আমাদের সম্পদ ‘চুরি’ করলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে: পশ্চিমাদেরকে রাশিয়ার হুমকি

রাশিয়া ইউক্রেইনে যুদ্ধ করতে সেনা পাঠানোর পর, যুক্তরাষ্ট্র ও এর মিত্ররা মস্কোর কেন্দ্রীয় ব্যাংক এবং অর্থ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে লেনদেন নিষিদ্ধ করে।

রয়টার্স
Published : 14 Feb 2024, 01:47 PM
Updated : 14 Feb 2024, 01:47 PM

যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন রাশিয়ার হাজার হাজার কোটি ডলারের সম্পদ বাজেয়াপ্ত করলে ‘কঠোর’ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে মঙ্গলবার হুমকি দিয়েছে রাশিয়া।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০২২ সালে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেইনে যুদ্ধ করতে সেনা পাঠানোর পর, যুক্তরাষ্ট্র ও এর মিত্ররা রাশিয়ার কেন্দ্রীয় ব্যাংক এবং অর্থ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে লেনদেন নিষিদ্ধ করে। যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপ রাশিয়ার প্রায় ৩০ হাজার কোটি ডলারের সম্পদ জব্দ করে।

সোমবার ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) রাশিয়ার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের জব্দ করা সম্পদের ওপর অর্জিত মুনাফা আলাদা করতে একটি আইন প্রনয়ণ করেছে। এ আইনের মাধ্যমে ইউক্রেইন পুনর্গঠনে এই অর্থ ব্যবহারের পথে প্রথম বাস্তবসম্মত পদক্ষেপ নিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন।

রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভার উদ্ধৃতি দিয়ে বার্তা সংস্থা তাসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, “এটি চুরি: এটি এমন কিছু আত্মসাৎ করা, যা আপনার নয়।”

জাখারোভা বলেন, “রাশিয়া চোরের মোকাবেলা করছে মনে করলে এর জবাব “অত্যন্ত কঠোর” হবে।” তিনি আরও বলেন, “আমাদের দেশ একে চুরি হিসেবে চিহ্নিত করেছে। এ বিবেচনায় আমাদের ব্যবহার চোরদের ক্ষেত্রে যেমন হওয়া দরকার তেমনই হবে।”

রাশিয়া বলছে, তাদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হলে এর পাল্টায় যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় এবং অন্যান্য দেশের সম্পদ বাজেয়াপ্ত করা হবে।