উইন্ডিজের বিশ্বকাপ দলে নেই রাসেল, ফিরলেন লুইস

প্রায় ৬ বছর আগে ক্যারিবিয়ানদের হয়ে সবশেষ টি-টোয়েন্টি খেলা জনসন চার্লসও দলে ফিরেছেন।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 14 Sept 2022, 07:15 PM
Updated : 14 Sept 2022, 07:15 PM

ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে আবার খেলার ইচ্ছার পাশাপাশি আরও বিশ্বকাপ জয়ের আকাঙ্ক্ষার কথা কিছুদিন আগেই বলেছিলেন আন্দ্রে রাসেল। তবে এ যাত্রায় অন্তত পূরণ হচ্ছে না তার আশা। টি-টোয়েন্টির এই মহাতারকাকে বাইরে রেখেই ঘোষণা করা হয়েছে ক্যারিবিয়ানদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দল। ফিরেছেন টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান এভিন লুইস ও জনসন চার্লস।

অস্ট্রেলিয়ায় হতে যাওয়া আসরের জন্য বুধবার ১৫ সদস্যের দল দিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট। দলে নেই ফ্যাবিয়ান অ্যালেন, সুনিল নারাইনও।

দলে রাখা হয়েছে টি-টোয়েন্টি অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা দুই জনকে- লেগ স্পিনিং অলরাউন্ডার ইয়ানিক কারাইয়াহ ও বাঁহাতি পেস বোলিং অলরাউন্ডার রেমন রিফার।

৩০ বছর বয়সী কারাইয়াহর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় গত মাসে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে দিয়ে। তার বিশ্বকাপ দলে ডাক পাওয়াটা বড় চমক হয়েই এসেছে।

২০ ওভারের ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত তিনি ম্যাচ খেলেছেন মাত্র চারটি। যার সবশেষটি ২০১৬ ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (সিপিএল)। চার ম্যাচের তিনটিতে বোলিং করে তার প্রাপ্তি স্রেফ একটি উইকেট। এই মৌসুমে সিপিএলের কোনো দলে চুক্তিবদ্ধও নন তিনি।

৩১ বছর বয়সী রিফার এখন পর্যন্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে খেলেছেন তিনটি টেস্ট ও পাঁচটি ওয়ানডে। চলমান সিপিএলে ব্যাট হাতে দারুণ ছন্দে আছেন তিনি। জ্যামাইকা তালাওয়াহসের হয়ে চার ইনিংসে ৫৭ গড় ও ১৪৩.৬৯ স্ট্রাইক রেটে করেছেন ১৭১ রান।

সিপিএলে দারুণ পারফরম্যান্সের কারণেই দলে ডাক পেয়েছেন চার্লস। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ৩৪ টি-টোয়েন্টির সবশেষটি তিনি খেলেছেন ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে। ওই বছরই ডিসেম্বরে সবশেষ জাতীয় দলে খেলেছিলেন তিনি। এবারের সিপিএলে এখন পর্যন্ত ছয় ইনিংসে ৪৫.৪০ গড় ও ১৩৬.৭৪ স্ট্রাইক রেটে ২২৭ রান করে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্কোরার ৩৩ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান।

দলে ফেরা আরেক ব্যাটসম্যান লুইস সবশেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে খেলেছেন গত বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে। এরপর ফিটনেস সংক্রান্ত কারণে দল থেকে বাদ পড়েছিলেন তিনি। কয়েকবার তিনি ফিটনেস ক্যাম্পেই হাজির হননি। প্রধান নির্বাচক ডেসমন্ড হেইন্স ও ক্রিকেট পরিচালক জিমি অ্যাডামস এটা নিয়ে অসন্তুষ্টি জানান প্রকাশ্যেই।

দলে ফেরানোর পর অবশ্য লুইসকে স্বাগতই জানালেন হেইন্স। বুধবার সিপিএলে জ্যামাইকা তালাওয়াহস ও সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস প্যাট্রিয়টসের ম্যাচের ফাঁকে ধারাভাষ্যকার ইয়ান বিশপকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সাবেক এই ব্যাটসম্যান তুলে ধরলেন লুইসকে ফেরানোর কারণ। 

“এভিন লুইসের মতো কেউ, আমরা সবাই একমত যে, সে আমাদের সেরা ওয়ানডে ক্রিকেটার। বছরের পর বছর ধরে সে আমাদের জন্য ভালো ক্রিকেট খেলেছে। আমরা তার সঙ্গে একটি বৈঠক করেছি এবং সে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটের প্রতি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। সে আমাদের তাই বলেছে। আমি বিশ্বাস করি, তাকে সুযোগ দেওয়া উচিত।”

