সাতচল্লিশে এসে অন্য সময়ের আগামনী বার্তা সুস্মিতার

জীবনের ৪৭ বছর পেরিয়ে এলেন এই বলিউড তারকা।

গ্লিটজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 19 Nov 2022, 09:17 AM
Updated : 19 Nov 2022, 09:17 AM

কিছুদিন আগেও তার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে সরগম ছিল নেটদুনিয়া, সংবাদমাধ্যম আর ভক্ত অনুরাগীরা। যে বিষয়টি নিয়ে গুঞ্জন উঠেছিল, তা যদি সত্যিই হয়ে যেত তাহলে এ দিনে হয়ত ইনস্টাগ্রামে একার নয়, দেখ যেত যুগলের। তা হয়নি। জীবনের ৪৭তম অধ্যায়ে এসে সবাইকে ভালোবাসা জানিয়ে সুস্মিতা সেন জানালেন, জীবনের অবিশ্বাস্য সময়ের দিকে এগিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

এনডিটিভি জানায়, ১৮ বছর বয়সে বিশ্ব সুন্দরীর মুকুট মাথায় নেওয়া এই অভিনেত্রী জন্মদিনের দিন ইনস্টাগ্রামে বিশেষ পোস্টে লিখেছেন. “ ৪৭ অবশেষে!!! একটি সংখ্যা যা আমাকে ১৩ বছর ধরে অনুসরণ করছে…।

বন্ধুদের প্রতি ভালোবাসা জানিয়ে পোস্ট শেষ করেছেন সুস্মিতা।

 তার পোস্টে ভগ্নীপতি অভিনেতা চারু আসোপাসহ বন্ধু, কাছের মানুষ ও ভক্তরা শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

১৯৭৫ সালে হায়দ্রাবাদে বাঙালি পরিবারে  জন্ম নেওয়া সুস্মিতা মিস ইউনিভার্সের খেতাব জিতেছিলেন ১৯৯৪ সালে। এরপর ৯৬ সালে ‘দস্তক’ সিনেমা দিয়ে বলিউডে পা রাখেন। তারপর থেকে অভিনয়েই রয়েছেন। এরপরের বছরই তামিল সিনেমা ‘রাতচাগানে’ তাকে দেখা যায়।

দুবছর বিরতি দিয়ে কমেডি সিনেমা ‘বিবি নাম্বার ওয়ান’ করে ফিল্ময়েয়ারে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রীর পুরস্কারও পান সুস্মিতা। ১৯৯৯ সালে ‘বিবি নাম্বার ওয়ান’ সিনেমাটি ছিল বক্স অফিসে সর্বোচ্চ আয়করী ছবি। একই বছরে ‘সির্ফ তুম’ সিনেমা করে ফিল্মফেয়ারে মনোনয় পান। এরপর তাকে দেখা গেছে ২০০০ সালে ‘ফিজা’ সিনেমায় ‘মেহবুব মেরে’ গানে।

এসব ছাড়াও ‘জোর’, ‘নো প্রব্লেম’, ‘যিন্দাগি বক্স’সহ ২৫টির বেশি সিনেমা করেছেন সুস্মিতা।

তবে বেশ কিছুদিন ধরে তবে তার অভিনয়জীবন প্রায় ডুবতে বসেছিল ভালো কাজের অভাবে। সেই ‘ডুবুডুবু’ ক্যারিয়ারকে আবার তীরে ভিড়িয়েছে ওয়েব সিরিজ ‘আরিয়া’।

ডিজনি প্লাস হটস্টারে মুক্তি পাওয়া সিরিজটি সুস্মিতাকে আবারো দর্শক-সমালোচকদের মাঝে ফিরিয়ে আসে। আরিয়ার প্রথম সিজনের পর দ্বিতীয়টি করে সুস্মিতা শুধু তার জনপ্রিয়তাই ধরে রাখেননি, মনোনীত হন এমি পুরস্কারের জন্যও।

তবে এসবের মাঝে জড়িয়ে যায় আইপিএলের সাবেক চেয়ারম্যান ললিত মোদীর সঙ্গে প্রেম ও বিয়ে নিয়ে নানা গুঞ্জন।

 সূত্রপাত করেছিলেন লোলিত মোদি নিজেই। পরপর কিছু ছবি পোস্ট করে আর ব্যক্তিগত কথাকে অন্দরের বাইরে টেনে এনে। সাবেক মিস ইউনিভার্স সুস্মিতা সেনের সঙ্গে টুইটারে নিজের ছবি পোস্ট করে নতুন জীবন শুরুর ঘোষণা দেন আইপিএলের সাবেক চেয়ারম্যান। সেইসব পোস্টে সুস্মিতাকে ‘বেটার হাফ’ বলেও উল্লেখ করেন। সেই থেকে  নেটপাড়া, পত্রিকা আর অনলাইনে সুস্মিতা-লোলিতের ভালোবাসায় বুঁদ হয়ে থাকা নানা বয়সের রঙিন ছবিতে উত্তাল হয়ে হয়ে পড়ে।

এরপর অবশ্য নীরবতা ভেঙে সাবেক বিশ্বসুন্দরী জানান, বিয়েতে নয়, জীবন আর কাজে ফিরছেন তিনি।

গত ১৪ জুলাইয়ের পর থেকে আর কোন পোস্টে দেখা যায়নি ললিত-সুস্মিতাকে। বরং ঘরে বাইরে আরও বেশি করে কাছাকাছি দেখা গেছে কাশ্মীরি মডেল রোহম্যান শলকে।

বছর বছর তিনেক আগে শলের সঙ্গে প্রেমের খবর নিয়ে শিরোনামে এসেছিলেন সুস্মিতা। মাঝে তাদের বিচ্ছেদেরও খবর উড়েছিল।

তবে ‘প্রেম-বিয়ে’ নিয়ে আলোচনা পেরিয়ে বলিউড নায়িকা সুস্মিতা সেন পর্দায় ফিরছেন ভিন্নধর্মী চরিত্রে।

সাবেক এই বিশ্বসুন্দরী তার নতুন ওয়েব সিরিজ ‘তালি’র আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়ে ফার্স্ট লুকও প্রকাশ করেন ইনস্টাগ্রামে।

লাল-সবুজ শাড়িতে কপালে মেরুন রঙের টিপে সুস্মিতার দুই হাত তালি বাজানোর ভঙ্গিমা দেখে চোখ আটকে যায়। সিরিজে তিনি গৌরী সাওয়ান্ত, একজন রূপান্তরকামী সমাজসেবী।

তালির শুটিং চলছে জানালেও এর মুক্তির তারিখ জানাননি এই নায়িকা।

অভিনয়ের চাইতেও ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে বরাবরই চর্চিত সুস্মিতা। ক্রিকেটার ওয়াসিম আকরাম, বলিউড অভিনেতা রণদ্বীপ হুড়া, ব্যবসায়ী অনিল আম্বানি, চলচ্চিত্র নির্মাতা মানব মেনন ছাড়াও আরও কয়েক ব্যবসায়ী বা দাপুটে ব্যক্তিত্বের সঙ্গে সুস্মিতার প্রেমের খবর গুঞ্জন নিয়ে বহুবার মেতেছেন তার গুণগ্রাহীরা।

বলিউডে ‘নিয়ম না মানা’ হিসেবে খ্যাত এই নায়িকা বিয়ে না করে ২০০০ সালে কন্যাসন্তান রেনিকে দত্তক নিয়ে সবাইকে চমকে দেন। পরে ২০১০ সালে তিনি আলিশাকে দত্তক নেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক