শিয়াওতেকের শিরোপা, ফের জাবেরের স্বপ্নভঙ্গ

ফাইনালে খুব একটা লড়াই করতে পারেননি ‘মিনিস্টার অব হ্যাপিনেস’ ওন্স জাবের।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 Sept 2022, 05:06 AM
Updated : 11 Sept 2022, 05:06 AM

উইম্বলডনের পর ইউএস ওপেনের ফাইনালেও হেরে গেলেন ওন্স জাবের। দুর্দান্ত কাটানো একটি বছরের শেষ গ্র্যান্ড স্ল্যাম শিরোপা জিতলেন মেয়েদের শীর্ষ খেলোয়াড় ইগা শিয়াওতেক।

নিউ ইয়র্কের হার্ড কোর্টে ফাইনালে খুব একটা লড়াই করতে পারেননি জাবের। দুর্দান্ত শুরুর পর ২১ বছর বয়সী পোলিশ তারকা জিতে যান ৬-২, ৭-৬ (৭-৫) গেমে।

এক পেশে প্রথম সেটের পর কিছুটা প্রতিরোধ গড়েন ২৮ বছর বয়সী জাবের। তবে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে ক্যারিয়ারের তৃতীয় ও চলতি বছরের দ্বিতীয় গ্র্যান্ড স্ল্যাম শিরোপা জেতেন শিয়াওতেক। তার আগের দুটি শিরোপা ছিল ফরাসি ওপেনে।

ফ্ল্যাশিং মিডোর এই ফাইনাল যেন ছিল মেয়েদের শীর্ষ খেলোয়াড়ের সামর্থ্য দেখানোর মঞ্চ। অন্যদের চেয়ে তিনি কতটা এগিয়ে সেটাই যেন দেখালেন তিনি।

গত মার্চে অ্যাশলি বার্টির অবসরের পর নারীদের টেনিসে চলছে শিওয়াতেকের দাপট। এই বছরের শুরুতে তিনি এক পর্যায়ে টানা ৩৭ ম্যাচ জয়ের পথে উঁচিয়ে ধরেন ছয় ট্রফি, যার মধ্যে ছিল ফরাসি ওপেনও।

তার সেই জয়যাত্রা থামে উইম্বলডনের চতুর্থ রাউন্ডে। এরপর নিউ ইয়র্কে নিজেকে নিয়ে গেলেন নতুন উচ্চতায়। প্রথমবারের মতো ইউএস ওপেনের ফাইনালে উঠেই জিতলেন শিরোপা। এই টুর্নামেন্টে সেরা পারফরম্যান্সটা শিয়াওতেক যেন তুলে রেখেছিলেন ফাইনালের জন্য।

“আমি খুব বেশি কিছু আশা করিনি। টুর্নামেন্ট শুরুর আগে এটা ছিল খুব চ্যালেঞ্জিং একটা সময়।”

টানা দুটি গ্ল্যান্ড স্ল্যামের ফাইনালে হারার পর স্বাভাবিকভাবেই খুব আবেগপ্রবণ দেখায় জাবেরকে। উইম্বলডনে এলেনা রিবাকিনার কাছে হারার পর এবার শিরোপা জিততে মরিয়া ছিলেন তিউনিসিয়ার এই তারকা।

শিয়াওতেকের বিপক্ষে মন্থর শুরুর পর ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেন তিনি। কিন্তু শেষরক্ষা করতে পারেননি। হারের পর মেনে নেন, জয় প্রাপ্য ছিল প্রতিপক্ষেরই।

“জয়-পরাজয় টেনিসের অংশ। প্রথম ডব্লিউটিএ শিরোপা জেতার পথেও আমি অনেক সংগ্রাম করেছিলাম। সেটা জিততে আমার সময় লেগেছিল। তাই আমি বিশ্বাস করি, প্রথম মেজর জেতার জন্যও সময় লাগবে।”

“সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার এটা মেনে নেওয়া, যে সব ফাইনাল আমি হেরেছি, সেখান থেকে শিক্ষা নেওয়া। অবশ্যই আমি এমন একজন নই যে হাল ছেড়ে দেব। আমি নিশ্চিত যে, আমি আবারও ফাইনালে খেলব এবং সেটা জেতার জন্য আমার সেরা চেষ্টাটা করব।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক