খাল-নালায় ময়লা ফেললে জরিমানা করা হবে: মেয়র রেজাউল

এ নিয়ে স্থানীয়দের মাঝে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করেছেন তিনি।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 Feb 2024, 10:45 AM
Updated : 1 Feb 2024, 10:45 AM

চট্টগ্রাম নগরীর ব্যবসা প্রতিষ্ঠান কিংবা আবাসিক ভবন থেকে খাল-নালায় আবর্জনা ফেলা হলে জরিমানা করা হবে বলে সতর্ক করেছেন সিটি মেয়র এম রেজাউল করিম চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার সকালে নগরীর বহদ্দারহাট এলাকায় মাসব্যাপী খালের মাটি উত্তোলন কার্যক্রম উদ্বোধনের সময় তিনি বলেন, চলতি মাস থেকেই জরিমানা করা শুরু হবে।

নগরীর খাল-নালায় ময়লা ফেলে এমন ব্যক্তিদের চিহ্নিত করতে ইতিমধ্যে সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্ন বিভাগের কিছু কর্মচারীকে দায়িত্বও দেওয়া হয়েছে বলে জানান মেয়র রেজাউল।

তিনি বলেন, “জলাবদ্ধতা ঠেকাতে আমরা শুষ্ক মৌসুমে খাল-নালা থেকে মাটি তুলছি। সিডিএকে চাপ দিচ্ছি যাতে জলাবদ্ধতা নিরসন প্রকল্পের আওতায় থাকা খালগুলোর মাটি তোলা হয়।

“পরিবর্তিত জলবায়ুর কারণে নগরীতে পানি জমলেও দ্রুততম সময়ে সে পানি যাতে অপসারিত হয়, সেটি আমাদের লক্ষ্য। তবে কোনো পদক্ষেপই সফল হবে না, যদি না জনগণ খাল নালায় প্লাস্টিক-পলিথিন ফেলা বন্ধ না করেন।”

এদিন স্থানীয়দের মাঝে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করার কথা জানিয়ে মেয়র রেজাউল বলেন, “আমরা লিফলেট বিতরণ করেছি, পত্রিকায় গণবিজ্ঞপ্তি দিচ্ছি৷ আমরা চাচ্ছি জনগণকে সচেতন করতে, সম্পৃক্ত করতে। এ মাস থেকে আমরা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও আবাসিক ভবনগুলো যত্রতত্র বর্জ্য ছড়ালে জরিমানা করা শুরু করব।

“সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্ন বিভাগের কিছু কর্মচারীকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে সিভিল ড্রেসে যারা খাল-নালায় ময়লা ফেলে, তাদের চিহ্নিত করতে। এরপর আমাদের ম্যাজিস্ট্রেটরা দোষীদের বিরুদ্ধে জরিমানাসহ আইনানুগ ব্যবস্থা নিবে।”

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ওয়ার্ড কাউন্সিলর এম আশরাফুল আলম ও এসরারুল হক, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা কমান্ডার লতিফুল হক কাজমী, প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মানিক, নির্বাহী প্রকৌশলী তৌহিদুল ইসলাম।