এক মামলায় গ্রেপ্তারের পর জানা গেল অর্ধশত চুরির ঘটনা

ঢাকার মোহম্মদপুরে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চুরির ঘটনায় ধরা হয়েছে তাকে।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 Oct 2022, 12:32 PM
Updated : 7 Oct 2022, 12:32 PM

ঢাকার মোহাম্মদীয়া হাউজিংয়ে এক অফিসে চুরির ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তারের পর রাজধানী ও আশপাশের অর্ধশতাধিক বাসায় গ্রিল কেটে চুরির তথ্য পেয়েছে মোহাম্মদপুর থানা পুলিশ। 

কেরাণীগঞ্জের তারা নগর থেকে বৃহস্পতিবার বিকালে মনির হোসেন (২৮) নামের ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়। 

পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের উপ কমিশনার এইচ এম আজিমুল হক জানান, ৩ অক্টোবর মোহাম্মদপুর থানায় একটি চুরির মামলা হয়। 

মামলার বাদী জামাল আব্দুন নাসের (রোমেল) এজাহারে জানান, তিনি মোহাম্মদীয়া হাউজিংয়ের 'রাইট্স অ্যান্ড সাইট ফর চিলড্রেন' নামের একটি প্রতিষ্ঠানে প্রোগ্রাম ম্যানেজার হিসাবে কর্মরত। 

১ অক্টোবর রাত ৯টার দিকে অফিসের স্টাফরা অফিস তালাবন্ধ করে বাসায় চলে যান। পরদিন সকালে অফিস সহকারী অফিসে গিয়ে তালা খুলে বুঝতে পারেন দরজা ভেতর থেকে ছিটকিনি লাগানো। অফিস স্টাফরা মিলে তখন দরজার ছিটকিনি ভেঙে ভিতরে ঢোকেন। 

আলমারি, কেবিনেট, টেবিলের ড্রয়ার ভাঙা এবং অফিসের ফাইলপত্র এলোমেলো অবস্থায় দেখে তারা বুঝতে পারেন, অফিসে চুরি হয়েছে। 

অফিসের পূর্ব পাশের জানালার গ্রিল কাটা অবস্থায় পান তারা। পাশাপামি হিসাব কক্ষ ও ওই কক্ষের আলমারির তালা ভাঙা দেখতে পান। সেখানে থাকা সাড়ে ১২ লাখ টাকা খোয়া গেছে বলেও মামলায় উল্লেখ করা হয়। 

উপ কমিশনার আজিমুল হক বলেন, “অফিসের ভিতরে স্থাপন করা সিসি ক্যামেরায় ধারণ করা ভিডিওতে দেখা যে, রাত সাড়ে ১২টার দিকে একজন চোর অফিসের পূর্ব পাশের জানালার গ্রিল কেটে ভিতরে প্রবেশ করে এবং ভোর সাড়ে ৪টার দিকে বের হয়ে যায়। 

“সিসিটিভি ফুটেজ বিশ্লেষণ করে মনিরকে গ্রেপ্তার করা হয় এবং চুরি হওয়া ৭ লাখ ৮৭ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।” 

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া তথ্যের বরাত দিয়ে আজিমুল বলেন, “ঢাকা ও আশপাশ এলাকার অর্ধশতাধিক বাসায় গ্রিল কেটে চুরি করেছে মনির। 

“চুরি করাই তার পেশা। তার বিরুদ্ধে মোহাম্মদপুর, কলাবাগান, তেজগাঁও এবং কেরাণীগঞ্জ থানায় মাদক ও চুরির একাধিক মামলা রয়েছে।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক