নয়া পল্টনে ব্যাপক জনসমাগম করতে চায় বিএনপি

আমানউল্লাহ আমান বলেছেন, “স্মরণকালের লোকসমাগম ঘটবে বৃহস্পতিবারের সমাবেশে।”

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 10 August 2022, 12:41 PM
Updated : 10 August 2022, 12:41 PM

সরকার পতনের ডাক দেওয়া বিএনপি বৃহস্পতিবার ঢাকার নয়া পল্টনের সমাবেশে ব্যাপক জনসমাগমের প্রস্তুতি নিয়েছে।

জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি, দ্রব্যমূল্যের ঊধর্বগতি, সরকারের দমনপীড়নের প্রতিবাদে দলটির ডাকা দুই দিনের কেন্দ্রীয় কর্মসূচির মধ্যে প্রথমে এই সমাবেশ হচ্ছে ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ বিএনপির উদ্যোগে।

একই দাবিতে শুক্রবার হবে সারা দেশে মহানগর ও জেলা পর্যায়ে বিক্ষোভ সমাবেশ।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণের আহ্বায়ক আবদুস সালাম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “ঢাকা শহরের প্রতিটি ওয়ার্ড ও থানা থেকে দলের সর্বস্তরের নেতা-কর্মীরা এই সমাবেশে যোগ দেবে। শুধু তাই নয়, ঢাকাবাসীরা যারা প্রত্যক্ষভাবে রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত নন, তারাও এই সমাবেশে আসবেন বলে আমরা ধারণা করছি। এই সমাবেশে ব্যাপক লোকসমাগম ঘটবে।”

মহানগর উত্তরের আহ্বায়ক আমানউল্লাহ আমান বলেন, “স্মরণকালের লোকসমাগম ঘটবে বৃহস্পতিবারের সমাবেশে। সেভাবে আমরা সব প্রস্তুতি নিয়েছি। ঢাকা মহানগর ও অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীরা যেভাবে এই সমাবেশে আসবে তাতে দুপুরের মধ্যেই এই এলাকা জনসমুদ্রে পরিণত হবে।”

তিনি বলেন, “আমাদের এই সমাবেশ হবে শান্তিপূর্ণ সমাবেশ। ঐতিহাসিক এই সমাবেশের মাধ্যমে আমরা সরকারের কাছে বার্তা দেব-অনতিবিলম্বে ক্ষমতা ছেড়ে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করুন।”

সমাবেশের জন্য বুধবার দুপুরে মঞ্চ নির্মাণের জন্য মাপ নিয়েছে সংশ্লিষ্ট শ্রমিকরা। বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এই মঞ্চ নির্মাণ করা হবে রাতে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ২টায় এই সমাবেশের কার্য্ক্রম শুরু হবে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখবেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এতে সভাপতিত্ব করবেন মহানগর দক্ষিণের আহ্বায়ক আবদুস সালাম।

সর্বশেষ ২০২১ সালের ৩০ নভেম্বর বিএনপির আয়োজনে নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জনসমাবেশ হয়েছিল। দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর দাবিতে সেই কর্মসূচি ছিল।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক