টাঙ্গাইল শাড়ির জিআই স্বত্ব পেতে আবেদন

শাড়িটির ইতিহাসের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট মানুষের জীবন জীবিকা ও আড়াইশ বছরের ইতিহাসের তথ্য সংগ্রহ করে ডকুমেন্টেশন তৈরি করে আবেদন করা হয়েছে।

টাঙ্গাইল প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 Feb 2024, 01:29 PM
Updated : 6 Feb 2024, 01:29 PM

ঐতিহ্যবাহী টাঙ্গাইলের শাড়ির বাংলাদেশের ভৌগোলিক নির্দেশক বা জিআই পণ্য হিসেবে স্বীকৃতি পেতে আবেদন করেছে জেলা প্রশাসন।

মঙ্গলবার শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন পেটেন্ট, শিল্প-নকশা ও ট্রেড মার্কস অধিদপ্তরের মহা-পরিচালক বরাবর মেইল করে এ আবেদন করা হয়।

মন্ত্রণালয় আবেদনটি ইতোমধ্যে গ্রহণ করেছে বলে জেলা প্রশাসক মো. কায়ছারুল ইসলাম বিকালে সাংবাদিকদের জানান।

তিনি বলেন, “আমাদের গর্বের টাঙ্গাইল শাড়ি প্রকৃতপক্ষে বাংলাদেশের জিআই পণ্য হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়ার দাবিদার। আমরা তিন মাস ধরে টাঙ্গাইল শাড়ির জিআই পণ্য হিসেবে স্বীকৃতি লাভের জন্য ডকুমেন্টেশন কার্যক্রম চালিয়ে আসছি। আজ আমরা আবেদন করেছি।”

মূলত শাড়িটির ইতিহাসের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট মানুষের জীবন জীবিকা ও আড়াইশ বছরের ইতিহাসের তথ্য সংগ্রহ করে ডকুমেন্টেশন তৈরি করা হয়েছে বলে জেলা প্রশাসক জানান।

তিনি বলেন, “টাঙ্গাইল শাড়ির জিআই স্বীকৃতি পাওয়ার পর ওয়ার্ল্ড ইন্টেলেকচুয়াল প্রপার্টি অর্গানাইজেশন-ওয়াইপোতে তাদের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী আপিল করব। ভারত টাঙ্গাইল শাড়ি অব বেঙ্গল নামে যে জিআই স্বীকৃতি পেয়েছে, এটি বাংলাদেশের স্বার্থের সঙ্গে সাংঘর্ষিক।

“আমরা পুরোপুরো আশাবাদী, চূড়ান্ত বিচারে টাঙ্গাইল শাড়ি বাংলাদেশের জিআই পণ্য হিসেবে স্বীকৃতি নিয়ে আসতে পারব।”

শত শত বছরের ঐতিহ্যের টাঙ্গাইল শাড়ির জিআই স্বীকৃতি দাবি করে সম্প্রতি সেটির স্বীকৃতি নিজেদের পক্ষে নিয়েছে প্রতিবেশী দেশটির পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য।

ভারতের সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ফেইসবুক পেইজে বৃহস্পতিবার একটি পোস্টে বলা হয়, টাঙ্গাইল শাড়ি পশ্চিমবঙ্গের ঐতিহ্য। এক মাস আগেই পণ্যটিকে পশ্চিমবঙ্গের নদিয়া, পূর্ববর্ধমানের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

ভারত সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এ তথ্য জানানোর পর বাংলাদেশের অনেক মানুষ এর প্রতিবাদ জানান এবং ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

ভৌগলিক নির্দেশক (জিওগ্রাফিক্যাল ইনডিকেশন- জিআই) হচ্ছে- একটি প্রতীক বা চিহ্ন, যা পণ্য ও সেবার উৎস, গুণাগুণ ও সুনাম ধারণ ও প্রচার করে।

কোনো দেশের আবহাওয়া ও পরিবেশ যদি কোনো পণ্য উৎপাদনের ক্ষেত্রে বিশেষ গুরুত্ব রাখে, সেই দেশের সংস্কৃতির সাথে যদি বিষয়টি সম্পর্কিত হয়, তাহলে সেটাকে সে দেশের ভৌগোলিক নির্দেশক পণ্য হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন প্রতিষ্ঠান পেটেন্ট ডিজাইন অ্যান্ড ট্রেড মার্কস অধিদপ্তর জিআই নিবন্ধন দেয়। ২০১৩ সালে বাংলাদেশে এ সংক্রান্ত আইন এবং ২০১৫ সালে বিধিমালা হয়।

পুরনো খবর

Also Read: টাঙ্গাইল শাড়ি আমাদের ছিল, আমাদেরই থাকবে: নানক

Also Read: টাঙ্গাইল শাড়ির জিআই: ভারতের স্বীকৃতির 'প্রতিবাদ' জানাবে মন্ত্রণালয়

Also Read: টাঙ্গাইলের শাড়ির জিআই স্বীকৃতির দাবি, ক্ষোভ