স্মিথের আক্ষেপের দিনে অস্ট্রেলিয়ার সিরিজ জয়

দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ইংল্যান্ডকে ৭২ রানে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 19 Nov 2022, 11:26 AM
Updated : 19 Nov 2022, 11:26 AM

ওয়ানডেতে হেসেই চলছে স্টিভেন স্মিথের ব্যাট। প্রথম ম্যাচে অপরাজিত দারুণ এক ইনিংসে দলকে জেতানো এই ব্যাটসম্যান এবার সম্ভাবনা জাগালেন সেঞ্চুরির। কিন্তু একটুর জন্য তিন অঙ্কের উষ্ণ ছোঁয়া পেলেন না তিনি। তার আক্ষেপের দিনে বল হাতে জ্বলে উঠলেন মিচেল স্টার্ক, অ্যাডাম জ্যাম্পা। তাদের নৈপুণ্যে ইংল্যান্ডকে গুঁড়িয়ে বড় জয় তুলে নিল অস্ট্রেলিয়া। 

সিডনিতে শনিবার দ্বিতীয় ওয়ানডেতে অস্ট্রেলিয়ার জয় ৭২ রানে। টানা দুই জয়ে তিন ম্যাচের সিরিজ ঘরে তুলেছে স্বাগতিকরা। 

আগের ম্যাচে ৮০ রান করা স্মিথ ৬ রানের জন্য ছুঁতে পারেননি শতক। ১ ছক্কা ও ৫ চারে করেন ১১৪ বলে ৯৪ রান। ওয়ানডেতে টানা ৪ ম্যাচে ছাড়ালেন পঞ্চাশ, যার একটি সেঞ্চুরি। গত সেপ্টেম্বরে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে খেলেছিলেন ১০৫ রানের ইনিংস। 

১ ছক্কা ও ৪ চারে ৫৮ রান করেন মার্নাস লাবুশেন। দুটি করে ছক্কা-চারে ৫০ রান আসে মিচেল মার্শের ব্যাট থেকে। এই তিন জনের ফিফটিতে ৮ উইকেটে ২৮০ রান করে অস্ট্রেলিয়া। 

প্রথম ওভারে দুই উইকেট নিয়ে দলের জয়ের ভিত গড়ে দেওয়া স্টার্ক পরে নেন আরও দুটি। ৪৭ রানে ৪টি নিয়ে এই পেসারই ম্যাচের সেরা। ৪৫ রানে ৪টি প্রাপ্তি লেগ স্পিনার জ্যাম্পারও। বাকি দুটি নেন এই ম্যাচে প্যাট কামিন্সের অনুপস্থিতিতে নেতৃত্ব দেওয়া জশ হেইজেলউড।

ইংল্যান্ডকে টানেন জেমস ভিন্স ও স্যাম বিলিংস। ৬০ রান করেন ভিন্স, বিলিংস ৭১। দুইজনের ইনিংসে দুটি ছক্কা ও তিনটি চার। চতুর্থ উইকেটে দুইজনে গড়েন ১২২ রানের জুটি। কিন্তু পরের ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ২০৮ রানেই শেষ হয়ে যায় ইংল্যান্ডের ইনিংস। 

টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা অস্ট্রেলিয়াকে আগের ম্যাচের মতো ভালো শুরু এনে দিতে পারেননি ডেভিড ওয়ার্নার ও ট্রাভিস হেড। পঞ্চাশের আগে দুই ওপেনারের বিদায়ের পর হাল ধরেন স্মিথ ও লাবুশেন। দুজনে গড়েন ১০১ রানের জুটি। 

আদিল রশিদের বলে মিড-অফে লাবুশেন ধরা পড়ার পরের বলেই স্টাম্পড হয়ে যান অ্যালেক্স কেয়ারি। মার্শকে নিয়ে ৯০ রানের জুটি গড়েন ৭০ বলে পঞ্চাশ করা স্মিথ। 

একটা সময় মনে হচ্ছিল স্মিথের সেঞ্চুরি কেবল সময়ের ব্যাপার। কিন্তু তিনি ধৈর্য হারিয়ে ফেলেন। লেগ স্পিনার রশিদকে ছক্কার চেষ্টায় ধরা পড়েন লং অফে। ফিফটি করে বিদায় নেন মার্শও। 

ইংল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন রশিদ। দুটি করে প্রাপ্তি ক্রিস ওকস ও ডেভিড উইলির। 

রানের খাতা খোলার আগে দুই উইকেট হারায় ইংল্যান্ড। স্টার্কের দ্বিতীয় বলে কট বিহাইন্ড হন জেসন রয়। দুই বল পর ১৪৬ কিমি গতির দুর্দান্ত এক আউটসুইঙ্গারে স্টাম্প ভেঙে দেন তিনি আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান দাভিদ মালানের। ফিল সল্টকে বোল্ড করে দেন হেইজেলউড। 

৩৪ রানে ৩ উইকেট হারানো দল এই ধাক্কা সামাল দেয় ভিন্স ও বিলিংসের ব্যাটে। ৫২ বলে ভিন্স ও ৬০ বলে বিলিংস করেন ফিফটি। ভিন্সকে এলবিডব্লিউ করে মাথা ব্যথার কারণ হয়ে ওঠা জুটি ভাঙেন হেইজেলউড। 

জস বাটলারের অনুপস্থিতিতে নেতৃত্ব দেওয়া মইন আলি কিছু করতে পারেননি। পরপর দুই ওভারে তাকে ও বিলিংসকে বোল্ড করে দেন জ্যাম্পা। এই লেগ স্পিনার ও স্টার্ক পরে বাকি উইকেটগুলো দ্রুত তুলে নিয়ে দলের জয় নিশ্চিত করেন। 

দুই দলের তৃতীয় ওয়ানডে আগামী মঙ্গলবার। 

সংক্ষিপ্ত স্কোর: 

অস্ট্রেলিয়া: ৫০ ওভারে ২৮০/৮ (ওয়ার্নার ১৬, হেড ১৯, স্মিথ ৯৪, লাবুশেন ৫৮, কেয়ারি ০, মার্শ ৫০, স্টয়নিস ১৩, অ্যাগার ১৮*, স্টার্ক ০, জ্যাম্পা ০*; ওকস ১০-০-৪২-২, উইলি ৯-০-৪৪-২, মইন ৪-০-২৪-১, রশিদ ১০-০-৫৭-৩, ডসন ১০-০-৪৮০, কারান ৭-০-৫৫-০) 

ইংল্যান্ড: ৩৮.৫ ওভারে ২০৮ (রয় ০, সল্ট ২৩, মালান ০, ভিন্স ৬০, মইন ৭১, মইন ১০, ওকস ৭, কারান ০, ডসন ২০, উইলি ৬, রশিদ ৩*; স্টার্ক ৮-১-৪৭-৪, হেইজেলউড ৭-১-৩৩-২, অ্যাগার ৭-০-৪১-০, স্টয়নিস ৫-০-২৯-০, জ্যাম্পা ৯.৫-১-৪৫-৪, মার্শ ২-০-১২-০) 

ফল: অস্ট্রেলিয়া ৭২ রানে জয়ী 

ম্যান অব দা ম্যাচ: মিচেল স্টার্ক 

সিরিজ: ৩ ম্যাচের সিরিজে ২-০ তে এগিয়ে অস্ট্রেলিয়া

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক