পাকিস্তানের নতুন সেনাপ্রধান লে. জেনারেল আসিম মুনির

কয়েক সপ্তাহ ধরে চলা ব্যাপক জল্পনা ও গুজবের অবসান ঘটিয়ে দেশের গোয়েন্দা প্রধানকে সেনাপ্রধান হিসেবে বেছে নিলেন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 Nov 2022, 09:54 AM
Updated : 24 Nov 2022, 09:54 AM

পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর প্রধান হিসেবে লেফটেন্যান্ট জেনারেল আসিম মুনিরকে বেছে নিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরীফ।

কয়েক সপ্তাহ ধরে চলা ব্যাপক জল্পনা ও গুজবের অবসান ঘটিয়ে বৃহস্পতিবার দেশের গোয়েন্দা প্রধানকে সেনাপ্রধান হিসেবে বেছে নিলেন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ।

পাকিস্তানের তথ্যমন্ত্রী মরিয়ম আওরঙ্গজেব টুইটারে এ নিয়োগের কথা ঘোষণা করে জানান, প্রধানমন্ত্রী তার সাংবিধানিক ক্ষমতাবলে মুনিরকে বেছে নিয়েছেন। 

পারমাণবিক শক্তিধর পাকিস্তানের শাসন ব্যবস্থায় সেনাবাহিনী অত্যন্ত প্রভাবশালী ভূমিকা পালন করে থাকে। 

পাকিস্তানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, মুনির বিদায়ী সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়ার স্থলাভিষিক্ত হবেন। সেনাপ্রধান হিসেবে ছয় বছর দায়িত্বপালনের পর চলতি নভেম্বরেই অবসরে যাবেন বাজওয়া।

সামরিক বাহিনী ও পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের মধ্যে চলা বিতর্কের মধ্যেই সেনাপ্রধান হিসেবে নিয়োগ পেলেন মুনির। চলতি বছরের প্রথমদিকে তার ক্ষমতাচ্যুতিতে সেনাবাহিনীর ভূমিকা ছিল বলে অভিযোগ ইমরানের।

পাকিস্তানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী খাজা আসিফ সাংবাদিকদের বলেন, “সংবিধান, আইন ও মেধার ভিত্তিতে এ নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।”

পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ রাজনীতি ও বৈদেশিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে শুরু থেকেই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে দেশটির সেনাবাহিনী।

মুনিরের নিয়োগ পাকিস্তানের ভঙ্গুর গণতন্ত্রের ওপর, দেশটির সঙ্গে প্রতিবেশী ভারত ও আফগানিস্তানের সম্পর্কের ওপর এবং দেশ হিসেবে পাকিস্তান চীন না যুক্তরাষ্ট্রমুখি হবে তার ক্ষেত্রে প্রভাব ফেলবে বলে ধারণা রয়টার্সের।

বিদায়ী সেনাপ্রধান বাজওয়া বুধবার বলেছেন, ভবিষ্যতে জাতীয় রাজনীতিতে সামরিক বাহিনীর কোনো ভূমিকা থাকবে না। পিটিআই সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার ক্ষেত্রে কথিত যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থিত যড়ষন্ত্রে সামরিক বাহিনী ভূমিকা থাকার ইমরানের অভিযোগকে ‘ভুয়া ও মিথ্যা’ অখ্যায়িত করে তা প্রত্যাখ্যান করেছেন বাজওয়া।   

চলতি মাসের প্রথমদিকে তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) সরকারবিরোধী লংমার্চ চলাকালে এক বন্দুক হামলায় আহত হন ইমরান। তিনি আগাম নির্বাচনের দাবি জানিয়ে যাচ্ছেন এবং শনিবার রাওয়ালপিন্ডিতে সরকারবিরোধী এক প্রতিবাদে নেতৃত্ব দেবেন। পাকিস্তান সেনাবাহিনীর সদরদপ্তর এই রাওয়ালপিন্ডিতেই অবস্থিত। 

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক