রাশিয়াকে ‘সন্ত্রাসবাদে মদদদাতা রাষ্ট্র’ ঘোষণা করল ইউরোপীয় পার্লামেন্ট

রুশ বাহিনী ইউক্রেইনের বেসামরিক বিভিন্ন স্থাপনায় হামলা চালানোয় রাশিয়াকে এই তকমা দিয়েছে ইউরোপীয় পার্লামেন্ট।

রয়টার্স
Published : 23 Nov 2022, 04:13 PM
Updated : 23 Nov 2022, 04:13 PM

রাশিয়ার সেনাবাহিনী ইউক্রেইনের বিদ্যুৎকেন্দ্র, হাসপাতাল, স্কুল এবং আশ্রয়কেন্দ্রের মত বেসামরিক স্থাপনায় হামলা চালাচ্ছে। তাই রাশিয়াকে সন্ত্রাসবাদে মদদদাতা রাষ্ট্রের ‍তকমা দিয়েছে ইউরোপীয় পার্লামেন্ট।

বুধবার এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাবনার পক্ষে ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সদস্যরা ভোট দিয়েছেন। যদিও এই ব্যবস্থা কার্যত প্রতীকী।

কারণ, এ প্রস্তাবনা বাস্তবায়নের কোনও আইনি কর্মকাঠামো ইউরোপীয় পার্লামেন্টের নেই। তার ওপর ইউক্রেইনে হামলার জেরে ইইউ আগেই রাশিয়ার উপর বেশ কিছু কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে রেখেছে।

ইউক্রেইনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্র এবং অন্যান্য দেশের কাছেও রাশিয়াকে সন্ত্রাসবাদের মদদদাতা রাষ্ট্র ঘোষণা করার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

জেলেনস্কির অভিযোগ, মস্কো ইচ্ছাকৃতভাবে ইউক্রেইনের বেসামরিক স্থাপনায় হামলা চালাচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেন অবশ্য এখনও রাশিয়াকে সন্ত্রাসবাদের মদদদাতা দেশের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করতে রাজি হননি। যদিও যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের উভয় কক্ষ থেকে তাকে এমন পদক্ষেপ নিতে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বর্তমানে কিউবা, উত্তর কোরিয়া, ইরান এবং সিরিয়াকে সন্ত্রাসবাদের মদদদাতা দেশের তালিকায় রেখেছে। সন্ত্রাসবাদের মদদদাতা দেশের তালিকায় থাকার অর্থ ওইসব দেশে কোনো প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম পাঠানো নিষিদ্ধ এবং অর্থনৈতিক নানা বিধিনিষেধও থাকবে।

ইইউ-এর দেশগুলোর মধ্যে লিথুনিয়া, লাটভিয়া, এস্তোনিয়া ও পোল্যান্ডের পার্লামেন্ট রাশিয়াকে সন্ত্রাসবাদের মদদদাতা রাষ্ট্র ঘোষণা করেছে। দেশগুলোর এই পদক্ষেপে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করেছে মস্কো।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক