বালিতে জি২০ সম্মেলনে যাচ্ছেন না পুতিন

আগামী সপ্তাহে শুরু হতে যাওয়া এ সম্মেলনে পুতিনের বদলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ রাশিয়ার প্রতিনিধিত্ব করবেন।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 10 Nov 2022, 09:32 AM
Updated : 10 Nov 2022, 09:32 AM

ইন্দোনেশিয়ার বালি দ্বীপে জি২০ সম্মেলনে যে বিশ্বনেতারা জড়ো হবেন, তাদের মধ্যে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন থাকছেন না বলে জানিয়েছেন রাশিয়া ও ইন্দোনেশিয়ার কর্মকর্তারা।

আগামী সপ্তাহে শুরু হতে যাওয়া এ সম্মেলনে পুতিনের বদলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ রাশিয়ার প্রতিনিধিত্ব করবেন, বৃহস্পতিবার কর্মকর্তারা এমনটাই বলেছেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। 

রুশ প্রেসিডেন্ট জি২০ সম্মেলনের একটি বৈঠকে ভার্চুয়ালি যোগ দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন ইন্দোনেশিয়ার সমুদ্র ও বিনিয়োগ বিষয়ক সমন্বয়কারী মন্ত্রীর মুখপাত্র জোডি মাহারদি।

ইউক্রেইন যুদ্ধ নিয়ে রাশিয়াকে বহিষ্কার এবং পুতিনকে বালি সম্মেলনে আমন্ত্রণ না জানাতে এ বছরের জি-২০ সম্মেলনের আয়োজক দেশ ইন্দোনেশিয়ার ওপর ইউক্রেইন ও পশ্চিমা দেশগুলোর ব্যাপক চাপ থাকলেও জাকার্তা তা ভালোভাবেই সামলেছে।

তারা বলেছে, সদস্য দেশগুলোর ঐকমত্য ছাড়া রাশিয়াকে বহিষ্কার করার এখতিয়ার তাদের নেই।

পুতিন যে আগামী সপ্তাহের বালি সম্মেলনে যোগ দিচ্ছেন না তা ইন্দোনেশিয়ায় রাশিয়ার দূতাবাসের এক মুখপাত্রও নিশ্চিত করেছেন, তবে এ প্রসঙ্গে কোনো ব্যাখ্যা দেননি তিনি।

জি২০-র সদস্যভুক্ত প্রভাবশালী অনেক দেশের মধ্যে যে ভূরাজনৈতিক দ্বন্দ্ব বিদ্যমান, তা নিরসনে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো।

রাশিয়া তাদের ভাষায় ইউক্রেইনে ‘বিশেষ সামরিক অভিযান’ শুরুর পর বিশ্বজুড়ে চলা উত্তেজনার মধ্যে অনেক বৈঠকেই ওয়াকআউট কিংবা বৈঠক বয়কটের হুমকি দেখা গেছে। 

“প্রেসিডেন্ট চেষ্টা করে আসছিলেন সবাই যেন ঠাণ্ডা হন, এখন সেটাই হচ্ছে বলে মনে হচ্ছে,” বালিতে স্থানীয় গণমাধ্যমগুলোকে এমনটাই বলেছেন ইন্দোনেশিয়ার সমুদ্র ও বিনিয়োগ বিষয়ক সমন্বয়কারী মন্ত্রী লুহুত পান্ডজেইতান।

অনেকের কাছেই জোকোয়ি নামে পরিচিত ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো সম্প্রতি ফাইন্যান্সিয়াল টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, রাশিয়াকে সম্মেলনে স্বাগত জানানো হবে।

আন্তর্জাতিক অঙ্গনে উত্তেজনার ‘খুবই উদ্বেগজনক’ বৃদ্ধি সম্মেলনে ছায়া ফেলতে পারে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করছেন তিনি।

“জি২০ রাজনৈতিক ফোরাম নয়; এটি অর্থনীতি ও উন্নয়নের ফোরাম,” উইদোদো এমনটাই বলেছেন বলে জানিয়েছে ফাইন্যান্সিয়াল টাইমস।

ইন্দোনেশিয়া এবারের বালি সম্মেলনে ইউক্রেইনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কিকেও আমন্ত্রণ জানিয়েছে। জেলেনস্কি বলেছিলেন, পুতিন যোগ দিলে তিনি সম্মেলনে যাবেন না। ইউক্রেইনের এ প্রেসিডেন্ট সম্মেলনে ভার্চুয়ালি যোগ দেবেন বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

১৫ নভেম্বর থেকে শুরু হতে যাওয়া এবারের জি২০ সম্মেলনে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংসহ বেশ কজন বিশ্বনেতার উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক