চট্টগ্রামে স্বাস্থ্যের অভিযান: এক ডায়গনস্টিক সেন্টার বন্ধ, তিনটিকে জরিমানা

পাঁচলাইশ এলাকার সিআরএল বায়োলজিক্যাল স্যাম্পল কালেকশন ও সার্পোট সেন্টার বন্ধ করে দেওয়া হয় বৈধ কাগজপত্র না থাকার কারণে।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 Feb 2024, 04:22 PM
Updated : 27 Feb 2024, 04:22 PM

চট্টগ্রামে আটটি ডায়গনস্টিক সেন্টার ও হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে একটি বন্ধ এবং তিনটিকে এক লাখ ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার চট্টগ্রামের বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. মো. মহিউদ্দের নেতৃত্বে, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহায়তায় পাঁচলাইশ এলাকার চারটি এবং জেলার সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইলিয়াছ চৌধুরীর নেতৃত্বে জামাল খান এলাকায় চারটি প্রতিষ্ঠানে এ অভিযান চালানো হয়।

ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মো. ওয়াজেদ চৌধুরী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের নেতৃত্বে পরিচালিত অভিযানে নগরীর পাঁচলাইশ এলাকার সিআরএল বায়োলজিক্যাল স্যাম্পল কালেকশন ও সার্পোট সেন্টার বন্ধ করে দেওয়া হয় বৈধ কাগজপত্র না থাকার কারণে।

এছাড়া মেয়াদোত্তীর্ণ কেমিকেল রাখায় এবং অনুমোদন ছাড়া এন্ডোসকপি কার্যক্রম পরিচালনা করায় পাঁচলাইশের জেনেটিক ল্যাবকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

রাসায়নিকের বোতলে লেখা মেয়াদে ঘষামাজা থাকায় পাঁচলাইশ এলাকার ঈগলস আই ডায়গনস্টিক সেন্টারকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। অনিয়মের অভিযোগে একই প্রতিষ্ঠানের ইসিজি বিভাগের কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়।

এছাড়া মেয়াদোত্তীর্ণ কেমিকেল রাখায় মেডিহেলথ ডায়গনস্টিক সেন্টারকে করা হয় ৫০ হাজার টাকা জরিমানা।    

জেলা সিভিল সার্জন ডা. ইলিয়াছ চৌধুরীর নেতৃত্বে নগরীর জামালখানের ল্যাব এক্সপার্টস, সেনসিভ, ইনোভা হাসপাতাল এবং ওআরনিজাম রোডের মেট্রোপলিটন হাসপাতাল অ্যান্ড ডায়গনস্টিক সেন্টারে অভিযান চালানো হয়।

দৃশ্যমান স্থানে লাইসেন্স না রাখা, মূল্য তালিকা না ঝোলানো, অপারেশন থিয়েটারে নোংরা পরিবেশ, ডিপ্লোমা ডিগ্রিধারী ব্যক্তির বদলে সহকারী দিয়ে রক্তের নমুনা সংগ্রহ করাসহ বিভিন্ন অভিযোগে প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছ থেকে কৈফিয়ত তলব করা হয়েছে।