মধ্যরাতে সংঘর্ষে চবি ছাত্রলীগের দুই গ্রুপ

রাত সাড়ে ১২টা থেকে সোয়া ১টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহ আমানত ও সোহরাওয়ার্দী হলের সামনে দুই পক্ষের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া চলে।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 Jan 2024, 03:44 AM
Updated : 30 Jan 2024, 03:44 AM

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মধ্যরাতে সংঘর্ষে জড়িয়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের বগিভিত্তিক দুই গ্রুপ ভার্সিটি এক্সপ্রেস (ভিএক্স) ও চুজ ফ্রেন্ডস উইথ কেয়ার (সিএফসি)।

সোমবার রাত সাড়ে ১২টা থেকে সোয়া ১টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহ আমানত ও সোহরাওয়ার্দী হলের সামনে দুই পক্ষের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া চলে।

ভিএক্সের নেতা এবং বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি প্রদীপ চক্রবর্তী দুর্জয় বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, "চারুকলার ২০২০-২০২১ সেশনের দুটো ছেলের মধ্যে ঝামেলা ছিল। সেটার সূত্র ধরে সিএফসির ছেলেটা আজকে আমাদের কর্মীকে চড়-থাপ্পড় মারে। এটা থেকেই ঝামেলার সূত্রপাত হয়েছে।"

দুর্জয় বলেন, “আমরা সিনিয়ররা কথা বলে এটার সমাধান করেছি।"

সিএফসির নেতা এবং বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি সাদাফ খান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “বন্ধুদের মধ্যে কথা কাটাকাটি থেকে হাতাহাতি হয়েছে, সেটা থেকেই ঝামেলা হয়েছে। ঝামেলা যাতে আর না বাড়ে সেজন্য আমরা সিনিয়ররা কথা বলে বিষয়টা সমাধান করেছি।"

বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর নাজেমুল হাসান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ক্লাসে বাকবিতণ্ডা থেকে এই ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে আমরা পুলিশ নিয়ে এসে মিমাংসা করে দিয়েছি।"

সংঘর্ষের এই ঘটনায় ‘তেমন কেউ আহত হননি’ বলে সহকারী প্রক্টরের ভাষ্য। 

ভিএক্স গ্রুপের কর্মীরা চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাসির উদ্দিনের অনুসারী হিসেবে পরিচিত। অন্যদিকে সিএফসির কর্মীরা অনুসরণ করে শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলকে।