শান্তকে মানসিকভাবে ‘অনেক শক্ত’ মনে করেন লিটন

লিটন দাসের বিশ্বাস, শিগগির ঘুরে দাঁড়াবেন নাজমুল হোসেন শান্ত।

ক্রীড়া প্রতিবেদকচট্টগ্রাম থেকেবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 18 Jan 2023, 03:27 AM
Updated : 18 Jan 2023, 03:27 AM

বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসে দর্শকদের কাছ থেকে সবচেয়ে বেশি সমালোচনা-ট্রলের শিকার হয়েছেন কে? সঠিক উত্তর বলা কঠিন, তবে নিশ্চিতভাবেই ওপরের দিকে থাকবে নাজমুল হোসেন শান্তর নাম। ছয় বছরের ক্যারিয়ারে ক্রিকেট অনুসারীদের কাছ থেকে সমর্থন-ভালোবনা কখনোই তেমনভাবে এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। তবু ভেঙে না পড়ে বরং নতুন উদ্যমে লড়ছেন প্রতিনিয়ত। শান্তর এই মানসিকতার প্রশংসা করেছেন লিটন কুমার দাস, একসময় যাকেও এই পরিস্থিতি কম সইতে হয়নি! 

শান্তর প্রতি ক্রিকেট অনুসারীদের অনেকের বিরূপ আচরণের বড় প্রমাণ পাওয়া গেছে মঙ্গলবার সিলেট স্ট্রাইকার্স ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের ম্যাচে। পশ্চিম গ্যালারিতে কারও গায়ে সিলেটের জার্সি। কারও মাথায় একই দলের ব্যান্ডানা। ব্যাটিংয়েও তখন সিলেট। কিন্তু প্রতিবার বল মোকাবিলার পরপর গ্যালারি থেকে ব্যাটসম্যানের উদ্দেশ্যে শুরু ‘ভুয়া’ ‘ভুয়া!’ চিৎকার। কারণ সিলেটের ওই ব্যাটসম্যানের নাম শান্ত।

সিলেটের ফিল্ডিংয়ের সময়ও বদলায়নি চিত্র। মঙ্গলবারের ম্যাচটিতে শেষ দিকের ওভারগুলোতে লং অনে ফিল্ডিং করছিলেন শান্ত। ক্লাব হাউজে থাকা গুটিকয় দর্শক এক যোগে তাকে উদ্দেশ্য করে নানান মন্তব্য করতে থাকেন, যেগুলোর বেশির ভাগই কুরুচিপূর্ণ। শান্ত অবশ্য বিন্দুমাত্র প্রতিক্রিয়া দেখাননি।

খেলা শেষ করে মাঠ থেকে বের হলে যে এসব থেকে মুক্তি, তা কিন্তু নয়। সামাজিক মাধ্যমে শান্তর ভেরিফাইড পেজ বা প্রোফাইলেও দেখা যায় বিদ্রূপাত্মক মন্তব্যের ঝড়। মাঠের ভেতরে-বাইরে এসবকে সঙ্গী করেই ২২ গজে নিজেকে এগিয়ে নেওয়ার লড়াই করে চলেছেন ২৪ বছর বয়সী ব্যাটসম্যান।

অস্ট্রেলিয়ায় গত বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন তিনি। জোড়া ফিফটিতে তার ব্যাট থেকে আসে ১৮০ রান। চলতি বিপিএলে প্রথম চার ম্যাচে ৫৫.৬৬ গড়ে করেন ১৬৭ রান। তার পারফরম্যান্সে উন্নতির ছাপ থাকলেও ট্রল-সমালোচনা থেমে নেই।

শান্তর মতোই ক্যারিয়ারের শুরুতে এমন অবস্থার মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছে লিটনকেও। ওই খারাপ সময় পার করে এখন তিনি দেশের সেরা ব্যাটসম্যানদের একজন তো বটেই, দারুণ দর্শকপ্রিয়ও হয়ে উঠেছেন। এবারের বিপিএলে শুরুটা ভালো না হলেও সবশেষ দুই ম্যাচে তিনিই ম্যাচ সেরা। তবে অতীত তো তিনি ভুলে যাননি! শান্তর মনোজগতও খুব ভালো বুঝতে পারছেন তিনি।

সিলেটে বিপক্ষে ম্যাচের পর সংবাদ সম্মেলনে প্রাসঙ্গিক প্রশ্নে লিটন বললেন, প্রবল মানসিক শক্তির জোরেই একদিন শান্তও দুঃসময়ের জাল ছিঁড়ে বের হতে পারবেন।

“আমার মনে হয় শান্ত মানসিকভাবে অনেক শক্ত ছেলে। যেহেতু অনেক দিন ধরে এসব মোকাবিলা করে আসছে...। আপনার যদি জ্বর আসে, আপনি একদিন হতাশ হবেন। কিন্তু যখন নিয়মিত হতে থাকবে, তখন মনে হবে, ‘ধুর এটা আর এমন কী!’ শান্তর ক্ষেত্রেও এমন হয়ে গেছে। এক সাক্ষাৎকারে ও বলেছে, ওর মনে হয় খেলতে নামলে প্রতিপক্ষ দলের বিপক্ষে খেলে না, পুরো দেশের বিরুদ্ধে গিয়ে খেলে। এটা একজন খেলোয়াড়ের জন্য খুব কঠিন।” 

“শান্ত ওই জায়গা থেকে বিশ্বকাপে এত ভালো খেলেছে, ঘুরে দাঁড়িয়েছে। আমি মনে করি ও মানসিকভাবে শক্ত একটা ছেলে, তাই ওকে বলার কিছু নাই। ও জানে কী করতে হবে। ভালো-খারাপ থাকবেই। মানসিকভাবে ও যেমন শক্ত, আমিও ঠিক তা-ই। আমার মনে হয়, ও খুব তাড়াতাড়ি (ছন্দে) ফিরবে।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক