‘এয়ার অ্যাস্ট্রা’ ডানা মেলছে ২৪ নভেম্বর

ঢাকা থেকে কক্সবাজারের একমুখী সর্বনিম্ন ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ৪ হাজার ৭৯৯ টাকা।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 Nov 2022, 12:55 PM
Updated : 15 Nov 2022, 12:55 PM

দেশের এভিয়েশন খাতে যুক্ত নতুন এয়ারলাইন্স ‘এয়ার অ্যাস্ট্রা’ আগামী ২৪ নভেম্বর থেকে বাণিজ্যিক ফ্লাইট শুরুর ঘোষণা দিয়েছে।

মঙ্গলবার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এক অনুষ্ঠানে এ ঘোষণা দেয় বেসরকারি এ বিমান পরিবহন সংস্থা।

অনুষ্ঠানে এয়ার অ্যাস্ট্রার অফিসিয়াল ওয়েবসাইট উন্মোচন করেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী।

তিনি বলেন, “আজকে এয়ার অ্যাস্ট্রা তাদের যাত্রা শুরু করার ফলে অভ্যন্তরীণ রুটের যাত্রীদের বেছে নেওয়ার সুযোগ আরও বৃদ্ধি পেল। দেশীয় এয়ারলাইন্সগুলোর ইতিবাচক প্রতিযোগিতা ও সহযোগিতার ক্ষেত্র প্রতিষ্ঠিত হবে, যা যাত্রীদের জন্য সহায়ক হবে বলে আমি মনে করি।”

এয়ার অ্যাস্ট্রার সিইও হিসেবে নেতৃত্ব দিচ্ছেন ইউএস বাংলা ও বন্ধ হওয়া রিজেন্ট এয়ারের সাবেক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ইমরান আসিফ।

অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, “প্রায় নয় বছর পর বাংলাদেশে একটি নতুন এয়ারলাইন্স হিসেবে আত্মপ্রকাশে এয়ার অ্যাস্ট্রা গর্বিত। আমরা নিরাপদ যাত্রীসেবা ও সময়ানুবর্তিতার মাধ্যমে যাত্রীদের সবেচেয়ে পছন্দের ও নির্ভরযোগ্য এয়ারলাইনস হিসাবে নিজের প্রতিষ্ঠিত করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।”

২৪ নভেম্বর ঢাকা-কক্সবাজার রুটে বাণিজ্যিক ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করবে এয়ার অ্যাস্ট্রা। শুরুতে ঢাকা-কক্সবাজার-ঢাকা রুটে তিনটি এবং ঢাকা-চট্টগ্রাম-ঢাকা রুটে দুটি ফ্লাইট পরিচালনা করবে। পর্যায়ক্রমে অভ্যন্তরীণ সব রুটেই ফ্লাইট চালানো হবে বলে জানিয়েছে এয়ার অ্যাস্ট্রা কর্তৃপক্ষ।  

ঢাকা থেকে কক্সবাজারের একমুখী সর্বনিম্ন ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ৪ হাজার ৭৯৯ টাকা, যেখানে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের একমুখী সর্বনিম্ন ভাড়া ৩ হাজার ৬৯৪ টাকা।

বেসরকারি এয়ারলাইন্সটি এরইমধ্যে ঢাকায় দুটি এটিআর ৭২-৬০০ উড়োজাহাজ এনেছে। চলতি বছরই বহরে যুক্ত হবে আরও দুটি উড়োজাহাজ। আগামী বছরের মধ্যে বহরে উড়োজাহাজের সংখ্যা দশটিতে নেওয়ার পরিকল্পনার কথা জানিয়েছে এ কোম্পানি।

এয়ার অ্যাস্ট্রায় মূল বিনিয়োগ করছেন জাপান প্রবাসী ব্যবসায়ী হারুন অর রশিদ। কারিগরি সহায়তা দিচ্ছে ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্স। নতুন কোম্পানি যুক্ত হওয়ায় দেশের বর্তমানে চালু বেসরকারি এয়ারলাইন্সের সংখ্যা দাঁড়ালো তিনে।

অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট চালিয়ে ক্ষতির মুখোমুখি হতে হচ্ছে বলে গেল ১৫ সেপ্টেম্বর এক অনুষ্ঠানে দাবি করে দেশের বেসরকারি এয়ারলাইন্সগুলোর সংগঠন এভিয়েশন অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (এওএবি)। তার মধ্যেই মধ্যেই বাজারে এল এয়ার অ্যাস্ট্রা।

এওএবির তথ্যানুযায়ী, বর্তমানে বাংলাদেশের দুটি বেসরকারি এয়ারলাইন্স ইউএস-বাংলা ও নভো এয়ার সাতটি অভ্যন্তরীণ ও ১১টি আন্তর্জাতিক রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করছে। প্রতিদিন তাদের সেবা নিচ্ছেন প্রায় ৫ হাজার মানুষ। আগামী বছরে এ সংখ্যা সাত হাজারে উন্নীত হবে বলে আশা করছে সংগঠনটি।

অন্যদের মধ্যে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম মফিদুর রহমান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক