লাখ টাকায় সন্তান বিক্রি বাবার, মায়ের কোলে ফেরাল পুলিশ

কাজল বেগম বলেন, “আমার স্বামী ও শাশুড়ি মিলে গোপনে আমার সন্তান বিক্রি করে দিয়েছিল। আমি এখন আপনাদের কী বলব তা বুঝতে পারছি না।”

মাদারীপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 Nov 2023, 06:50 AM
Updated : 30 Nov 2023, 06:50 AM

মাদারীপুরে কালকিনিতে এক লাখ টাকায় সন্তান বিক্রি করে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে বাবার বিরুদ্ধে। পরে শিশুটিকে উদ্ধার করে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিয়েছে পুলিশ।

মঙ্গলবার সকালে ওই শিশুকে উদ্ধার করা হয়।

আলিফ নামে শিশুটির বয়স দুই মাস। পৌর এলাকার চর-ঠেঙ্গামারা গ্রামের আশ্রয় কেন্দ্রের থাকে তার পরিবার।

মায়ের কাছ থেকে পাওয়া অভিযোগ তুলে ধরে কালকিনি থানা পুলিশ জানায়, মা কাজল বেগম তিন দিন আগে আলিফকে ঘরে ঘুম পাড়িয়ে ঘরের বাইরে যান। এ সুযোগে বাবা আজগর আলী ও দাদি পারুল আলিফকে লুকিয়ে নিয়ে যায়।

আলিফকে কোথাও খুঁজে না পেয়ে তার মা অভিযোগ করেন কালকিনি থানায়। পরে তারা সব কিছু জানতে পারে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীটি জানায়, আলিফকে নাজমা বেগম নামে এক দালালের মাধ্যমে মাদারীপুর জেলার কালিকাপুর গ্রামের রতন হাওলাদারের ছেলে জামাল হোসেনের কাছে এক লাখ টাকায় বিক্রি করে দেন। সেই টাকা সমান ভাগ করে নেন নাজমা বেগম ও আলী আজগর।

আলিফকে উদ্ধার করে তার মায়ের কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার পর তার দাদি পারুল বেগম, দালাল নাজমা বেগম ও জামাল হোসেন নামে একজনকে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ।

মা কাজল বেগম বলেন, “আমার স্বামী ও শাশুড়ি মিলে গোপনে আমার সন্তান বিক্রি করে দিয়েছিল। আমি এখন আপনাদের কী বলব তা বুঝতে পারছি না।”

শিশুটির বাবা আজগর আলী লাপাত্তা। তার প্রতিবেশী স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা বাবুল বেপারী বলেন, “বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। আমি একজন পিতা হিসেবে লজ্জা অনুভব করছি।”

কালকিনি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মারগুব তৌহিদ হোসেন বলেন, “আমরা শিশু আলিফকে উদ্ধার করে তার মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিতে পেরেছি, এটাই সবচেয়ে আনন্দের কথা। শিশুটির কোনো ক্ষতি হয়নি।”

[প্রতিবেদনটি প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে: ফেসবুক লিংক]