রাবিতেও স্বপ্নভঙ্গ সেই বেলায়েতের

৫৫ বছর বয়সে বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘ভর্তিযুদ্ধে’ নামার কারণে বহু মানুষ বেলায়েতকে যেমন শুভেচ্ছা জানান, তেমনি লেগে থাকার জন্য উৎসাহও দেন।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 August 2022, 02:35 PM
Updated : 3 August 2022, 02:35 PM

ভর্তির জন্য নির্ধারিত নম্বর না পাওয়ায় ঢাকা ও জাহাঙ্গীরনগরের পর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়েও স্বপ্নভঙ্গ হলো পঞ্চাশোর্ধ্ব বেলায়েত শেখের।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২১-২২ সেশনে ভর্তি পরীক্ষায় 'এ' ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষায় অকৃতকার্য হয়েছে তিনি।

মঙ্গলবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনস কমপ্লেক্সে ফল প্রকাশ করেন উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার। প্রকাশিত ফলাফল থেকে বেলায়েত শেখের অকৃতকার্যের বিষয়টি জানা গেছে।

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার কেওয়া পশ্চিম খণ্ড এলাকার পঞ্চাশোর্ধ বেলায়েত শেখ পেশায় একজন সংবাদকর্মী। এ বছর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে আবেদন করেন তিনি। সেজন্য প্রস্তুতিও নেন।

গত ১৯ মে নিজের ফেসবুক আইডিতে বেলায়েত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার প্রবেশপত্র প্রকাশ করলে তা নিয়ে দেশব্যাপী শোরগোল পড়ে যায়।

৫৫ বছর বয়সে ‘ভর্তিযুদ্ধে’ নামার কারণে বহু মানুষ তাকে যেমন শুভেচ্ছা জানান, তেমনি উৎসাহও দেন লেগে থাকার জন্য।

গত ১১ জুন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিয়ে বেলায়েত বলেছিলেন, ‘ইয়াংদের’ সঙ্গে পরীক্ষা তিনি ‘ভালোই’ দিয়েছেন। তবে ফলাফলটা শেষ পর্যন্ত ভালো হয়নি।

এরপর ৩১ জুলাই জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ও মানবিকী অনুষদ এবং বঙ্গবন্ধু তুলনামূলক সাহিত্য ও সংস্কৃতি ইনস্টিটিউটে ('সি' ইউনিট) ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় বসেন আলোচিত বেলায়েত শেখ। তবে সে পরীক্ষাও উত্তীর্ণ হতে পারেননি তিনি।

গত মঙ্গলবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে 'সি' ইউনিটের ফলাফল প্রকাশ করা হয়। চান্স না পাওয়ার বিষয়টি বেলায়েত নিজেই সাংবাদিকদের জানান।

তিনি বলেন, “জাবিতে আমি পরীক্ষা ভালো দিয়েছিলাম। তবুও চান্স হয়নি, হয়তো আমার ভাগ্য অনেক খারাপ। এখন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা দেওয়ার জন্য প্রস্তুতি চালিয়ে যাচ্ছি।”

২০২১-২২ সেশনে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার ‘এ’ ইউনিটে ৫৫ দশমিক ৩৪ শতাংশ শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছে। এর মধ্যে গ্রুপ-১ ‘এ’ পাসের হার ৪৮ দশমিক ৯০ শতাংশ ও সর্বোচ্চ নম্বর ৮২ দশমিক ৮০। গ্রুপ-২ এ পাসের হার ৫৯ দশমিক ৭৪ শতাংশ ও সর্বোচ্চ নম্বর ৯২ দশমিক ৭৫। গ্রুপ-৩ এ পাসের হার ৬২ দশমিক ৩৩ ও সর্বোচ্চ নম্বর ৯৩ দশমিক ১৫। গ্রুপ-৪ এ পাসের হার ৫০ দশমিক ৩৯ শতাংশ এবং সর্বোচ্চ নম্বর ৮৪ দশমিক ৬৫।

আরও পড়ুন:

Also Read: ঢাবিতে হয়নি, ‘আফসোস নেই’ পঞ্চাশোর্ধ্ব বেলায়েতের

Also Read: আমাকে ‘বুড়া’ ডেকেছিল: ঢাবির পঞ্চাশোর্ধ্ব ভর্তি পরীক্ষার্থী বেলায়েত

Also Read: ভর্তি পরীক্ষা দিতে এবার জাহাঙ্গীরনগরে পঞ্চাশোর্ধ্ব বেলায়েত

Also Read: ‘ইয়াংদের’ সঙ্গে পরীক্ষা ‘ভালোই’ দিয়েছেন পঞ্চাশোর্ধ্ব বেলায়েত

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক