‘অনভিজ্ঞ’ দল নিয়ে টেস্ট জিতে গর্বিত রোহিত

একই সঙ্গে ব্যাটসম্যানদের কাছে দলের চাওয়াটাও জানিয়ে দিলেন ভারত অধিনায়ক।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 Feb 2024, 02:30 PM
Updated : 5 Feb 2024, 02:30 PM

তুলনামূলক অনভিজ্ঞ ব্যাটিং লাইনআপ নিয়ে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বিশাখাপাত্নাম টেস্টে নেমেছিল ভারত। তবে ম্যাচ জিতেছে তারাই। সমতা ফিরিয়েছে সিরিজে। রোহিত শার্মা তাই দারুণ উচ্ছ্বসিত। একই সঙ্গে ব্যাটিং পারফরম্যান্স নিয়ে দুর্ভাবনার কথাও বলেছেন ভারত অধিনায়ক।

সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে ভারতের ব্যাটিং লাইনআপ কতটা অনভিজ্ঞ ছিল, তা পরিষ্কার হয়ে যাবে একটি তথ্যে। এই সংস্করণে ইংল্যান্ডের জো রুটের একার যা রান, এই টেস্টে ভারতের সবার সম্মিলিতি রানও ছিল এর চেয়ে কম! ১১ হাজার ৪৪৭ রান নিয়ে ম্যাচটি খেলতে নামেন রুট, যেখানে ভারতের সবার রান ছিল ১০ হাজার ৩৩৬।

ব্যক্তিগত কারণে ভিরাট কোহলি প্রথম দুই টেস্ট থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন আগেই। প্রথম টেস্টের পর চোটে ছিটকে যান আরেক ব্যাটসম্যান লোকেশ রাহুল ও অলরাউন্ডার রবীন্দ্র জাদেজা।

বিশাখাপাত্নামে প্রথম ইনিংসে দুর্দান্ত এক ডাবল সেঞ্চুরি করেন ইয়াশাসবি জয়সওয়াল। এর পরে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্কোর ছিল শুবমান গিলের ৩৪। এই ব্যাটসম্যান সেঞ্চুরি করেন দ্বিতীয় ইনিংসে। আর কেউ পঞ্চাশ ছুঁতে পারেননি।

হায়দরাবাদ টেস্টের চেয়ে বিশাখাপাত্নামের উইকেটও ব্যাটিংয়ের জন্য বেশ ভালো ছিল। কিন্তু ভারতের বেশিরভাগ ব্যাটসম্যান থিতু হয়েও ইনিংস বড় করতে পারেননি। সোমবার ১০৩ রানে জয়ের পর এই দিকটিই তুলে ধরেন রোহিত। তবে তরুণরা সময়ের সঙ্গে শিখবে বলেও মনে করেন তিনি।

“ব্যাট করার জন্য উইকেট সত্যিই ভালো ছিল। কোনো একটা জায়গায় যদি বিশেষ দৃষ্টি দিতে চাই, তাহলে বলব অনেক ব্যাটার শুরুটা ভালো করেছিল, কিন্তু ইনিংস বড় করতে পারেনি। এটি এমন কিছু, যা নিয়ে সত্যিই ভাবতে হবে আমাদের। তবে আমি জানি তারা এখনও তরুণ… তাদের সময় দরকার। আমাদের দিক থেকে তাদের আত্মবিশ্বাস জোগানোটা গুরুত্বপূর্ণ। এই জয় অবশ্যই তাদের অনেক আত্মবিশ্বাস জোগাবে এবং বুঝতে পারবে যে, উইকেটে গিয়ে স্বাধীনভাবে খেলতে হবে।”

"এইরকম একটি তারুণ্যনির্ভর দল নিয়ে আমি খুবই গর্বিত। এমন একটি দলের বিপক্ষে, যারা সিরিজের প্রথম টেস্ট জিতেছে, তাদের বিপক্ষে এভাবে খেলতে পারাটা খুবই ইতিবাচক। যেমনটা বলছিলাম, এই সংস্করণে খেলার বিবেচনায় অনেক ছেলেই বেশ তরুণ। তাই নিখুঁত হতে অবশ্যই তাদের কিছুটা সময় লাগবে, কিন্তু তাদের সেটা দিতে হবে। তাদের আরও কিছুটা সময় দরকার, স্বাধীনতাও দরকার। এটা নিয়ে আমরা সবসময় ড্রেসিং রুমে কথা বলি, আমরা চাই এই ছেলেরা উইকেটে গিয়ে কিছু সময় থাকুক এবং কোনো চাপ ছাড়াই স্বাধীনভাবে খেলুক।”

রোহিতের উদ্বোধনী জুটির সঙ্গী জয়সওয়াল এই সিরিজের প্রথম টেস্টে খেলেন ৭৪ বলে ৮০ রানের আগ্রাসী ইনিংস। দ্বিতীয় টেস্টে ভারতের তৃতীয় সর্বকনিষ্ঠ ডাবল সেঞ্চুরিয়ান হওয়ার কীর্তি গড়ে তিনি ২৯০ বলে করেন ২০৯। ছয় টেস্টেই দেশে ও দেশের বাইরে সেঞ্চুরির স্বাদ পেয়ে গেছেন ২২ বছর বয়সী প্রতিভাবান এই ব্যাটসম্যান। রোহিত প্রশংসায় ভাসিয়েছেন জয়সওয়ালকে।

“তাকে খুব ভালো খেলোয়াড়ের মতো মনে হচ্ছে, নিজের খেলাটা সে সত্যিই ভালো বোঝে। অবশ্যই তাকে অনেক দূর যেতে হবে। সে কেবলই দলে এসেছে এবং প্রতিটা সুযোগ সে সর্বোচ্চটা দিয়ে কাজে লাগানোর চেষ্টা করছে। অসাধারণ এক ইনিংস ছিল এটি। যেমনটা বলেছিলাম, তাকে অনেক দূর যেতে হবে। আমাদের দলকে দেওয়ার জন্য তার অনেক কিছু আছে।”