মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের সাজা কমল

ওয়ানএমডিবি অর্থ কেলেঙ্কারির মামলায় কারাদণ্ডপ্রাপ্ত নাজিব রাজাকের সাজার মেয়াদ ১২ বছর থেকে অর্ধেক কমিয়েছে রাজকীয় ক্ষমা বোর্ড।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 Feb 2024, 01:59 PM
Updated : 2 Feb 2024, 01:59 PM

দুর্নীতির অভিযোগে কারাদণ্ড হওয়া মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের সাজা কমেছে। রাজকীয় ক্ষমা বোর্ড তার ১২ বছরের কারাদণ্ডের মেয়াদ অর্ধেক কমিয়ে ৬ বছর করেছে।

এছাড়াও বোর্ড তার জরিমানা ২১ কোটি রিঙ্গিত থেকে কমিয়ে ৫ কোটি রিঙ্গিত করেছে। তবে ২০২৮ সালের অগাস্টে মুক্তি পেতে হলে নাজিবকে এর আগে জরিমানার এই পুরো অর্থ পরিশোধ করতে হবে।

জরিমানা দিতে ব্যর্থ হলে নাজিবের সাজার মেয়াদ আরও এক বছর অর্থাৎ, ২০২৯ সাল পর্যন্ত বাড়ানো হবে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

রাষ্ট্রীয় বিনিয়োগ তহবিল ‘ওয়ান মালয়েশিয়ান ডেভেলপমেন্ট বেরহাদ’ (ওয়ানএমডিবি) অর্থ কেলেঙ্কারির মামলায় ২০২২ সালে নাজিবকে জেল দিয়েছিল আদালত।

তার আগে ২০২০ সালে ওয়ানএমডিবি দুর্নীতি কেলেঙ্কারির অভিযোগে নাজিব দোষী সাব্যস্ত হয়েছিলেন। ২০২২ সালের অগাস্ট থেকে তিনি কারাদণ্ড ভোগ করছেন। তিনি রাজকীয় ক্ষমার জন্য আবেদন করেছিলেন।

মঙ্গলবার কয়েকটি খবরে বলা হয়, মালয়েশিয়ার রাজার মেয়াদের শেষ দিনে তার সভাপতিত্বে পরিচালিত ক্ষমা বোর্ড নাজিবের মুক্তির ওই আবেদন বিবেচনা করে দেখতে একটি বৈঠক করেছে। পরে শুক্রবার ক্ষমা বোর্ড আবেদন পর্যালোচনার পর নাজিবের সাজা কমানোর সিদ্ধান্ত হওয়ার কথা জানায়।

মালয়েশিয়ার রাজতন্ত্রে পালাবদলের নিয়ম আছে। মালয়েশিয়ার রাজা আবদুল্লাহ আহমদ শাহ গত বুধবারেই সুলতান ইব্রাহিম ইস্কান্দারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করেছেন।

তাসমানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের এশিয়ান স্টাডিজ- এর অধ্যাপক জেমস চিন বিবিসি-কে বলেন, সাজা কমানোর মাধ্যমে একটি বার্তা দেওয়া হয়েছে। তা হল, দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার নেতারা আইনি ছাড় পেয়ে যেতে পারে। “আপনি আপনার ক্যারিয়ারের একটি নির্দিষ্ট পর্যায়ে পৌঁছে গেলে কোনও কিছুতেই আপনার আর কিছু হবে না।”