রাসেলও সবশেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে খেলেছেন সংযুক্ত আরব আমিরাতে হওয়া গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে। তিনিসহ নির্দিষ্ট কিছু খেলোয়াড়ের জাতীয় দলে অনুপস্থিতির বিষয়ে স্পষ্টতার অভাব নিয়ে সম্প্রতি হতাশা প্রকাশ করেছিলেন প্রধান কোচ ফিল সিমন্স ও নির্বাচক হেইন্স।

“আমার মনে হয় না, দেশের হয়ে খেলতে বলার জন্য লোকের দুয়ারে গিয়ে আমার হাত পাতা উচিত”, এমন মন্তব্যও করেছিলেন সিমন্স। কোচের কথার জবাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রাসেল লিখেছিলেন, “জানতাম এরকম কিছু ছুটে আসছে, তবে আমি চুপই থাকব।”

ইংল্যান্ডের দা হান্ড্রেড-এ খেলার সময় পরে ধারাভাষ্যকার ড্যারেন স্যামির সঙ্গে কথোপকথনে রাসেল বলেছিলেন, আবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে খেলতে চান তো বটেই, ওই মেরুন জার্সি গায়ে জিততে চান আরও একটি-দুটি বিশ্বকাপ।

তখন ধারণা করা হয়েছিল, হয়তো বিশ্বকাপ দলে রাখা হবে তাকে। শেষ পর্যন্ত সেটি হলো না।

এবারের সিপিএলে ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্সের হয়ে এখন পর্যন্ত অবশ্য ব্যাট হাতে তেমন কিছু করতে পারেননি তিনি। চার ইনিংসে তার সর্বোচ্চ স্কোর স্রেফ ১৭।

হেইন্স বললেন, রাসেলের টি-টোয়েন্টির পারফরম্যান্স নিয়ে তারা সন্তুষ্ট নন।

"আন্দ্রে রাসেলের সঙ্গে বছরের শুরুতে আমাদের একটি বৈঠক হয়েছিল। আমরা এখনও সন্তুষ্ট নই (তার পারফরম্যান্সে), যেভাবে আমরা তাকে দেখতে চাই, সে ততটা ভালো পারফর্ম করছে না। রাসেলের এই অবস্থায় আমরা ঠিক করেছি (তাকে ছাড়াই) এগিয়ে যাওয়ার। এমন কাউকে খুঁজে নিতে চাই, যে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে ভালো করছে।”

বাঁহাতি স্পিনিং অলরাউন্ডার অ্যালেন পারিবারিক কারণে বিরতি নেওয়ার পর সম্প্রতি দলে নির্বাচনের জন্য নিজেকে ‘অ্যাভেইলঅ্যাবল’ রাখার কথা বলেছিলেন। তার বিশ্বকাপ দলে না থাকাকে ‘দুর্ভাগ্যজনক’ বলেছেন হেইন্স। তার মতে, দলে একজন বাঁহাতি স্পিনারের জায়গা ছিল। আর জায়গাটি নিয়েছেন আকিল হোসেন।

আরেক স্পিনিং অলরাউন্ডার নারাইন সবশেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে খেলেছেন ২০১৯ সালের অগাস্টে, টি-টোয়েন্টিতে। আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের ভবিষ্যৎ নিয়ে সম্প্রতি তিনি ক্রিকইনফোকে বলেন, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটে অনেক কিছুই হয় পর্দার আড়ালে। তবে সুযোগ পেলে আবার জাতীয় দলের হয়ে খেলতে চান তিনি।

হেইন্স বললেন, “অধিনায়ক (নিকোলাস পুরান) আমাকে বলেছিল, সে নারাইনের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। কিন্তু আমি খুব বেশি নিশ্চিত নই যে সে খেলতে চায়।”

গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাঁচ ম্যাচের মাত্র একটি জিতে সুপার টুয়েলভ থেকে বিদায় নিয়েছিল দুবারের চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এবারের আসরে প্রথম পর্বে খেলতে হবে তাদের। যেখানে ‘বি’ গ্রুপে তাদের সঙ্গী হিসেবে আছে জিম্বাবুয়ে, স্কটল্যান্ড ও আয়ারল্যান্ড। এখান থেকে শীর্ষ দুই দল যাবে সুপার টুয়েলভে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল: নিকোলাস পুরান (অধিনায়ক), রভম্যান পাওয়েল (সহ-অধিনায়ক), এভিন লুইস, ব্রান্ডন কিং, কাইল মেয়ার্স, ওডিন স্মিথ, জনসন চার্লস, শিমরন হেটমায়ার, জেসন হোল্ডার, রেমন রিফার, ওবেড ম্যাককয়, আলজারি জোসেফ, আকিল হোসেন, শেলডন কটরেল, ইয়ানিক কারাইয়াহ।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক