ভুল চিকিৎসা: ঢাকায় এক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের নিবন্ধন স্থগিত

অধ্যাপক ডা. আলী জাহীর আল-আমীন এক বছর চিকিৎসা সেবা এবং নামের শেষে চিকিৎসক লিখতে পারবেন না।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 19 Nov 2022, 03:23 PM
Updated : 19 Nov 2022, 03:23 PM

ঢাকায় এক রোগীর বাম কানের বদলে ডান কানে অস্ত্রোপচারে ‘যথেষ্ট অবহেলা গাফিলতির’ প্রমাণ পাওয়ায় ইএনটি বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. আলী জাহীর আল-আমীনের চিকিৎসক নিবন্ধন এক বছরের জন্য স্থগিত করেছে বিএমডিসি।

এতে তিনি এক বছর চিকিৎসক হিসেবে কোথাও চিকিৎসাসেবা দিতে পারবেন না এবং নামের শেষে চিকিৎসক লিখতে পারবেন না।

দেশে চিকিৎসকদের প্রাকটিসের অনুমোদন প্রদানকারী সংস্থা বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিল (বিএমডিসি) গত বুধবার এক চিঠিতে ওই স্থগিতাদেশ দিয়েছে। কাউন্সিলের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার ডা. মো. লিয়াকত আলী স্বাক্ষরিত চিঠিতে এক বছরের এ স্থগিতাদেশ ২০ নভেম্বর থেকে কার্যকর হবে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

ডা. লিয়াকত বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, রোববার এটি বিজ্ঞপ্তি আকারে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ করা হবে।

বিএমডিসির চিঠিতে অধ্যাপক ডা. আলী জাহীর আল-আমীনের পরিচয় দেওয়া হয়েছে ইমপালস হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে।

ঢাকার তেজগাঁওয়ে অবস্থিত এ হাসপাতালের ওয়েবসাইটে ব্যবস্থাপনা পরিচালকের পাশাপাশি ইএনটি অ্যান্ড হেড-নেক সার্জারি বিশেষজ্ঞ হিসেবে তার নাম রয়েছে।

দেশে বিএমডিসির অনুমোদন ছাড়া কোনো চিকিৎসক চিকিৎসা সেবা দিতে পারেন না। 

বিএমডিসির চিঠিতে বলা হয়েছে, ইমপালস হাসপাতালে ভর্তি মোমেনা খাতুন মুন নামে এক নারীর বাম কানের পরিবর্তে ডান কানে ২০২০ সালের ১১ মার্চ অস্ত্রোপচার করেন অধ্যাপক ডা. জাহীর।

এরপর ওই রোগীর মুখের আকৃতি বাঁকা হয়ে যাওয়া, রোগীর স্বজনদের মিথ্যা তথ্য দেওয়ার অভিযোগসহ তার বিরুদ্ধে ভুল চিকিৎসার অভিযোগ আনা হয়। ওই রোগীর স্বামী জিয়াউর রহমান ভূঁইয়া এ বিষয়ে বিএমঅ্যান্ডডিসিতে অভিযোগ করেন।

এ বিষয়ে ডা. জাহীরের বক্তব্য সন্তুোষজনক হয়নি জানিয়ে বিএমডিসি চিঠিতে বলেছে, “কাউন্সিলের গঠিত তদন্তে চিকিৎসায় যথেষ্ট অবহেলা গাফিলতির প্রমাণ পাওয়া গেছে। এ কারণে বিএমঅ্যান্ডডিসির কোড অব কন্ডাক্ট এবং বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিল আইন অনুযায়ী এক বছরের জন্য নিবন্ধন স্থগিত করা হয়েছে।“

এ বিষয়ে অধ্যাপক ডা. আলী জাহীর আল-আমীনের বক্তব্য জানতে পারেনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম। ইমপালস হাসপাতালে যোগাযোগ করা হলে জানানো হয়, তিনি রোগী দেখায় ব্যস্ত আছেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক