এসকে সুর ও তার স্ত্রীর ব্যাংক অ্যাকাউন্ট অবরুদ্ধ

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর এসকে সুর চৌধুরী ও তার স্ত্রী সুপর্ণা সুর চৌধুরীর সব ব্যাংক অ্যাকাউন্ট অবরুদ্ধের (ফ্রিজ) নির্দেশনা দিয়েছে এনিবআর।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 July 2021, 12:25 PM
Updated : 7 July 2021, 12:32 PM

বুধবার জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সেন্ট্রাল ইন্টেলিজেন্স সেল (সিআইসি) থেকে দেশের সব ব্যাংকে এই চিঠি পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন এই সেলের মহাপরিচালক মো. আলমগীর হোসেন।

এতে তাৎক্ষণিকভাবে চিঠির নির্দেশনা কার্যকর করে তাদের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত লেনদেন স্থগিত রাখতে বলা হয়েছে।

এর আগে পি কে হালদারের কেলেঙ্কারিতে নাম আসায় গত ২৩ ফেব্রুয়ারি সব ব্যাংকে চিঠি পাঠিয়ে ২০১৩ সালের জুলাই মাস থেকে সাবেক এই ডেপুটি গভর্নরের সব ব্যাংক অ্যাকাউন্ট এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানে লেনদেনের তথ্য চেয়েছিল এনবিআর।

তখন কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বর্তমান নির্বাহী পরিচালক মো. শাহ আলমের লেনদেনের তথ্যও চেয়েছিল রাজস্ব বোর্ড।

বুধবার এস কে সুরের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট অবরুদ্ধের বিষয়ে জানতে চাইলে সিআইসি এর মহাপরিচালক আলমগীর হোসেন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আমরা তাদের দুর্নীতির তদন্ত করছি না। কারণ দুর্নীতি খোঁজা আমাদের দায়িত্ব নয়। এটার জন্য দুর্নীতি দমন কমিশন আছে।

“আমরা তাদের বিরুদ্ধে কর নিয়ে কোনও অনিয়ম আছে কিনা সেই তদন্ত করছি।“

তিনি বলেন, “আমরা তদন্তের অংশ হিসেবে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ করেছি।

“তার (এসকে সুর চৌধুরী) বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ আছে আমরা তদন্ত করছি।”

আলমগীর হোসেন বলেন, “আমাদের মূল অভিযোগ কর ফাঁকি। তদন্তে যদি করফাঁকির প্রমাণ পাই, তাহলে আমরা সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব। আর যদি তদন্তে কোনও অনিয়ম ধরা না পড়ে বা তিনি যদি ফাঁকিকৃত কর দিয়ে দেন তাহলে আমাদের এই নির্দেশনা প্রত্যাহার করেও নিতে পারি।“

আবার তার বিরুদ্ধে মামলাও হতে পারে জানিয়ে মহাপরিচালক বলেন, “এটা আমাদের তদন্তের একটি অংশ। এর অংশ হিসেবে আমরা তাদের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ করার নির্দেশনা দিয়েছি।”

এর আগে আদালতের পর্যবেক্ষণে পিপলস লিজিং ফাইন্যান্স কেলেংকারির ঘটনায় জড়িত থাকায় নাম আসার পরিপ্রেক্ষিতে গত ১৭ ফেব্রুয়ারি ডেপুটি গভর্নর এ কে এম সাজেদুর রহমান খানকে প্রধান করে কমিটি গঠন করে বাংলাদেশ ব্যাংক।

তখন সংশ্লিষ্ট একটি মামলায় আদালতে পি কে হালদারের অনিয়মের সহযোগী হিসেবে আটক ইন্টারন্যাশনাল লিজিংয়ের সাবেক এমডি রাশেদুল হক ও সাবেক চেয়ারম্যান উজ্জল কুমার নন্দি আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ করেন।

রাশেদুল হক জবানবন্দিতে বলেন, পি কে হালদারের ক্ষমতার অন্যতম উৎস ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের তৎকালীন ডেপুটি গভর্নর এস কে সুর চৌধুরী।

আরও পড়ুন

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক