ফোনে কার্টুন দেখে নিজের গায়ে আগুন, শিশুটি হাসপাতালে

রাফিয়ার শরীরের ১২ শতাংশ পোড়া আছে, জানান চিকিৎসক।

গাজীপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 31 March 2024, 06:28 PM
Updated : 31 March 2024, 06:28 PM

গাজীপুর মহানগরে কার্টুনের মতো নিজের গায়ে আগুন দিয়ে দগ্ধ এক শিশুকে গুরুতর অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গাজীপুর মহানগরীর ২৮ নম্বর ওয়ার্ডের হাড়িনাল এলাকায় শিশুটির নানার বাড়িতে বুধবার এ ঘটনা ঘটে। শনিবার দুপুরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় শিশুটিকে রাজধানীর শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়।

ছয় বছরের রাফিয়া মুনতাহা মহানগরীর উত্তর ছায়াবীথি এলাকার এস এম মাহমুদুল হাসান ও জিন্নাত জাহান দম্পতির মেয়ে। সে প্লে গ্রুপের ছাত্রী। মাহমুদুল হাসান একজন ফার্মাসিস্ট।

শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক সার্জন মো. তারিকুল ইসলাম বলেন, “রাফিয়া নামে গাজীপুরের একটি শিশু এখানে ভর্তি হয়েছে শনিবার দুপুর ২টায়। সে ২৭ তারিখে আগুনে পুড়ে গিয়েছিল। তার শরীরের ১২ শতাংশ পোড়া আছে।”

ইনস্টিটিউটের সহকারী পরিচালক হোসাইন ইমাম ইমু সাংবাদিকদের বলেন, “রাফিয়ার অবস্থা গুরুতর। তাকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।”

শিশুটির মা জিন্নাত জাহান সাংবাদিকদের বলেন, “রাফিয়া স্মার্ট টিভি ও স্মার্ট ফোনে ফায়ার গেমসসহ বিভিন্ন ওয়েব সিরিজের কার্টুন দেখে থাকে। অনেক কার্টুনে দেখা যায়, নিজের শরীরে আগুন ধরিয়ে আবার নিভিয়ে ফেলে।

“মেয়ে না বুঝে সেসব কার্টুন দেখে চুলার সামনে গিয়ে তার গায়ের সুতির জামার এক অংশ দুই হাত দিয়ে টেনে ধরে আগুন ধরিয়ে দেয়। পরে নেভানোর চেষ্টা করে কিন্তু নেভাতে পারেনি। দাউ দাউ করে শরীরে আগুন ধরে যায়। পরে বাসার লোকজন তাকে জাপটে ধরে আগুন নিভিয়ে ফেলে। ততক্ষণে শরীরের বেশ কিছু অংশ পুড়ে গেছে।” 

রাফিয়া তার নানাবাড়িতে বেড়াতে এসেছিল জানিয়ে তিনি বলেন, ঘটনার পর পরই রাফিয়াকে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমেদ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে শনিবার ঢাকায় আনা হয়।