লিচ ছিটকে পড়ায় স্টোকস বললেন, ‘প্রয়োজনে বাশির আছে’

প্রয়োজন পড়লে আনকোরা অফ স্পিনার শোয়েব বাশিরকেই মাঠে নামাতে ভড়কে যাবে না ইংল্যান্ড, জানিয়ে দিলেন অধিনায়ক বেন স্টোকস।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 Feb 2024, 06:02 AM
Updated : 1 Feb 2024, 06:02 AM

সিরিজ শুরুর আগেই খবরের শিরোণামে ছিলেন শোয়েব বাশির। তবে সেখানে ক্রিকেট ছিল সামান্যই। তার ভারতের ভিসা পেতে দেরি হওয়া নিয়ে জটিলতায় তোলপাড় পড়ে যায় দুই দেশেই। তবে এবার তিনি আলোচলায় উঠে আসছেন ক্রিকেটীয় কারণেই। ভারতের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে জ্যাক লিচের জায়গায় ইংল্যান্ড বেছে নিতে পারে আনকোরা এই অফ স্পিনারকেই। 

ভারত সফরে ইংল্যান্ডের স্পিন আক্রমণ এমনিতেই খুবই অনভিজ্ঞ। চার বিশেষজ্ঞ স্পিনারের মধ্যে একজনই কেবল একটু অভিজ্ঞ। সেই লিচকেই এবার হারাল তারা। প্রথম টেস্টে পাওয়া চোটে দ্বিতীয় টেস্টে খেলতে পারবেন না ৩৬ টেস্ট খেলা বাঁহাতি স্পিনার। 

হায়দরাবাদে প্রথম টেস্টের প্রথম দিনই ফিল্ডিংয়ের সময় হাঁটুতে চোট পান লিচ। পরদিন সেই চোট আরও গুরুতর হয়ে ওঠে। আঘাতের জায়গা ফুলে ওঠে অনেকটাই। মাঠের বাইরে তাকে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে হাঁটতে দেখা যায়। চোট নিয়েও অবশ্য প্রথম ইনিংসে ২৬ ওভার বোলিং করেন তিনি ছোট ছোট স্পেলে। এমনকি দ্বিতীয় ইনিংসেও ব্যথা সয়ে ১০ ওভার বোলিং করেন। দুই ইনিংসে উইকেট নেন একটি করে।

ওই টেস্টের পর আর অনুশীলনে ফিরতে পারেননি লিচ। বিশাখাপাত্নামে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে ইংল্যান্ড অধিনায়ক বেন স্টোকস নিশ্চিত করে দেন তার ভাগ্য। 

“সে দ্বিতীয় টেস্ট থেকে ছিটকে গেছে। আমাদের জন্য এটা হতাশাজনক, তার জন্য অবশ্যই অনেক বড় হতাশার, দীর্ঘদিন বাইরে থাকার পর সে ফিরেছিল। ফেরার পর প্রথম ম্যাচেই আবার চোট পাওয়া দুঃখজনক।” 

“আমরা প্রতিদিনই তার অবস্থা পর্যবেক্ষণ করছি। মেডিকেল বিভাগ ব্যাপারটি দেখছে এবং আশা করি, চোট বেশি গুরুতর নয় যে তাকে সিরিজে আরও লম্বা সময় বাইরে রাখবে।” 

গত জুনে চোট পেয়ে মাঠের বাইরে ছিটকে পড়েন লিচ। তাকে অ্যাশেজেও পায়নি ইংল্যান্ড। সাত মাসের বেশি সময় পর ফিরে আবার চোটে পড়লেন।

তার দুর্ভাগ্যই এখন সৌভাগ্য হয়ে আসতে পারে বাশিরের জন্য। স্রেফ ৬টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচে ১০ উইকেট নেওয়ার অভিজ্ঞতায় একজনকে টেস্ট দলে নেওয়াই ছিল বড় চমক। এখন তার টেস্ট অভিষেক হয়ে গেলে, সেটিও হবে চমকপ্রদ। 

লিচের জায়গায় একজন পেসার নাকি স্পিনার নেওয়া হবে, সেই সিদ্ধান্ত অবশ্য চূড়ান্ত করেনি ইংল্যান্ড। প্রথম টেস্টে স্রেফ এক পেসার মার্ক উডকে নিয়ে একাদশ সাজিয়েছিল তারা। এবার আরেকজন পেসার নেওয়া হলে সুযোগ পাবেন টেস্ট ইতিহাসের সফলতম পেসার জেমস অ্যান্ডারসন। আর তিন স্পিনারের একাদশই রাখা হলে টেস্ট ক্যাপ পাবেন ২০ বছর বয়সী বাশির। 

বাশিরকে দলে নেওয়ার ক্ষেত্রে যে তার অভিজ্ঞতার ঘাটতি কোনো বাধা হবে না, সেটি সাফ জানিয়ে দিলেন স্টোকস। শেষ পর্যন্ত সুযোগটি পেলে নবীন এই স্পিনারের অভিষেক আনন্দময় করে তোলার বার্তাও দিয়ে রাখলেন তিনি। 

“আমি, বাজ (কোচ ব্রেন্ডন ম্যাককালাম) ও পপি (সহ-অধিনায়ক অলিভার পোপ) সম্ভবত আরও গভীরভাবে ভাবব এটা নিয়ে। ব্যাশ (বাশির) স্কোয়াডে আছে এবং আমরা তাকে স্রেফ অভিজ্ঞতা পাওয়ার জন্য আনিনি। আমাদের যদি মনে হয় যে তাকে আমাদের প্রয়োজন, অবশ্যই আমরা তাকে নেব।”

“তাকে যদি এই সফরে মাঠে নামতেই হয়, তাহলে এটার চেয়ে ভালো ব্যাপার তার জন্য আর কী আছে যে, হারানোর কিছু নেই তার! সে খেলার সুযোগ পেলে এভাবেই ভাবব আমি, যেন তাকে যতটা সম্ভব সেরা অভিজ্ঞতাটুকু দিতে পারি। কারণ, প্রথম টেস্ট লোকে জীবনে একবারই খেলে। সে যদি খেলে, চেষ্টা করব অভিজ্ঞতাটা তার জন্য উপভোগ্য ও মজার করে তুলতে।” 

বাশির খেললে ইংল্যান্ডের তিন স্পিনারের সম্মিলিত অভিজ্ঞতা হবে তিন টেস্টের। দুই টেস্ট খেলেই তাদের মধ্যে অভিজ্ঞতম এখন লেগ স্পিনার রেহান আহমেদ। বাঁহাতি স্পিনার টম হার্টলির অভিষেক হয়েছে এই সফরে প্রথম টেস্টে। 

প্রথম টেস্টে প্রথম ইনিংসে ১৯০ রানে পিছিয়ে থেকেও পরে দারুণ এক জয় আদায় করে নেয় ইংল্যান্ড। দ্বিতীয় টেস্ট শুরু শুক্রবার।