নরসিংদীতে ‘ঘরে জমা গ্যাসের’ বিস্ফোরণে একই পরিবারের দগ্ধ ৬

দগ্ধদের ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্ল্যাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে।

নরসিংদী প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 8 Jan 2024, 02:01 PM
Updated : 8 Jan 2024, 02:01 PM

নরসিংদীর মাধবদী উপজেলায় বাসায় গ্যাস সংযোগের লিকেজ থেকে জমা গ্যাস বিস্ফোরণে নারী ও শিশুসহ একই পরিবারের ছয়জন দগ্ধ হয়েছেন।

সোমবার ভোর ৩টার দিকে সদর উপজেলার নূরালাপুর ইউনিয়নের গদাইরচর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে মাধবদী থানার ওসি মো. কামরুজ্জামান জানান।

দগ্ধরা হলেন-পোশাক শ্রমিক শামীম মিয়া (৪০), তার স্ত্রী আকলিমা বেগম (৩৫) তাদের মেয়ে সানজিদা (১৮), রিয়া মনি (৯) শামীমের বড় ভাই গাফ্ফার মিয়া (৪০) ও ছোট ভাই রশিদ মিয়া (৩২)।

তাদের ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্ল্যাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত শামীমের ভাগ্নি সুমি আক্তার বলেন, “আলগী এলাকার মানিক মিয়া নামের একজন এলাকায় বিভিন্ন বাসাবাড়িতে অবৈধভাবে গ্যাস সংযোগ দেন। সম্প্রতি মামা শামীমের বাড়ির পাশ দিয়ে বিলকিস নামের এক নারীর বাড়িতে গ্যাস সংযোগ দেন তিনি।

“ওই পাইপের একটি ছিদ্র থেকে বের হওয়া গ্যাস শামীমের পুরো ঘরে ছড়িয়ে ছিল। ভোরে রান্না বসানোর জন্য চুলায় আগুন দিলে বিকট বিস্ফোরণে ঘরের ছাদ কেঁপে ওঠে।”

এ সময় দগ্ধ ছয়জনকে প্রথমে এলাকাবাসী উদ্ধার করে নরসিংদী সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্ল্যাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে পাঠানো হয় বলে জানান তিনি।

মাধবদী থানার ওসি মো. কামরুজ্জামান বলেন, “প্রাথমিক তদন্তে মনে হচ্ছে, গ্যাসের বিস্ফোরণ থেকেই আগুন লেগেছে। তারপরও খতিয়ে দেখা হচ্ছে এটি কোন নাশকতা কি-না।”

অবৈধ গ্যাস সংযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।”