় বড় ব্যবধানে এগিয়ে শীর্ষে ৬ ফুট ৫ ইঞ্চি দৈর্ঘ্যের এই খেলোয়াড়। তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা হ্যারি কেইনের চেয়ে দ্বিগুণ গোল হলান্ডের।

এমন মুঠোভরে পাওয়ার পরও হলান্ডের কণ্ঠে প্রাপ্তির স্ফুরণ নেই। স্কাই স্পোর্টসের সঙ্গে আলাপচারিতায় ভীষণ মিতভাষী তিনি!

“ওকে, মন্দ না (এই সংখ্যাগুলো)।”

“আমরা ছয় গোল করেছি। আমি এ নিয়ে কী বলতে পারি। নিজেদের মাঠে জেতা, ছয় গোল করা, দারুণ। শেষ পর্যন্ত, চমৎকার বিষয়। এর বেশি কিছু বলার নেই।”

যা বলার, তা অবশ্য হলান্ডকে নিয়ে ছোট্ট কথায় বলে দিলেন সিটি কোচ পেপ গুয়ার্দিওলা। এই সংখ্যাগুলো তার কাছে ‘ভীতিকর।’

“সংখ্যাগুলোই তার সম্পর্কে বলছে। এখানে এমন কিছু সে আগেও করেছে। সবসময় আমরা আমাদের মতো করে তাকে সাহায্য করার চেষ্টা করি।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক