মুক্তিযোদ্ধাদের জটিল রোগের চিকিৎসায় বরাদ্দ বাড়ল

চিকিৎসার ব্যয় বিবরণী মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় পাঠাতে হবে।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 Jan 2024, 12:18 PM
Updated : 27 Jan 2024, 12:18 PM

বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসায় সর্বোচ্চ সহায়তার পরিমাণ বছরে দুই লাখ টাকা থেকে বাড়িয়ে তিন লাখ টাকা করেছে সরকার।

এ বিষয়ে গত ১৪ সেপ্টেম্বর একটি প্রজ্ঞাপন প্রকাশ করেছে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

এতে বলা হয়েছে, বিশেষায়িত হাসপাতালে মুক্তিযোদ্ধাদের জটিল রোগের চিকিৎসা বা জরুরি অপারেশনে ৭৫ হাজার টাকার বেশি অর্থের প্রয়োজন হলে কর্তৃপক্ষ সর্বোচ্চ তিন লাখ টাকা পর্যন্ত ব্যয় করতে পারবে। এতদিন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সুপারিশে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের পর সর্বোচ্চ দুই লাখ টাকা পর্যন্ত ব্যয় করা যেত।

চিকিৎসার এই ব্যয় বিবরণী মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় পাঠাতে হবে বলেও জানানো হয়েছে।

সংশোধিত নীতিমালায় বলা হয়েছে, মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসা মঞ্জুরির ক্ষেত্রে চিকিৎসা সেবার মান ও ব্যয় যাচাইয়ে প্রয়োজনীয় সংখ্যক কমিটি গঠন করা যাবে। ওই কমিটির সদস্যদের সভায় অংশগ্রহণের জন্য নির্ধারিত হারে সম্মানী দেওয়া যাবে।

মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসার বিশেষায়িত হাসপাতালের তালিকায় ‘জাতীয় হৃদরোগ ফাউন্ডেশন হাসপাতাল এবং গবেষণা ইনস্টিটিউট, মিরপুর, ঢাকা’র জায়গায় ‘ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউট, মিরপুর-২ কে যুক্ত করা হয়েছে।

আগে মুক্তিযোদ্ধাদের ‘চিকিৎসা’ এবং ‘প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত’ এই দুই খাতে অর্থ বরাদ্দের সুযোগ ছিল। নীতিমালা সংশোধন করে ‘মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সংশ্লিষ্ট বিবিধ কার্যক্রম’ যুক্ত করা হয়েছে। এখন হাট-বাজারের ইজারার আয়ের অর্থ থেকে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সংশ্লিষ্ট বিবিধ কার্যক্রমে অর্থ বরাদ্দ দেওয়া যাবে।

(প্রতিবেদনটি প্রথম ফেইসবুকে প্রকাশিত হয়েছিল ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে: ফেইসবুক লিংক)