বরগুনায় ঘাটে ফেরেনি ৩ শতাধিক জেলেসহ ২০ ট্রলার

মিধিলির প্রভাবে বরগুনায় দমকা ও ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যাচ্ছে।

বরগুনা প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 17 Nov 2023, 07:43 AM
Updated : 17 Nov 2023, 07:43 AM

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘মিধিলি’তে উত্তাল হয়ে উঠেছে সাগর। সমুদ্র বন্দরগুলোকে বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। সাগরে মাছ শিকারে যাওয়া বেশিরভাগ ট্রলার নিরাপদ আশ্রয়ে ফিরলেও বরগুনায় ঘাটে ফেরেনি তিন শতাধিক জেলেসহ ২০টি ট্রলার।

মিধিলির প্রভাবে শুক্রবার সকাল থেকে বরগুনায় দমকা ও ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যাচ্ছে। এর মধ্যেও ট্রলারগুলির খোঁজ না মেলায় জেলে পল্লীতে উদ্বেগ বিরাজ করছে।

বরগুনা জেলা মৎস্যজীবি ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী জানান, জেলায় প্রায় দেড় হাজার ট্রলার সাগর মোহনায় ও গভীর সাগরে মাছ শিকার করে। প্রায় সব ট্রলার নিয়েই সাগরে মাছ শিকারে গেছেন জেলেরা।

ঘূর্ণিঝড়ের সতর্ক সংকেতের পরও সব ট্রলার তীরে ফিরতে পারেনি জানিয়ে গোলাম মোস্তফা চৌধুরী আরও জানান, ঘূর্ণিঝড়ের কবলে পড়ে পাথরঘাটা উপজেলার ২০টি মাছ ধরার ট্রলার এখনও নিখোঁজ রয়েছে। এসব ট্রলারে তিন শতাধিক জেলে আছেন।

“তাদের নিখোঁজের ঘটনায় জেলে পল্লীগুলোয় উদ্বেগ বিরাজ করছে। তাদের সন্ধানের চেষ্টা চলছে। এছাড়া একটি ট্রলার ডুবে গেলেও সেটায় থাকা জেলেদের অন্য ট্রলারে উদ্ধার করে পাথরঘাটায় নিয়ে আসা হয়েছে।”

এদিকে ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব মোকাবিলায় বৃহস্পতিবার রাত ১০টায় প্রস্তুতিমূলক সভা করেছে জেলা প্রশাসন।

জেলা প্রশাসনের সুবর্ণজয়ন্তী সম্মেলনকক্ষে আয়োজিত এই সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্দদ রফিকুল ইসলাম।

তিনি বলেন, “গভীর সাগরে মাছ ধরার সব ট্রলারকে তীরে ফিরিয়ে আনার জন্য ট্রলার মালিকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ২০টি ট্রলারসহ জেলে নিখোঁজের বিষয়টি জানতে পেরেছি।”

গেগুলোর সন্ধানে কোস্টগার্ড, স্থানীয় প্রশাসন ও মৎস্য সমিতিকে নিদের্শ দেওয়া হয়েছে বলে জানান জেলা প্রশাসক।

শুক্রবার ভোরের দিকে বঙ্গোসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড় ‘মিধিলিতে’ রূপ নেয়।

ঘূর্ণিঝড়টি উপকুলের আরও কাছে এগিয়ে আসায় সমুদ্র বন্দরগুলোকে বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

এর মধ্যে পায়রা ও মোংলা সমুদ্র বন্দরকে ৭ নম্বর এবং চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্র বন্দরকে ৬ নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আবহাওয়াবিদ মনোয়ার হোসেন জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড়টি আরও উত্তর উত্তর পূর্ব দিকে অগ্রসর ও ঘনীভূত হতে পারে। মিধিলির কারণে দুপুর থেকে বাতাসের গতি বাড়বে। আর সন্ধ্যা নাগাদ ঘূর্ণিঝড়টির কেন্দ্র বাংলাদেশ অতিক্রম শুরু করবে।