নরসিংদীর মেঘনা থেকে ‘অবৈধভাবে বালু তুলতে বাধা দেওয়ায়’ হামলা

আহত ১০, তিনটি নৌকা ভাঙচুরের অভিযোগ।

নরসিংদী প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 22 Oct 2023, 12:22 PM
Updated : 22 Oct 2023, 12:22 PM

নরসিংদীর রায়পুরার মেঘনা নদী থেকে অবৈধভাবে বালু তুলতে বাধা দেওয়ায় সন্ত্রাসীদের হামলায় কমপক্ষে ১০ জন গ্রামবাসী আহত হয়েছেন। এ সময় স্থানীয়দের তিনটি নৌকাও ভাঙচুর করা হয়।

রোববার সকাল ১০টার দিকে রায়পুরা উপজেলার চাঁনপুর ইউনিয়নের কালিকাপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে ওই ইউপির চেয়ারম্যান মোমেন সরকার জানান।

আহতদের মধ্যে কালিকাপুর গ্রামের আমির হোসেনের ছেলে সুজন মিয়া (২৫), মগল মিয়ার ছেলে আবদুল্লাহ (১৮), বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়েরের ছেলে মিজান মিয়া (৩০), মানিক মিয়ার ছেলে মান্নান (২৮), লিয়াকত আলীর ছেলে সেলিম হোসেন (৪২), সাজু মিয়ার ছেলে রিফাত হোসেন (১৬) ও রতন মিয়ার (৪৮) নাম জানা গেছে।

তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

এলাকাবাসী ও চাঁনপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নাসির মিয়া জানান, চাঁনপুর গ্রামের সুলতান মিয়া, কালিকাপুর গ্রামের বাবুল মিয়াসহ কয়েক জনের নেতৃত্বে ড্রেজার মেশিন দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে  মেঘনা নদী থেকে অবৈধভাবে বালু তোলা হচ্ছিল। এতে বোরো ধানের জমিসহ বাড়িঘর নদীতে বিলীন হওয়ায় এলাকাবাসী ক্ষতিগ্রস্ত। নিয়মিতভাবে এসব বালু তোলা বন্ধে এলাকাবাসী সম্মিলিতভাবে বাধা দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনকারীরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে এলাকাবাসীর ওপর হামলা চালায়।

চাঁনপুর ইউপির চেয়ারম্যান মোমেন সরকার জানান, একটি রিটের বিপরীতে গত ১৮ অক্টোবর মেঘনা থেকে বালু উত্তোলনে  ৬ মাসের নিষেধাজ্ঞা জারি করে হাই কোর্ট। আদালতের আদেশ অমান্য করে বালু উত্তোলন করলে এলাকাবাসী বাধা দেয়। পরে বালু উত্তোলনকারীদের হামলায়  ১০-১৫ জন আহত হন।

এ ব্যাপারে বাবুল মিয়া ও সুলতান মিয়ার ফোনে কল করা হলেও তাদের সাড়া মেলেনি।

রায়পুরা থানার উপপরিদর্শক আরিফ রব্বানী বলেন, “খবর পেয়েছি, তবে, এখনও বিস্তারিত জানি না। ঘটনাস্থলে পুলিশ যাচ্ছে, পরে বিস্তারিত বলতে পারব।”