সম্পর্কে টানাপোড়েনের মধ্যেও মালদ্বীপে গতি পাচ্ছে ভারতীয় প্রকল্প

নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মোহামেদ মুইজ্জুর মালদ্বীপ থেকে ভারতীয় সেনা প্রত্যাহারের নির্দেশ নিয়ে দুই দেশের সম্পর্কে টানাপোড়েন চলছে।

রয়টার্স
Published : 19 Feb 2024, 05:45 PM
Updated : 19 Feb 2024, 05:45 PM

মালদ্বীপের উন্নয়নে সহায়তা বাড়িয়েছে ভারত। দেশটিতে ভারতের অর্থায়নে হওয়া প্রকল্পের কাজেও বেড়েছে গতি। যদিও নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মোহামেদ মুইজ্জুর মালদ্বীপ থেকে ভারতীয় সেনা প্রত্যাহারের নির্দেশ নিয়ে দুই দেশের সম্পর্কে টানাপোড়েন চলছে।

মালদ্বীপে ভারতের উন্নয়ন প্রকল্পগুলো চলমান রয়েছে। ভারতীয় কর্মকর্তা ও সরকারের নথির তথ্যানুযায়ী আগামী মার্চে শেষ হতে চলা চলতি অর্থবছরে মালদ্বীপের বিভিন্ন প্রকল্পে প্রায় ৭৭১ কোটি ভারতীয় রুপি ব্যয় করেছে ভারত, যা মালদ্বীপের ৪০০ কোটি রুপির বাজেটের প্রায় দ্বিগুণ।

একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প হচ্ছে মালদ্বীপের রাজধানী মালে ঘিরে বিভিন্ন সড়ক ও সেতু উন্নয়ন প্রকল্প। ৫০ কোটি ডলারের প্রকল্প এটি। এর পাশাপাশি দুটো বিমানবন্দর তৈরির প্রকল্পও আছে ভারতের। ১৩ কোটি ডলারের প্রকল্প এটি।

মালদ্বীপে নতুন প্রেসিডেন্ট মুইজ্জু এসে চীনঘেঁষা পররাষ্ট্রনীতি নেওয়ার পরও ভারত দেশটিতে উন্নয়ন সহযোগিতা বন্ধ করেনি। মুইজ্জু দায়িত্ব নেওয়ার পরই ‘ভারত প্রথম’ নীতির অবসান ঘটানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। একইসঙ্গে মালদ্বীপ থেকে ৮০ ভারতীয় সেনা তাড়ানোরও নিশ্চয়তা দেন তিনি।

ভারতের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সরকারি কর্মকর্তা রয়টার্সকে বলেন, দুই দেশের সম্পর্কের টানাপোড়েনের পরও উন্নয়ন সহযোগিতায় কোনও পরিবর্তন আসেনি বা বন্ধ হয়নি; বরং প্রকল্পের কাজের গতি আরও ত্বরান্বিত হয়েছে।

এ বিষয়ে মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট মুইজ্জুর কার্যালয় থেকে তাৎক্ষণিক কোনও মন্তব্য করা হয়নি।

১ ফেব্রুয়ারি ভারতের লোকসভায় উত্থাপিত বাজেটে দেখা গেছে, ২০২২-২৩ অর্থবছরে মালদ্বীপে বিভিন্ন প্রকল্পে ১৮৩ কোটি রুপি ব্যয় করেছিল ভারত। ২০২৩-২৪ অর্থবছরে এসে তা একলাফে বেড়ে ৭৭১ কোটি রুপিতে দাঁড়িয়েছে।

মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট মুইজ্জু গতমাসেই চীন সফর করেছেন। তবে ভারতে তিনি এখনও সফর করেননি। তবে এমাসে ভারত এবং মালদ্বীপ আগামী মে মাসের মধ্যেই সেনা প্রত্যাহারের বিষয়ে একমত হয়েছে।