আফরিনের সফর যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্ক বিস্তৃত করবে, আশা হাছানের

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে গাজায় যুদ্ধ বিরতি প্রস্তাবে যুক্তরাষ্ট্রের ভিটো দেওয়া ‘গভীর হতাশার’ বলে মন্তব্য করেন তিনি।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 22 Feb 2024, 03:16 PM
Updated : 22 Feb 2024, 03:16 PM

যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক উপ-সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী আফরিন আখতারের আসন্ন সফর দুদেশের সম্পর্ক আরও গভীর ও বিস্তৃত করতে ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। 

বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এ সফরের বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নে হাছান মাহমুদ বলেন, “যুক্তরাষ্ট্রের সাথে সম্পর্ক আরও এগিয়ে নিতে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের চিঠি অত্যন্ত গুরুত্ববহ এবং তাদের কর্মকর্তাদের সফর আমাদের সম্পর্ককে আরও গভীর ও বিস্তৃত করবে।” 

আওয়ামী লীগের টানা চতুর্থ মেয়াদের সরকার গঠনের পর যুক্তরাষ্ট্রের কোনো কর্মকর্তার প্রথম উচ্চ পর্যায়ের সফরে শনিবার ঢাকায় আসছেন দেশটির দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক ব্যুরোর কর্মকর্তা আফরিন। 

বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ সফর এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের চিঠির বিষয়ে প্রশ্নের উত্তর দেন। 

এ সময় জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে উত্থাপিত গাজায় যুদ্ধ বিরতি প্রস্তাবে যুক্তরাষ্ট্রের ভিটো দেওয়ার বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা ‘গভীর হতাশার’। 

গাজায় মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ হওয়ার অভিযোগ তুলে ধরে তিনি বলেন, “নারী-শিশুদেরকে নির্বিচারে হত্যা করা হচ্ছে। এটি সত্যিকার অর্থে আন্তর্জাতিক আইন-কানুনের লঙ্ঘন। শুধু নারী-শিশুদের হত্যা করা হচ্ছে তা নয়, সেখানে পানি-বিদ্যুৎসহ সকল 'বেসিক সাপ্লাই লাইন' পরিকল্পিতভাবে ব্যাহত করা হচ্ছে, হাসপাতালে অভিযান-হামলা চালানো হচ্ছে, এগুলো কোনো আইনকানুনের মধ্যে পড়ে না। 

“এবং এই অপরাধগুলো সেখানে সংঘটিত হচ্ছে। জাতিসংঘে যে প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়েছে যুদ্ধ বন্ধের জন্য, সেটাকে যুক্তরাষ্ট্রের ভিটো সত্যিই গভীর হতাশার।” 

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “আমরা কোনো জায়গায় যুদ্ধ চাই না। আমরা চাই যুদ্ধ বন্ধ হোক। এবং যারা ইসরায়েলের পক্ষে বক্তব্য দেয়, তাদের নিরাপত্তার কথা বলে, এই যে ফিলিস্তিনি নারী-শিশুদের হত্যা করা হচ্ছে, তাদের নিরাপত্তা কোথায়? ফিলিস্তিনিদের যে অধিকার সেটি কোথায় গেল? 

“যুক্তরাষ্ট্রের সাথে আমাদের অত্যন্ত বন্ধুপ্রতিম সম্পর্ক কিন্তু এই ভিটো প্রদান গভীর হতাশাব্যঞ্জক। আমরা কোথাও যুদ্ধ চাই না, যুদ্ধ বন্ধ হোক।”

রোজায় বিএনপির কর্মসূচি প্রসঙ্গে 

রোজার মধ্যে কর্মসূচির দেওয়ার বিষয়ে বিএনপির হুমকিকে ‘হাস্যকর’ বলেও মন্তব্য করেছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ। 

এ বিষয়ে এক প্রশ্নে তিনি বলেন, “বিএনপি রোজা-রমজান-ঈদ কোনোটাই মানে না তো। ঈদের দিনও কর্মসূচি দেয় কি না সেটিই দেখার বিষয়। ঈদের দিনের কথা বলে নাই? রোজা-রমজান কোনো কিছু মানে না। এই কর্মসূচি দিয়ে তো আসলে নিজেদের হাস্যকর করছে ওরা।” 

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “তাদের কর্মসূচিতে তো তাদের কর্মীদেরই কোনো সাড়া নেই। এখন তারা তাদের যে ভুল সিদ্ধান্ত, নির্বাচন বর্জন এবং প্রতিহত করার যে ভুল সিদ্ধান্ত, সেই ভুল সিদ্ধান্তের কারণে আজকে পুরো দলটি ধপাস করে পড়ে গেছে। 

“এখন তারা কোমর সোজা করে দাঁড়াতে পারবে কি না সেটি বিষয়। এখন কর্মীদের তোপের মুখে পড়েছে, রমজানে কর্মসূচি দিলে তারা জনগণের তোপের মুখে পড়বে।”