কুষ্টিয়ায় ইজিবাইক চালক হত্যায় একজনের মৃত্যুদণ্ড, তিনজনের যাবজ্জীবন

২০১৪ সালের ১১ জুলাই ইজিবাইক চালক মাসুদ রানার রক্তাক্ত লাশ পাওয়া যায়।

কুষ্টিয়া প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 4 August 2022, 12:50 PM
Updated : 4 August 2022, 12:50 PM

কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় ইজিবাইক চালককে হত্যার দায়ে আট বছর পর একজনের মৃত্যুদণ্ড এবং তিনজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ অতিরিক্ত আদালত-১ এর বিচারক মো. তাজুল ইসলাম এই রায় ঘোষণা করেন বলে জানান রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি (পিপি) অনুপ কুমার নন্দী।

রায়ে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে সদর উপজেলার উদিবাড়ি কলোনিপাড়ার বাসিন্দা রবিউল ইসলামের ছেলে রাকিবুল ইসলাম রাজিবকে (২৭)।

যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্তরা হলেন- উদিবাড়ি সর্দারপাড়া গ্রামের বাসিন্দা মিজানুর রহমান মিলনের ছেলে মো. তন্ময় (২৫), উদিবাড়ি কলোনিপাড়ার বাসিন্দা বকুল হোসেনের ছেলে শিপলু (২৬) এবং কুষ্টিয়া শহরের টালিপাড়ার বাসিন্দা ইউনুস আলীর ছেলে শামীম হোসেন (২৫)।

এদের মধ্যে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত রাকিবুল ইসলাম রাজিব ও যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত শামীম হোসেন পলাতক।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, ২০১৪ সালের ১০ জুলাই রাত ৮টার দিকে সদর উপজেলার যুগিয়া দর্গাপাড়ার মাসুদ রানা (২৫) বাড়ি থেকে ইজিবাইক নিয়ে বের হয়ে রাতে আর ফিরেননি। পরদিন সকালে বাড়াদি ভাগার এলাকা থেকে তার রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় ১১ জুলাই তার বাবা ইয়ার আলী মালিথা (৫৫) বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে কুষ্টিয়া মডেল থানায় হত্যা মামলা করেন।

মামলার তদন্ত শেষে ২০১৫ সালের ৩০ নভেম্বর কুষ্টিয়া মডেল থানার এসআই তারেক ফয়সাল ইবনে আজিজ হত্যায় জড়িত চার আসামির বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

পিপি অনুপ কুমার নন্দী বলেন, যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্তদের প্রত্যেককে ২৫ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক