আমিত্বের অলিম্পিয়াডে নেমেছি সমষ্টি ভুলে

‘আমি’ আর ‘আমিত্ব’ মানুষের এই বোধ সহজাত, স্বতঃস্ফূর্ত, সুন্দর! মনে থাকে না ব্যক্তি বা আমি মহাবিশ্বের ক্ষুদ্র অংশ মাত্র। অংশের পূর্ণতা পায় সমগ্রতায়।

এম এম খালেকুজ্জামানএম এম খালেকুজ্জামান
Published : 26 Sept 2022, 12:14 PM
Updated : 26 Sept 2022, 12:14 PM

বড় না হলেও বড় করে দেখাতে হয়। বর্তমানে পৃথিবীর সর্ব্বোচ্চ ভবন বুর্জ আল খলিফা ভবনটিও এই পর্যায়ভুক্ত। বুর্জ আল খলিফার উচ্চতা দুই হাজার ৭১৯ ফুট। এর মধ্যে দুই হাজার ৬০ ফুট পর্যন্ত কার্যকারিতা বিবেচনায় প্রকৃত ভবন। বাকিটা ভ্যানিটি হাইট বা সৌন্দর্য বর্ধনকারী উচ্চতা যার তালিকায় স্থান দেয়া ছাড়া অন্য ইউটিলিটি নাই। এই ভ্যানিটি হাইট বাদ দিলে এটি হবে ইউরোপের এগারোতম উঁচু ভবনের সমান। এই মেঘদল পার করা ভবনের আর্কিটেক্ট আর এর বিনিয়োগকারীগণ জানেন অপ্রয়োজনীয় ওই উচ্চতা তাদের সুউচ্চ দালান আর অভ্রভেদী ইমেজ নিশ্চিত করতে পারে, আসলে হয়েছেও তাই। তেমনি আমাদের অনেক মানুষ তার প্রকৃত অবস্থা যাই হোক তার চাইতে ফুলিয়ে ফাঁপিয়ে জাহির করার প্রবণতা অসুখের পর্যায়ে চলে গেছে। এক প্রতিকারহীন প্যাথলজিক্যাল নার্সিসিজমে আক্রান্ত। যেন সবাইকে ছাড়িয়ে ছাপিয়ে এগিয়ে থাকাই সব।

গত শতকের ষাট-সত্তরের দশকে প্রথাগত তরুণদের স্বপ্ন ছিল সোশ্যাল আইকন হওয়া, প্রথাবিরোধী কেউ কেউ বিপ্লবী চে গুয়েভারাকে দেখে বিপ্লবের পথে হেঁটেছেন। এরপর আশি-নব্বই দশকগুলোতে তরুণরা চাইতেন সেলিব্রিটি হতে আর এখন তরুণ হওয়ার আগেই কৈশোর থেকেই আইকন বা সেলিব্রিটি নয় হতে চায় ‘ভাইরাল’। কেন্দ্রাভিমুখ বদলেছে সময়ের সাথে সাথে।

The Center is at the center of the totality, and yet, since the center does not belong to the totality (is not part of the totality), the totality has its center elsewhere. The center is not the center. [Jacques Derrida, Writing and Difference, trans. Alan Bass, London: Routledge, p 278] সাহিত্যের এই কেন্দ্র ও কেন্দ্রহীনতার উত্তরহীন বাস্তবতা আসলে আমাদের এই সময়ের সকরুণ জীবন কথা।

একজন নৃতাত্ত্বিক গবেষক আফ্রিকার গ্রামে একটি ক্ষেত্রসমীক্ষার অংশ হিসেবে একটি গোত্রের শিশুদের নিয়ে একটি পরীক্ষামূলক খেলা আয়োজন করেন। তিনি সুন্দর একটি ঝুড়িতে খুব সুস্বাদু কিছু ফল রেখে ঘোষণা দিলেন, যে সবার আগে দৌড়ে ঝুড়িটি ছুঁতে পারবে সে ফলসহ পুরো ঝুড়িটি পাবে। দৌড় শুরুর হুইসেল শুনেও দেখা গেল শিশুদের কোনো তাড়া নেই তারা হাত ধরাধরি করে হেঁটে গিয়ে সবাই মিলে ফলের ঝুড়িটা ছুঁলো। একই সাথে।

আশ্চর্য হয়ে গবেষক জিজ্ঞেস করলেন কেন এভাবে একসাথে ওরা ঝুড়িটা ছুঁলো? শিশুরা আরও আশ্চর্য হয়ে উত্তর দিল, উবুন্তু, অর্থ আমরা একজন খুশি হবো কীভাবে, যদি একজন ছোঁয় তো বাকিদের মন খারাপ হবে। তাদের ভাষায় উবুন্তুর মানে সবাই আছে বলেই আমি আছি। অথচ অন্ধকারাচ্ছন্ন মহাদেশ বলে অহেতুক তাচ্ছিল্যে আফ্রিকাকে পরিচিত করত আমি সর্বস্ব পশ্চিমারা। আফ্রিকার এই গল্পের শেষে গবেষক মন্তব্য করেন, শুধু ব্যক্তিস্বার্থে পরিচালিত বাজার অর্থনীতি যে সামাজিক কল্যাণ নিশ্চিত করে, Adam Smith-এর এ তত্ত্ব এখানে কাজ করবে না।

অমলকান্তি রোদ্দুর হতে চেয়েছিল। অমলকান্তি ভাইরাল হতে না চেয়েও ভাইরাল হয়েছিল রোদ্দুর হতে চাওয়াতে। এই সময় হলে দুর্জনেরা বলতেন, আসলে সে রোদ্দুর না ভাইরাল হতে চেয়েছিল। আসলে কে যে ভাইরাল হবে। অমলকান্তি না নীরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী? সবাই এখন কয়েক সেকেন্ডেই ইতিহাসের রেফারেন্স হতে চান ত্রিশ সেকেন্ডের সব দৃশ্য ছড়িয়ে দিয়ে। এই চাওয়াতে আমিত্বই সব।

‘আমি’ আর ‘আমিত্ব’ মানুষের এই বোধ সহজাত, স্বতঃস্ফূর্ত, সুন্দর! মনে থাকে না ব্যক্তি বা আমি মহাবিশ্বের ক্ষুদ্র অংশ মাত্র। অংশের পূর্ণতা পায় সমগ্রতায়। ‘The whole is more than the sum of its parts.’ ব্যক্তি বা আমি-কে মহাবিশ্বের অসীমে মিশিয়ে নেয়াতেই ব্যক্তির স্বার্থকতা। কিন্তু আমরা আমিকে সবার কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন করে স্থাপন করতে চাই এককের বেদীতে।

আমিময়তা আমাদের নিয়ে যাচ্ছে শেষের দিকে। আমরা কি আসলে নিজেকে জানি? এই জানা নির্ভর করে জ্ঞানের ওপর। জ্ঞান ও সত্য হচ্ছে আত্মার সবচেয়ে উত্তম পরিচর্যাকারী। জ্ঞান লোপ পায় তাই ঔদ্ধত্যকে ভাবা হয় আভিজাত্য বলে, অরাজকতার অন্য নাম স্বাধীনতা আর নির্দয়তাকে বলে বিক্রম। এবং এই সব অর্জনে আমরা যেন অলিম্পিয়াডে নেমেছি সমষ্টি ভুলে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক