ভাষাগত সীমাবদ্ধতা: ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর শিশুরা পিছিয়ে পড়ছে

শিক্ষকদের ভাষা বুঝতে না পারায় ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর শিশুরা শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে, বলেন এক বক্তা।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 Feb 2024, 07:10 PM
Updated : 5 Feb 2024, 07:10 PM

ভাষাগত সীমাবদ্ধতার কারণে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর শিক্ষার্থীদের পিছিয়ে পড়ার চিত্র উঠে এসেছে এক কর্মশালায়।

সোমবার ঢাকার সেগুনবাগিচায় এডুকেশন রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশের (ইরাব) সদস্যদের নিয়ে জাতীয় পর্যায়ের অ্যাডভোকেসি কর্মশালার আয়োজন করে জাপানভিত্তিক আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা ‘শাপলা নীড়’।

অনুষ্ঠানে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী, চরাঞ্চলসহ প্রান্তিক এলাকার শিশুদের গুণগত প্রাথমিক শিক্ষা নিশ্চিতে বাস্তবভিত্তিক পদক্ষেপ নেওয়ার তাগিদ দেন বক্তারা।

শাপলা নীড় বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর তোমোকো উচিয়ামা বলেন, শিক্ষকদের ভাষা বুঝতে না পারায় ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর শিশুরা শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

"ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর যে শিশুরা আছে, তাদের জীবন ধ্বংসের মুখে। ভাষাগত সীমাবদ্ধতার কারণে তারা কিছুই শিখতে পারছে না।"

পিছিয়ে পড়া শিশুদের শিক্ষার সুযোগ তৈরি করে দিতে সরকারি-বেসরকারি উদ্যাগের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, "আমরা ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর বাচ্চাদের সমস্যা মানুষের কাছে তুলে ধরার চেষ্টা করছি। তাদের ভবিষ্যত যেন নষ্ট না হয়। তারা যেন মাতৃভাষায় পড়তে পারে। সরকারের উচিত প্রান্তিক পর্যায়ের শিশুদের প্রতি বিশেষ দৃষ্টি দেওয়া।"

কর্মশালা আয়োজনে সহযোগী ছিল গ্রাম বিকাশ কেন্দ্র ও পাপড়ি।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন ইরাব সভাপতি শরীফুল আলম সুমন, সাধারণ সম্পাদক ফারুক হোসাইন।