মাঠ মাতালেন হলান্ড, গ্যালারিতে গর্বিত বাবার উল্লাস

প্রিমিয়ার লিগ অভিষেকে বাবার সামনে জোড়া গোল করে উচ্ছ্বসিত ম্যান সিটির নতুন তারকা।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 8 August 2022, 04:49 AM
Updated : 8 August 2022, 04:49 AM

দলের দারুণ জয়ে দুটি গোল করে ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ অভিষেক স্মরণীয় করে রাখলেন আর্লিং হলান্ড। উপলক্ষটি আরও রঙিন করে তুলল গ্যালারিতে তার বাবা আলফি হলান্ডের উপস্থিতি। আলফিও ছিলেন ফুটবলার, সিটির জার্সি গায়েই খেলেছেন তিন বছর। বাবাকে আনন্দ উপহার দিয়ে হলান্ড নিজেও ভেসে যাচ্ছেন উচ্ছ্বাসে।

আলোচিত দলবদলে এবার হলান্ডকে দলে এনেছে সিটি। বিশ্ব ফুটবলের সেরা তরুণ প্রতিভাবানদের একজন মনে করা হয় তাকে। তবে জার্মান ফুটবল থেকে ইংলিশ ফুটবলে এসে কেমন করবেন, সেই সংশয় ছিল অনেকের। প্রথম ম্যাচেই ২২ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড জানিয়ে দিলেন, চ্যালেঞ্জ নিতে তিনি প্রস্তুত।

নতুন মৌসুমে লিগে সিটির প্রথম ম্যাচে রোববার জোড়া গোল করে দলকে জয় এনে দেন হলান্ড। ম্যাচ শেষে নরওয়ের এই তারকা বললেন, তাকে বাড়তি তৃপ্তি দিয়েছে বাবাকে খুশি করতে পারা। পাশাপাশি যোগ করলেন, আরও গোল পেতে তিনি মুখিয়ে আছেন।

“এটা দারুণ ব্যাপার যে তিনি দুটি গোলই দেখেছেন। আমার জন্য এটা অনেক বড় মুহূর্ত, প্রিমিয়ার লিগে অভিষেক বলে কথা!”

“তবে সবশেষ গোলটি করার পর ৩০ মিনিট পেরিয়ে গেছে। আমাকে তাই চালিয়ে যেতে হবে।”

হলান্ডের বাবা আলফি ইংলিশ ফুটবলে খেলেছেন প্রায় ১০ বছর। কখনও রক্ষণে, কখনও মাঝমাঠে খেলেছেন তিনি। ১৯৯৩ থেকে ১৯৯৭ পর্যন্ত নটিংহ্যাম ফরেস্টে খেলার পর তিন বছর খেলেছেন লিডস ইউনাইটেডে। সেসময়ই লিডসে জন্ম আর্লিংয়ের। ২০০০ থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত আলফি খেলেছেন ম্যানচেস্টার সিটিতে।

বাবার ক্লাবেই এখন ছেলের নতুন অভিযান। জার্মান ফুটবলে গোলের জোয়ার বইয়ে দেওয়া ফরোয়ার্ডকে অনেক আশা নিয়ে দলে টেনেছে সিটি। শুরুটা যেভাবে হলো, তাতে দারুণ খুশি কোচ পেপ গুয়ার্দিওলা।

“জন্ম থেকেই যে গোল করে আসছে, সে যে এখানেও অনেক গোল করবে, এটা নিয়ে কোনো সংশয়ই ছিল না আমাদের। আমরা যেভাবে খেলতে চাই, সেটির সঙ্গে সে দ্রুতই মানিয়ে নিচ্ছে। যত সময় গড়াবে, আমরা আরও বেশি করে তাকে খুঁজে নেব এবং আশা করি তাকে গোল করার অনেক সুযোগ করে দেব।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক