স্মার্ট ইকোনমি গড়তে উজবেকিস্তানকে পাশে চাইছেন পলক

“গ্রামগুলোতে ডিজিটাইজেশনের ক্ষেত্রেও দুই দেশ একসাথে কাজ করার বিষয়ে একমত হয়েছে।”

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 29 July 2022, 02:51 PM
Updated : 29 July 2022, 02:51 PM

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে উজবেকিস্তানের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করার সম্ভাবনা দেখছেন তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

তিনি বলেছেন, “বাংলাদেশ ও উজবেকিস্তানের মধ্যে হাইটেক ইন্ডাস্ট্রিতে একটা বড় ধরনের সম্ভাবনা দেখতে পাচ্ছি। আমরা একটা নলেজ পার্টনার হিসেবে ভবিষ্যতে স্মার্ট ইকোনমি গড়ে তোলার জন্য দুই দেশ একসাথে কাজ করব।”

শুক্রবার ঢাকার একটি হোটেলে 'উজবেকিস্তান-বাংলাদেশ থার্ড ইন্টারগভর্নমেন্টাল কমিশন অন ট্রেড অ্যা ইকোনমিক কোঅপারেশন' শীর্ষক বৈঠক শেষে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

গত সেপ্টেম্বরে প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমানের নেতৃত্বে বাংলাদেশের একটি প্রতিনিধিদল উজবেকিস্তান যায়। এরপর বাংলাদেশের আমন্ত্রণে ডিসেম্বরে উজবেকিস্তান হাইটেক পার্কের একটি প্রতিনিধিদল বাংলাদেশে আসে।

সেই সফরের প্রসঙ্গ টেনে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী বলেন, “উজবেকিস্তান গিয়ে যে নতুন সম্ভাবনা দেখলাম, সেটা হল হাইটেক ইন্ডাস্ট্রি; ওদের একটা আইটি পার্ক নতুন হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে ৯২টি আইটি পার্ক করার উদ্যোগ নিয়েছেন। ১০টা ইতোমধ্যে হয়ে গেছে। ওদের আইটি পার্কের সিইও বাংলাদেশে এসেছেন গত ডিসেম্বরে।

“অল্প সময়ের মধ্যে তাদের এই সফরের মানে হচ্ছে আইটি সেক্টরে তারা বাংলাদেশের সঙ্গে কাজ করতে খুবই আগ্রহী। ইতোমধ্যে তাদের সঙ্গে আমরা একটা মেমোরেন্ডাম অব আন্ডারস্ট্যান্ডিং (এমওইউ) সাইন করেছি।”

তথ্যপ্রযুক্তিতে দুই দেশের যৌথভাবে কাজ করার তিনটি উপায় বের করার কথা জানিয়ে পলক বলেন, “একটা হচ্ছে হাইটেক পার্কে বিনিয়োগ। অপরটি হচ্ছে ওদের এডুকেশন সিস্টেম এবং আমাদের এডুকেশন সিস্টেমে কিভাবে একই ধরনের ইনোভেটিভ টেকনোলজি ব্যবহার করা যায়; আরেকটি হচ্ছে বিপিও বা বিজনেস প্রসেস আউটসোর্সিং সেক্টরে।

“পাশাপাশি গ্রামগুলোতে ডিজিটাইজেশনের ক্ষেত্রে দুই দেশ একসাথে কাজ করার বিষয়ে একমত হয়েছে। আমরা

যৌথভাবে প্রকল্প হাতে নিতে চাচ্ছি, যাতে করে দুই দেশের গ্রামগুলো একই তথ্যপ্রযুক্তির আওতায় চলে আসে।”

বৈঠকে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন; সঙ্গে ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান। উজবেকিস্তান প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে ছিলেন দেশটির উপ প্রধানমন্ত্রী জামশেদ কাদজায়েভ।

বৈঠকে দুই দেশের প্রতিনিধিদের মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগের বিভিন্ন সম্ভাবনা নিয়েও ফলপ্রসূ আলোচনা হয় বলে জানা গেছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক