সেনাপ্রধান জালুঝনিকে বরখাস্ত করলেন জেলেনস্কি

ইউক্রেইনে রাশিয়ার আগ্রাসনের প্রায় দুই বছরের মাথায় সামরিক বাহিনীতে এ এক বড় ধরনের নাটকীয় পরিবর্তন।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 8 Feb 2024, 06:14 PM
Updated : 8 Feb 2024, 06:14 PM

ইউক্রেইনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি সেনাপ্রধান ( কমান্ডার-ইন-চিফ) ভ্যালেরি জালুঝনিকে বরখাস্ত করেছেন। বলেছেন, এখন দেশের সামরিক নেতৃত্বকে নতুন করে ঢেলে সাজানোর সময়।

জালুঝনির জায়গায় নতুন নিয়োগ দেওয়া হয়েছে স্থলবাহিনীর কমান্ডার সিরস্কিকে। ইউক্রেইনে রাশিয়ার আগ্রাসনের প্রায় দুইবছরের মাথায় সামরিক বাহিনীতে এ এক বড় ধরনের নাটকীয় পরিবর্তন।

জেনারেল জালুঝনি এবং প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কির মধ্যে বিরোধ চলা নিয়ে গুঞ্জনের পর বরখাস্তের এ ঘটনা ঘটল। জালুঝনি রাশিয়ার আগ্রাসনের শুরু থেকেই ইউক্রেইনের যুদ্ধে নেতৃত্ব দিয়ে এসেছেন।

বিবিসি জানায়, তাকে বরখাস্তের বিষয়টি সরকারিভাবে জানানো হবে একটি প্রেসিডেন্সিয়াল ডিক্রিতে।

বৃহস্পতিবার প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি বলেছেন, “হাই কমান্ড ‘নবায়ন’ করা দরকার। জেনারেল জালুঝনি টীমে থাকতে পারেন। আজ থেকে নতুন একটি ব্যবস্থাপনা টীম ইউক্রেইনের সশস্ত্র বাহিনীর নেতৃত্ব দেওয়ার দায়িত্ব নেবে।”

জেলেনস্কি জানান, সেনাবাহিনীতে পরিবর্তন নিয়ে আসার ব্যাপারে তিনি এবং জালুঝনি খোলামেলা কথাবার্তা বলেছেন। সেইসঙ্গে রাশিয়ার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ইউক্রেইনকে রক্ষা করার জন্য তিনি জেনারেলকে ধন্যবাদও দিয়েছেন।

একথার পরই জেলেনস্কি নতুন সেনাপ্রধান কর্নেল-জেনারেল সিরস্কির নাম ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, এই নতুন জেনারেলের রাজধানী কিইভে প্রতিরক্ষায় সফলতার অভিজ্ঞতা আছে এবং খারকিভে আক্রমণ শানানোর সফল অভিজ্ঞতাও আছে।

২০২২ সালে রাশিয়ার আগ্রাসনের শুরুতে সিরস্কি রাজধানী কিইভকে সুরক্ষিত রাখতে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। আবার খারকিভে রাশিয়ার বাহিনীর বিরুদ্ধে সফল পাল্টা হামলা চালানোর হোতাও ছিলেন তিনিই।

জেলেনস্কি এক বিবৃতিতে বলেন, “আমাদেরকে এ বছরটাকে গুরুত্বপূর্ণ একটি বছর করে তুলতে হবে। যে বছর হবে যুদ্ধে ইউক্রেইনের লক্ষ্য অর্জনের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। ২০২২ সালের কাজ আর ২০২৪ সালের কাজ আলাদা। কাজেই প্রত্যেককে বদলাতে হতে হবে এবং নতুন বাস্তবতার সঙ্গে খাপ খাওয়াতে হবে। একসঙ্গে জিততে গেলেও তা করতে হবে।”