‘নিয়োগপত্র, প্রশিক্ষণ, বেতন পাওয়ার পর জানলাম সব সাজানো’

ঘুষদাতা এখন টাকা ফেরত চেয়ে ভয়ভীতি পাচ্ছেন বলে অভিযোগ।

রংপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 10 August 2022, 11:42 AM
Updated : 10 August 2022, 11:42 AM

ভূমি মন্ত্রণালয়ে অফিস সহকারী পদে চাকরির জন্য ‘১৩ লাখ ঘুষ দিয়ে’ পেয়েছেন নিয়োগপত্র, যোগদান পত্র। ঢাকায় ‘পেয়েছেন নিয়মানুগ প্রশিক্ষণ। পেয়েছেন দুই মাসের বেতন।’

রংপুর শহরের দখিগঞ্জ এলাকার সোহাগ মিয়ার অভিযোগ, তিন মাস পরে তিনি জানতে পারেন, “সবই ছিল সাজানো। স্রেফ প্রতারণা।”

সোহাগ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “ভূমি মন্ত্রণালয়ে কম্পিউটার অপারেটর কাম অফিস সহকারী পদে চাকরির দেওয়ার কথা বলে ১৩ লাখ টাকা নেন আমার এলাকার আনোয়ার হোসেন নামে এক ব্যক্তি।

“টাকা নেওয়ার কিছুদিনের মধ্যে নিয়োগপত্র ও যোগদান পত্র দেন আনোয়ার। পরে আমাকে ঢাকায় একটি কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কেন্দ্র রেখে আনোয়ার বলেন, চাকরিতে যোগদান হয়েছে। এখানে ট্রেনিং করতে হবে। তিন মাস ট্রেনিং শেষে পোস্টিং হবে।”

সোহাগ বলেন, “ট্রেনিং চলাকালে আমাকে বেতন হিসেবে দুই মাসে ২২ হাজার টাকা দেন আনোয়ার। সেই সঙ্গে বেতন, বিল, ভ্রমণভাতাসহ সরকারি দপ্তরের বেশকিছু ফরমও দেন তিনি। পরে পোস্টিং না হওয়ায় জানতে পারি সব ছিল সাজানো।”

এখন টাকা ফেরত চাইলে আনোয়ার তাকে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখান বলে থানায় অভিযোগ করেছেন তিনি।

আনোয়ারের মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করে বন্ধ পাওয়া গেছে।

রংপুর কোতোয়ালি থানার এসআই মোহেরুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, “অভিযোগ পাওয়ার পর তদন্ত করছে পুলিশ। তবে সোহাগের পরিবার মামলা করতে আগ্রহী না। আনোয়ার কিছু টাকা তাদের ফেরত দিতে চাচ্ছেন বলে শুনেছি। তারা আপস-মীমাংসা করতে চান হয়ত।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক