রোহিঙ্গাদের ফেরাতে ইতিবাচক সাড়া দিয়েছে ভারত: প্রধানমন্ত্রী

“কিন্তু ভারত সব সময়ই এটা মনে করে যে, না এটা সমাধান হওয়া উচিত” বলেন সরকার প্রধান।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 14 Sept 2022, 03:30 PM
Updated : 14 Sept 2022, 03:30 PM

মিয়ানমার থেকে বাস্তুচ্যুত হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরাতে ভারতের সহযোগিতা চেয়ে ইতিবাচক সাড়া পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

চারদিনের ভারত সফরের অভিজ্ঞতা জানাতে বুধবার আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

সাংবাদিক নঈম নিজাম প্রশ্ন করেন,“বর্তমান সময়ে যেই প্রসঙ্গটা আপনি উল্লেখ করলেন রোহিঙ্গাদের সংকট সমাধান, এখন আমাদের জন্য একটা বড় সংকট হয়ে দাঁড়িয়েছে রোহিঙ্গা।

“এবার ভারত সফরকালে আপনি উল্লেখ করেছেন, আপনি সেখানে আলোচনা করলেন। এই ক্ষেত্রে ভারতের মনোভাব কী ছিল?”

উত্তরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “ধন্যবাদ। এই ব্যাপারেও আলোচনা হয়েছে। ভারতও এটা মনে করে, তারা উপলব্ধি করে যে, আমাদের এখানে রোহিঙ্গাদের এই দীর্ঘদিন অবস্থান, এটা দীর্ঘ একটা সংকট সৃষ্টি করছে।”

২০১৭ সালের অগাস্টে রাখাইন রাজ্যে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর অভিযানের মুখে বাংলাদেশ সীমান্তে রোহিঙ্গাদের ঢল নামে। তাদের ফেরত নিতে দুই দেশের সরকার চুক্তিবদ্ধ হলেও পাঁচ বছরেও প্রত্যাবাসন শুরু হয়নি।

রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর বিপুল সংখ্যক মানুষ শরণার্থী হিসেবে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়ায় পরিবেশের ক্ষতির কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমাদের প্রাকৃতিক সম্পদ নষ্ট হচ্ছে, পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে।

“সব থেকে বড় কথা যে, ওদের নিজেদের ভেতরে নিজেদের দ্বন্দ্ব এবং যার ফলে এখানে নানা ধরনের যেমন ড্রাগ,ট্রাফিকিং বা নিজেদের মধ্যে অস্ত্র, সংঘাত, খুনোখুনি নানা ধরনের ঘটনা ঘটছে। এটা আরও পরিবেশটাকে নষ্ট করছে।”

শেখ হাসিনা বলেন, “তবুও আমাদের সাধ্যমতো চেষ্টা করছি আর ভারতকে আমরা এটা বলেছি যে, তারা যেন এই ব্যাপারে একটু সহযোগিতা করে। এবং তাদের সাড়াটা পেয়েছি ইতিবাচক।

“কিন্তু সমস্যা হয়ে গেছে মিয়ানমারের সরকারকে নিয়ে। এদের যেখান থেকে যতই চাপ দিক, এরা তো কোনো ব্যাপারে ইয়ে (সাড়া দেয় না) করে না।

“আর তারা নিজেরাই তো নিজেদের দ্বন্দ্ব-সংঘাতে লিপ্ত রয়ে গেছে। এখানেই বড় সমস্যা।”

সরকার প্রধান বলেন, “কিন্তু ভারত সব সময়ই এটা মনে করে যে, না এটা সমাধান হওয়া উচিত।”

মিয়ানমারে দমন-পীড়নের শিকার হয়ে মুসলিম জনগোষ্ঠী রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে শরণার্থী হয়ে আসার ইতিহাস দীর্ঘদিনের। সব মিলিয়ে এখন ১১ লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে উদ্বাস্তু জীবন কাটাচ্ছেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “এটা আমাদের জন্য আসলে… আমরা মানবিক কারণে তাদের স্থান দিয়েছি এটা ঠিক, কিন্তু এখন যে পর্যায়ে যাচ্ছে, তাতে আমাদের জন্য তো বড় একটা বোঝা হয়ে যাচ্ছে।

“তারপরও তারা তো মানুষ। আমরা তো ফেলে দিতে পারি না।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক