প্রতিবন্ধী ও বয়স্করা ’ওয়াশ’ সুবিধা কতটা পান, জরিপের উদ্যোগ

২০২২ সালের নভেম্বর থেকে ২০২৩ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দেশের আটটি প্রশাসনিক বিভাগে জনসংখ্যাভিত্তিক এই সমীক্ষা পরিচালিত হবে।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 14 Sept 2022, 04:43 AM
Updated : 14 Sept 2022, 04:43 AM

দেশে প্রতিবন্ধী ও বয়স্ক ব্যক্তিরা নিরাপদ পানি, পয়ঃনিষ্কাশন সুবিধা এবং স্বাস্থ্যসেবা (ডব্লিউএএসএইচ বা ওয়াশ) পান কি না তা নিয়ে একটি যৌথ জরিপ পরিচালনা করবে আইসিডিডিআর,বি এবং বাংলাদেশ সোসাইটি ফর দ্য চেইঞ্জ অ্যান্ড অ্যাডভোকেসি (বি-স্ক্যান)।

২০২২ সালের নভেম্বর থেকে ২০২৩ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দেশের আটটি প্রশাসনিক বিভাগে জনসংখ্যাভিত্তিক এই সমীক্ষা পরিচালিত হবে।

 আইসিডিডিআর,বির অ্যাসোসিয়েট সায়েন্টিস্ট মাহবুব-উল আলম এ গবেষণার প্রধান গবেষক। প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা বি-স্ক্যান বাংলাদেশে এই গবেষণা বাস্তবায়নে কাজ করবে।

 মঙ্গলবার বি-স্ক্যানের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, রাজধানীর গুলশানে লেক ক্যাসেল হোটেলে এই কর্মসূচির উদ্ভোধনী সভা হয়। প্রতিবন্ধী ও বয়স্ক ব্যক্তিরা যে অধিকাংশ ক্ষেত্রে সামাজিক ও অর্থনৈতিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত হন, সে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয় সেখানে।

এর ফলে নিরাপদ পানি, পয়ঃনিষ্কাশন সুবিধা ও স্বাস্থ্যসেবা পাওয়ার সুযোগ সীমিত হয়ে ওঠে তাদের জন্য। কোভিড-১৯ মহামারী তাদের জন্য পরিস্থিতিকে আরও ঝুঁকিপূর্ণ করে তুলেছে।

কিন্তু এসব নিয়ে গবেষণা হয়েছে খুব কম। ফলে সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে যথাযথ তথ্য পাওয়া কঠিন হয়। এসব বিষয় মাথায় রেখেই নতুন এ গবেষণার পরিকল্পনা করার কথা জানিয়েছে বি-স্ক্যান।

সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু সভায় বলেন, ”আমরা সব সময় এ ধরনের গবেষণাকে উৎসাহ দিই। আমরা মাঠ পর্যায়ে যত কাজ করব, ততটাই আমরা প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের বাস্তব অবস্থা সম্পর্কে ধারণা পাব।”

সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (প্রতিষ্ঠান ও প্রতিবন্ধীতা) শিবানী ভট্টাচার্য্য বলেন, “প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা বিভিন্ন চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন।তাদের অবস্থা বোঝার জন্য এ ধরনের গবেষণা প্রয়োজন। আমি আশা করি এই গবেষণার ফলাফল আমাদেরকে বাংলাদেশে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জীবনের মানোন্নয়ন করতে সাহায্য করবে।”

 এই গবেষণায় স্ক্রিনিংয়ের মাধ্যমে প্রতিবন্ধী ব্যক্তি শনাক্ত করা হবে। পরে ৬৫৬ জন প্রতিবন্ধী ব্যক্তি এবং একই লিঙ্গ ও বয়সের সমান সংখ্যক অপ্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে নিয়ে জরিপ করা হবে।

গবেষণায় অংশ নেওয়া ব্যক্তিদের ব্যবহার করা ওয়াশ ও এমএইচএম (মেন্সট্রুয়াল হাইজিন ম্যানেজমেন্ট) পরিষেবার স্থান নিরীক্ষা করে দেখা হবে।

 এ গবেষণায় আর্থিক ও প্রযুক্তিগত সহযোগিতায় রয়েছে লন্ডন স্কুল অফ হাইজিন অ্যান্ড ট্রপিক্যাল মেডিসিন (এলএসএইচটিএম) এবং ফরেন কমনওয়েলথ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অফিস (এফসিডিও)।

 বাংলাদেশ ছাড়াও কেনিয়া, ইন্দোনেশিয়া, জাম্বিয়া, সিয়েরা লিওনেও এ জরিপ চালনা করা হবে।

 আইসিডিডিআর,বির ইনফেকশাস ডিজিজেস বিভাগের এরভায়রনমেন্টাল ইন্টারভেনশনস ইউনিটের প্রধান প্রকল্প সমন্বয়ক ডা. মো. মাহবুবুর রহমান, বি-স্ক্যানের সাধারণ সদস্য মো. জহিরুল ইসলাম, আইসিডিডিআর’বির সিনিয়র রিসার্চ অফিসার দেওয়ান মোহাম্মদ শোয়াইব, বি-স্ক্যানের সাধারণ সম্পাদক সালমা মাহবুব সভায় উপস্থিত ছিলেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক