চল্লিশ জনের ঝটিকা মিছিলে ভোট রুখে দেওয়ার হুঁশিয়ারি রিজভীর

আগের দিন রিজভী ছিলেন রাজশাহীতে, অবরোধের মধ্যেই তিনি চলে এসেছেন ঢাকায়।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 Dec 2023, 06:18 AM
Updated : 7 Dec 2023, 06:18 AM

বিএনপির ডাকা অবরোধের সকালে ঢাকার শাহজাহানপুরে বৃষ্টির মধ্যে ঝটিকা মিছিল করে সরকারের ‘পাতানো নির্বাচন’ যে কোনো মূল্যে রুখে দেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন রুহুল কবির রিজভী।

বৃহস্পতিবার সকালে ওই মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব বলেন, “সরকার তার বংশবদ নির্বাচন কমিশন ও সাজানোর প্রশাসনকে দিয়ে যে একতরফা নির্বাচনের নাটক মঞ্চস্থ করছে, এটা দেশের মানুষ মানে না। আন্তর্জাতিক বিশ্বও ওদের এই সাজানো নাটক দেখছেন। “আমি বলতে চাই, অবৈধ তফসিল জনগণ মানে না। তোমাদের পাতানো নির্বাচন যে কোনো মূল্যে জনগণ রুখে দেবে।”

সকাল ৭টায় শাহজাহানপুর মোড়ে রিজভী যখন বক্তব্য দিচ্ছিলেন, তার সঙ্গে ছিলেন জনা চল্লিশেক নেতাকর্মী। বৃষ্টির মধ্যে তাদের মিছিল পীর জঙ্গি মাজারের কাছাকাছি গিয়ে শেষ হয়। ‘অবৈধ তফসিল মানি না, মানব না’, ‘আজকের অবরোধ সফল হোক সফল হোক’ ইত্যাদি শ্লোগান দেওয়া হয় মিছিল থেকে। ৪-৫ মিনিট মিছিল করে আত্মগোপনে চলে যান রিজভী।

সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে তিনি বলেন, “আওয়ামী লীগ জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। তারা এখন এতটাই দেউলিয়া হয়ে গেছে যে, আজকে তাদের এরকম একটা নির্বাচন নির্বাচন খেলা করতে হচ্ছে। জনগণের হাজার কোটি টাকা অপচয় করে এরকম নির্বাচন করতে যাচ্ছে। এভাবে জনগণের অর্থ অপচয়ের জন্য তাদের জনগণের কাছে জবাবদিহি করতে হবে।”

নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল প্রত্যাখ্যান করেছে বিএনপি। দফায় দফায় হরতাল-অবরোধের মত কর্মসূচি দিচ্ছে তারা। বুধবার ভোর ৬টা থেকে শুরু হয়েছে তাদের দশম দফার ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ, যা শেষ হবে শুক্রবার ভোর ৬টায়।

গত ২৮ অক্টোবরের সংঘর্ষের পর থেকে বিএনপির অধিকাংশ জ্যেষ্ঠ নেতা হয় কারাগারে, নয়ত আত্মগোপনে রয়েছেন। রিজভীই নিয়মিত ভার্চুয়াল ব্রিফিংয়ে এসে দলের কর্মসূচি দিচ্ছেন। 

চলমান হরতাল-অবরোধের মধ্যে রিজভীকে বুধবার প্রথমবারের মত ঢাকার বাইরে এক ঝটিকা মিছিলের নেতৃত্ব দিতে দেখা যায়। রাজশাহীর তেরোখাদিয়া স্টেডিয়ামের সামনের সড়কে ওই মিছিল শেষে তিনি আত্মগোপনে চলে গিয়েছিলেন। রাজপথ, রেলপথ, নৌপথে ‘সর্বাত্মক’ অবরোধের মধ্যেই ২৪ ঘণ্টার মাথায় তিনি ফের রাজধানীতে আবির্ভূত হন।  

শাহজাহানপুরের সড়কে ঝটিকা মিছিল শেষে রিজভী চলে যাওয়ার পরে নেতা-কর্মীরা রাস্তায় একটি পুরনো টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে শ্লোগান দিতে থাকেন।

বিএনপির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, মানিকগঞ্জ বিএনপির সহসভাপতি খোন্দকার আকবর হোসেন বাবলু, যুব দলের কামরুজ্জামান জুয়েল, মহানগর বিএনপির নাদিয়া পাঠান পাপন, নিলুফার ইয়াসমীন নিলু, ছাত্রদলের সাবেক সহসভাপতি তারেকুজ্জামান তারেক, জসিম শিকদার রানা অংশ নেন মিছিলে।