বিপিএল নিয়ে ‘সৎ অভিমত’ জানালেন রিজওয়ান

বিশ্বের অন্যান্য ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগের তুলনায় বিপিএলকে আরও কয়েক ধাপ উন্নতি করতে হবে, বললেন পাকিস্তানের কিপার-ব্যাটসম্যান।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 Feb 2024, 12:08 PM
Updated : 5 Feb 2024, 12:08 PM

বিপিএলের মান নিয়ে বিদেশি ক্রিকেটারদের কাছে প্রশ্ন ছুটে যায় নিয়মিতই। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই কূটনৈতিক উত্তরের পথ বেছে নেন ক্রিকেটাররা। এবার একটু ব্যতিক্রম মোহাম্মদ রিজওয়ান। যদিও খুব গভীরে যাননি তিনি বা অসঙ্গতি বিশদভাবে তুলে ধরেননি। তবে পাকিস্তানি কিপার-ব্যাটসম্যান অন্তত এটুকু বলে দিলেন, বিশ্বের অন্যান্য লিগের সঙ্গে তুলনায় যেতে আরও কয়েক ধাপ এগোতে হবে বিপিএলকে।

বিপিএলের দশম আসর চলছে এখন। একটা সময় ছিল, এটিকে বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ (আইপিএলকে সবার ওপরে রেখে) দাবি করতেন বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল। সময়ের পরিক্রমায় বাস্তবতা অনুধাবন করে সেরকম কিছু আর বলেন না তারা। এখন কোনো ক্রম বা র‌্যাঙ্কিংয়েও তারা যেতে চান না। তবে নানা বাস্তবতায় টুর্নামেন্টের পেছন পানে হাঁটা দৃশ্যমানই।

শুরুর দুই আসরের নানা বিতর্ক পেছনে ফেলে একটা সময় এই টুর্নামেন্ট শক্ত ভিত্তি পাচ্ছে বলেই মনে হচ্ছিল। তবে পরে সেই ধারা ধরে রাখা যায়নি। গত কয়েক আসর ধরে নানা অসঙ্গতি, অব্যবস্থাপনা, ঘাটতি, বিতর্ক আর অসামঞ্জস্যতা সঙ্গী করেই চলছে বিপিএল।

চলতি আসরে আকর্ষণ বাড়াতে টিভি প্রোডাকশনের উন্নতিতে কিছু পদক্ষেপ নিয়েছেন আয়োজকরা। স্পাইডার ক্যামের পাশাপাশি বাউন্ডারিতে ব্যবহার করা হচ্ছে বাগি ক্যামেরা। দর্শকদের জন্যও রাখা হয়েছে বাড়তি কিছু আয়োজন। তবে টুর্নামেন্টের আয়োজনগত নানা দিক ও সার্বিক পেশাদারিত্ব প্রশ্নবিদ্ধ হচ্ছে ক্রমেই।

বিশ্ব ক্রিকেটে এই টুর্নামেন্টের অবস্থান কিংবা ভাবমূর্তিও খুব উজ্জ্বল নয়। বিশেষ করে, এসএ টোয়েন্টি ও আইএল টি-টোয়েন্টি শুরু হওয়ার পর তুমুল প্রতিযোগিতার এই বাজারে বিপিএল হালে পানি পাচ্ছে না খুব একটা।

সেই বাস্তবতার ছবিই কিছুটা ফুটে উঠল রিজওয়ানের কথায়। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের হয়ে দ্বিতীয় ও সব মিলিয়ে তৃতীয়বার এই বিপিএল খেলতে এসেছেন তিনি। গত আসরে দশ ম্যাচ খেললেও এবার নিজ দেশের পিএসএলের কারণে মাঝপথে ফিরতে হবে তাকে।

মিরপুর একাডেমি মাঠে সোমবার অনুশীলনের ফাঁকে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে রিজওয়ান তুলে ধরলেন অন্যান্য লিগের তুলনায় বিপিএলের অবস্থান।

“সত্যি বললে, অন্যান্য লিগের সঙ্গে তুলনায় বিপিএলকে আরও কয়েক ধাপ এগোতে হবে। বিশ্বের সব প্রান্তে ভিন্ন কন্ডিশন। বিপিএলের কথা জিজ্ঞেস করলে, এখানে এশিয়ান কন্ডিশন। এখানে ভিন্ন কন্ডিশনের মোকাবিলা করতে হবে। আইএলটি২০, বিগ ব্যাশ অথবা দক্ষিণ আফ্রিকায়ও ভিন্ন কন্ডিশন। তারা যদি বিশ্বকাপ অথবা এশিয়া কাপে আসে, ভিন্ন কন্ডিশনের সামনে পড়বে। বিপিএলের কন্ডিশন এমন কিছুই হবে। কারণ এটি বাংলাদেশ। অস্ট্রেলিয়ায় গেলে বাউন্সের সামনে পড়তে হবে। তবে বিপিএলের উন্নতির জন্য আরও কয়েক ধাপ এগোতে হবে।”

উন্নতির পথে পরামর্শের কথা জানতে চাওয়া হলে অবশ্য সুনির্দিষ্ট কোনো কিছু বললেন না রিজওয়ান। তার ধারণা, উন্নতির উপায়গুলো বিসিবির জানা।

“আমি (বিপিএল) কমিটিতে নেই। আমি একজন ক্রিকেটার, নিজের সৎ অভিমত জানালাম। তবে বিপিএকে কয়েক ধাপ এগোতে হবে। কারণ আমার মতে, তারা (এগোনোর ধাপগুলো) জানে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড কোনো ছোট বোর্ড নয়। তারা (উপায়) জানে। বাংলাদেশের তাদের বড় বড় ক্রিকেটার আছে। অনেক বড় বড় দলের বিপক্ষে সিরিজ তারা জিতেছে। তারা জানে, কোথায় তারা উন্নতি করতে পারে এবং কীভাবে বিপিএলের মান বাড়াতে হবে।”

কুমিল্লা ফ্র্যাঞ্চাইজির পক্ষ থেকে জানা গেছে, আগামী বুধবার পর্যন্ত বিপিএল খেলার ছাড়পত্র আছে রিজওয়ানের। সেদিন খুলনা টাইগার্সের মুখোমুখি হবে কুমিল্লা। তবে তাদের পক্ষ থেকে রিজওয়ানকে আরও কয়েক দিন রেখে দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে।