বরিশালে কিশোরীকে অপহরণের পর ধর্ষণ, ২ জনের যাবজ্জীবন

২০১৪ সালের ৭ জুন ওই কিশোরীকে লঞ্চঘাট থেকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করা হয় বলে জানান বেঞ্চ সহকারী।

বরিশাল প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 12 Feb 2024, 01:27 PM
Updated : 12 Feb 2024, 01:27 PM

বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলায় এক কিশোরীকে অপহরণের পর দলবেঁধে ধর্ষণের মামলায় দুইজনকে আলাদা ধারায় যাবজ্জীবন ও ১৪ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। 

সোমবার বরিশালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. ইয়ারব হোসেন আসামিদের উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন বলে বেঞ্চ সহকারী কাজী মো. হুমায়ুন কবির জানান। 

দণ্ড পাওয়ারা হলেন- বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার পূর্ব ভাতশালা গ্রামের বাসিন্দা আউয়াল রাঢ়ি (৩৫) ও একই উপজেলার ভাতশালা গ্রামের বাসিন্দা তৌকির সন্যামত (৪০)।

মামলার বরাতে বেঞ্চ সহকারী হুমায়ুন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “২০১৪ সালের ৭ জুন সন্ধ্যায় লঞ্চে করে ১৬ বছরের এক কিশোরী তার প্রেমিকে সঙ্গে পালিয়ে বাকেরগঞ্জের ডিসি ঘাটে নামে। সেখানে প্রেমিক ওই কিশোরীকে লঞ্চঘাটে রেখে টাকা আনতে যান।

“এ সময় আউয়ালসহ কয়েকজন ওই কিশোরীকে অপহরণ করে নিয়ে যান। পরে পশ্চিম ভাতশালা গ্রামে পুকুর পাড়ে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করেন তৌকির ও আউয়াল। এক পর্যায়ে ওই কিশোরী জ্ঞান হারিয়ে ফেললে তারা পালিয়ে যান।” 

তিনি বলেন, স্থানীয়রা ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করায়। পরে কিশোরীর কাছ থেকে ঘটনা শুনে তৌকির ও আউয়ালকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে স্থানীয়রা। 

পরে ওই কিশোরী দুইজনকে আসামি করে বাকেরগঞ্জ থানায় মামলা করে। 

বাকেরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাছুম তালুকদার একই বছরের ৫ অগাস্ট দুইজনকে আসামি করে করে আদালতে অভিযোপত্র জমা দেন বলে জানান বেঞ্চ সহকারী। 

সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে অপহরণের দায়ে দুইজনকে ১৪ বছর করে কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা এবং ধর্ষণের ঘটনায় যাবজ্জীবন সাজার পাশাপাশি এক লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয় বলে জানান বেঞ্চ সহকারী হুমায়ুন।